Rajeev Kumar
প্রতীকী ছবি

নয়াদিল্লি: সারদা-কাণ্ডের তদন্তে কলকাতার প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারকে হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করার আবেদন জানিয়েছিলেন সিবিআই। সুপ্রিম কোর্টের তিন বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চে সেই মামলারই রায় ঘোষণা হতে চলেছে আগামী শুক্রবার। এই রায়েই স্পষ্ট হয়ে যাবে, যে রক্ষাকবচের জোরে রাজীবকে হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদে ব্যর্থ হতে হচ্ছে সিবিআইকে, তা এ বার সফল হবে কি না?

জানা গিয়েছে, সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি সঞ্জীব খান্না এই রায় দেবেন। আগামী শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টায় রায় ঘোষণা করবেন তিনি। শীর্ষ আদালতের কোর্ট নম্বর ৪-এ হবে এই মামলার রায়দান।

সারদা মামলার তদন্তে রাজীবের নেতৃত্বেই বিশেষ তদন্তকারী দল গঠন করেছিল রাজ্য সরকার। তখন তিই ছিলেন বিধাননগর কমিশনারেটের কমিশনার। পরে এই মামলার তদন্তভার যায় সিবিআইয়ের হাতে। কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা দাবি করেছে, তথ্যপ্রমাণ লোপাটের সঙ্গেই তা বিকৃত করা হয়েছে। এ ব্যাপারে সিটের প্রধান হিসেবে রাজীবকে কাঠগড়ায় তোলে সিবিআই। তাঁকে জেরাও করতে চায় নিজেদের হেফাজতে রেখে। কিন্তু সিবিআইয়ের সেই আবেদনের বিরোধিতা করেন রাজীব। জানা গিয়েছে, সেই মামলার রায়ই ওই ঘোষমা করবে শীর্ষ আদালত।

প্রসঙ্গত, গত বুধবার রাতে রাজ্যের এডিজি সিআইডিপদ থেকে রাজীবকে অপসারণ করেছে নির্বাচন কমিশন। একই সঙ্গে বৃহস্পতিবার সকাল দশটায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকে রিপোর্ট করার জন্য নির্বাচন কমিশনের তরফ থেকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল তাঁকে। কিন্তু সেই সময়সীমা পেরিয়ে যাওয়ার প্রায় ঘণ্টা দুয়েক পর তিনি হাজিরা দেন। কেন নির্দিষ্ট সময়ে রাজীব কুমার নতুন কর্মক্ষেত্রে পৌঁছোলেন না, সে বিষয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে বিভিন্ন মহলে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here