তফশিলি জাতি-উপজাতি সংশোধনী আইনের সাংবিধানিক বৈধতা বহাল রাখল সুপ্রিম কোর্ট

0
ফাইল ছবি

নয়াদিল্লি: তফশিলি জাতি-উপজাতি নির্যাতন রোধ আইন ২০১৮ বহাল রাখল সুপ্রিম কোর্ট। সোমবার এই নির্দেশ দিয়েছে সর্বোচ্চ আদালত।

তফশিলি জাতি ও উপজাতির মানুষদের ওপর নিগ্রহ বন্ধে ১৯৮৯ সালে ওই আইন তৈরি করেছিল তৎকালীন রাজীব গান্ধী সরকার। ২০১৫-য় সেই আইনে সংশোধনী আনা হয়। সেখানে এই আইনকে আরও বেশি সক্রিয় করা হয়েছিল।

ওই সংশোধনীতে বলা হয় উচ্চবর্ণের কেউ যদি তফশিলি জাতি ও উপজাতি সম্প্রদায়ের কারও মাথা বা গোঁফ কামিয়ে দেন, কাউকে যদি দলিত বলে অপমান করেন, সেই ঘটনাকেও জামিনঅযোগ্য অপরাধের আওতায় আনা যাবে।

সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছে এই সংক্রান্ত কোনো মামলা রুজু করার আগেই প্রাথমিক তদন্ত করতে হবে। এমনকি, অভিযুক্তকে আগাম জামিনও দেওয়া যেতে পারে।

আরও পড়ুন ওমর আবদুল্লাহকে বন্দি করার সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন

২০১৮ সালেও এমন নির্দেশ দিয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট। সেই নির্দেশের পরেই দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ক্ষোভে ফেটে পড়ে দলিত সম্প্রদায়ের মানুষজন। বিভিন্ন জায়গায় হিংসাত্মক প্রতিবাদও হয়। ওই রায়ের পর্যালোচনার জন্য ফের আবেদন জানানো হয় সুপ্রিম কোর্টে। যদিও এ দিন দু’ বছর আগের সেই রায়ই বহাল রাখল শীর্ষ আদালত।

এ দিনের এই রায়ের পর তফশিলি জাতি-উপজাতিদের মধ্যে কেমন প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায় সেটাই দেখার।

------------------------------------------------
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.