Connect with us

দেশ

‘গণতন্ত্রের থাপ্পড়’ মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে মুখ্যমন্ত্রীকে তীব্র আক্রমণ সুষমা স্বরাজের

ওয়েবডেস্ক: এ বার ভোটে লড়ছেন না বলে বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজকে ভোটের ময়দানে বিশেষ দেখা যাচ্ছে না। আর মোদী-শাহের মতো বিরোধীদের উদ্দেশে চাঁচাছোলা আক্রমণ করতে কোনো দিনও দেখা যায়নি তাঁকে। কিন্তু বুধবার যে রূপে তাঁকে দেখা গেল, সেটা একদম নজিরবিহীনই বলা চলে।

মঙ্গলবার নির্বাচনী জনসভায় মোদীকে ‘ঠাসিয়ে গণতন্ত্রের থাপ্পড়’ দেওয়ার কথা বলেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এতেই বেজায় চটেছেন সুষমা। এর পরিণাম ভালো হবে না বলেও কার্যত মমতাকে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন বিদেশমন্ত্রী।

টুইটারে এ দিন সুষমা লেখেন, ‘‘মমতাজি, আপনি আজ সমস্ত সীমা লঙ্ঘন করেছেন। আপনি একটি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী, মোদীজি দেশের প্রধানমন্ত্রী। আগামী দিনে তাঁর সঙ্গে আপনার কথা বলতেই হবে। এই জন্যই আপনাকে উর্দু কবি বশির বদরের কয়েকটি পংক্তি আপনাকে স্মরণ করিয়ে দিতে চাই।’’

এর পর ওই লাইনগুলিও উদ্ধৃত করেছেন সুষমা— ‘‘আপনি যত খুশি রেগে যেতে পারেন, কিন্তু আমি আপনাকে শুধু একটাই অনুরোধ করব, পরে কোনো যদি আমরা কখনও বন্ধু হই, তা হলে সে দিন যেন লজ্জা পাবেন না।’’

এ দিকে সুষমার এই পালটা আক্রমণের পরিপ্রেক্ষিতে তৃণমূলের তরফে কোনো জবাব না পাওয়া গেলেও, তাঁকে তীব্র কটাক্ষ করেছেন তেজস্বী যাদব। রাজীব গান্ধীকে নিয়ে মোদীর মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে সুষমা কেন চুপ ছিলেন, সেই প্রশ্নই তোলেন তেজস্বী।

আরও পড়ুন আচমকা স্টেজ ভাঙল নুসরতের!

যখন রাজীব গাঁধীকে নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করেছেন, তখন প্রায় সব বিরোধী দলের নেতানেত্রী তাঁর সমালোচনা করেছেন, তখন একেবারে নীরব ছিলেন বিজেপির নেতানেত্রীরা। এখানেই তেজস্বীর মতোই রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের একটা বড়ো অংশের প্রশ্ন, মোদীর মন্তব্য নিয়ে প্রশ্ন না করা সুষমার কাছে মমতার প্রতি এই ধরনের আক্রমণ কি সত্যিই মানায়?

উল্লেখ্য, নরেন্দ্র মোদী এবং অমিত শাহ এ রাজ্যে ভোট প্রচারে এসে প্রায় প্রতি বারই তৃণমূলের বিরুদ্ধে তোলাবাজির অভিযোগ করেছেন। মঙ্গলবারও অমিত বলেন, ‘‘এ রাজ্যে সমস্ত কাজের জন্যই সিন্ডিকেটকে তোলা দিতে হয়। কিন্তু সেই তোলার টাকাও এখন গুন্ডাদের হাতে পৌঁছোয় না। সোজা চলে যায় ভাইপোর কাছে। ভাইপো সেই টাকা বিদেশে পাঠিয়ে দেন।’’ তার জবাবেই মমতা ‘গণতন্ত্রের থাপ্পড়’ মারার কথা বলেন।

দেশ

কোভিড-১৯ স্বাস্থ্য এবং অর্থনীতির সামনে শেষ একশো বছরের সব থেকে বড়ো সংকট: আরবিআই গভর্নর

‘এসবিআই ব্যাঙ্কিং অ্যান্ড ইকোনমিক্স কনক্লেভে’ ভিডিও কলের মাধ্যমে আলাপচারিতায় অংশ নেন গভর্নর

Shaktikanta Das

ওয়েবডেস্ক: কোভিড-১৯ (Covid-19) শেষ একশো বছরে স্বাস্থ্য ও অর্থনীতির সামনে সব থেকে বড়ো সংকট ডেকে নিয়ে এসেছে বলে মন্তব্য করলেন ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্কের (RBI) গভর্নর শক্তিকান্ত দাস (Shaktikanta Das)।

শনিবার দেশের বৃহত্তম রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্ক এসবিআই (SBI)-এর চেয়ারম্যান রজনীশ কুমারের (Rajnish Kumar) সঙ্গে আলাপচারিতার সময় গভর্নর এই মন্তব্য করেন। তিনি এ দিন ‘এসবিআই ব্যাঙ্কিং অ্যান্ড ইকোনমিক্স কনক্লেভে’ ভিডিও কলের মাধ্যমে এই আলাপচারিতায় অংশ নেন।

আরবিআই গভর্নরের আশঙ্কা, করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে চাহিদা ও সরবরাহ বিশাল ধাক্কা খেয়েছে। কয়েক মাস ধরে দেশব্যাপী লকডাউনের পরে ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হওয়ার পথ ধরলেও ভারতীয় অর্থনীতির মধ্যমেয়াদি দৃষ্টিভঙ্গি অনিশ্চিত অবস্থার মধ্যেই রয়ে গিয়েছে।

আরবিআই গভর্নর বলেন, “কোভিড-১৯ মহামারি এক দিকে যেমন স্বাস্থ্য ক্ষেত্রে প্রভাব ফেলেছে, তেমনই এই পরিস্থিতির জেরে সংকটে পড়েছে অর্থনীতিও। উৎপাদন থেকে শুরু করে কাজের উপরও খাড়া নেমে এসেছে। সব মিলিয়ে এই পরিস্থিতি শেষ একশো বছরে স্বাস্থ্য এবং অর্থনীতির কাছে সব থেকে বড়ো সংকটের চেহারা নিয়েছে”।

তিনি বলেন, “কোভিড-১৯ প্রাদুর্ভাব সারা বিশ্বে থাবা বসিয়েছে। যে কারণে বর্তমানে বিশ্বব্যাপীমান শৃঙ্খলা, শ্রম এবং মূলধন লেনদেন এবং সারা বিশ্বের বিশাল অংশের মানুষের আর্থ-সামাজিক অবস্থার উপর যে ব্যাপক প্রভাব ফেলেছে, তা বলাই বাহুল্য”।

সংকট কাটিয়ে উঠতে পদক্ষেপ

তাঁর কথায়, “কোভিড-১৯ মহামারি সম্ভবত আমাদের অর্থনীতি ও আর্থিক ব্যবস্থার দৃঢ়তা এবং স্থিতিস্থাপকতার বৃহত্তম পরীক্ষার মুখোমুখি দাঁড় করিয়ে দিয়েছে। এমন পরিস্থিতির মোকাবিলায় আমাদের আর্থিক ব্যবস্থা রক্ষা এবং বর্তমান সংকট কাটিয়ে ওঠার লক্ষ্যে প্রকৃত অর্থনীতির সমর্থনে গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি ঐতিহাসিক ব্যবস্থা নিয়েছে আরবিআই”।

আরবিআই গভর্নর বলেন, “কোভিড-১৯-এর নেতিবাচক অর্থনৈতিক প্রভাবের বিরুদ্ধে পাল্টা পদক্ষেপ নেওয়ার বিষয়ে ব্যাঙ্ক ও অন্যান্য আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলি শীর্ষস্থানে রয়েছে। এগুলি আরবিআইয়ের আর্থিক, নিয়ন্ত্রক এবং অন্যান্য নীতিগত পদক্ষেপের সম্মিলিত ফল। একই সঙ্গে বর্তমান পরিস্থিতি কাটিয়ে উঠতে সরকার যে সমস্ত কার্যকরী পদক্ষেপ নিয়েছে তারও জোরালো প্রভাব রয়েছে”।

আরও পড়তে পারেন: ব্যাঙ্কগুলির কাছ থেকে করোনা রিপোর্ট চাইছে আরবিআই

Continue Reading

দেশ

করোনার চিকিৎসায় আরও এক ওষুধ ব্যবহারের অনুমতি মিলল

তবে যে সব করোনা রোগীর প্রবল শ্বাসকষ্ট দেখা দেবে একমাত্র তাঁদের ক্ষেত্রেই এই ওষুধ ব্যবহার করা যাবে বলে জানানো হয়েছে

খবরঅনলান ডেস্ক: করোনার (Coronavirus) টিকা কবে আসবে এখনও পর্যন্ত কেউ নিশ্চিত নয়। খুব দ্রুত হলেও ২০২১-এর জানুয়ারির আগে ভারতে এই টিকা আসবে বলে মনে হয় না। কিন্তু এরই মাঝে বেশ কিছু ওষুধকে করোনার চিকিৎসায় ব্যবহারের জন্য ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে।

সম্প্রতি ইটোলিজুমাব একটি ওষুধকে সেই ছাড় দেওয়া হয়েছে। চর্মরোগ সোরিয়াসিস (psoriasis) কমানোর জন্যে প্রধানত ব্যবহৃত হলেও, ড্রাগ কনট্রোলার জেনারেল অফ ইন্ডিয়া (Drug Controller General of India) এই ওষুধ করোনা চিকিত্‍সায় ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে।

তবে যে সব করোনা রোগীর প্রবল শ্বাসকষ্ট দেখা দেবে একমাত্র তাঁদের ক্ষেত্রেই এই ওষুধ ব্যবহার করা যাবে বলে জানানো হয়েছে। শুত্রবার সংবাদসংস্থা পিটিআই-কে এই খবর জানানো হয়েছে।

ইনজেকশনের মাধ্যমে এই ওষুধ রোগীর শরীরে প্রয়োগ করা হয়। প্রধানত সাইটোকিন রিলিজ সিনড্রোমের (Cytokine release syndrome) চিকিৎসাতেই এই ওষুধের ব্যবহার সীমিত রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

কেন্দ্রীয় ড্রাগ কনট্রোলের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, “ভারতে কোভিড রোগীদের ওপর পরীক্ষা করে আশাপ্রদ ফল পাওয়ায় করোনা চিকিত্‍সায় ইটোলিজুমাব ব্যবহারের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।” তবে রোগীর বা রোগীর পরিবারের সদস্যদের লিখিত অনুমতি ছাড়া এই ওষুধ ব্যবহার করা যাবে না।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (World Health Organization) কিছু দিন আগে জানিয়েছে ভ্যাকসিন সহযোগী সংস্থা গ্যাভির সঙ্গে হাত মিলিয়ে ভ্যাকসিন তৈরির কাজ করছে তারা। ২০২১ সালের মধ্যে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনের অন্তত ২০০ কোটি ডোজ বাজারে ছাড়াই লক্ষ্য তাদের।

এই মুহূর্তে বিশ্বে যত ভ্যাকসিন তৈরি হচ্ছে, তাদের মধ্যে সব থেকে এগিয়ে রয়েছে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়। এই মুহূর্তে জোরকদমে তৃতীয় ধাপের ট্রায়াল চালাচ্ছে তারা। আশা করা হচ্ছে এই বছরের শেষের আগেই ব্রিটেনে করোনার টিকা উৎপাদনের কাজ শুরু হয়ে যাবে। এর ফলে আগামী বছরের শুরুর দিকে ভারতে করোনা টিকা চলে আসতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

Continue Reading

দেশ

দৈনিক আক্রান্তে রেকর্ডের দিনই সুস্থতা ছাড়াল ৫ লক্ষ

সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৫ লক্ষ ১৫ হাজার ৩৮৬ জন।

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আরও একটা দিন। আরও একবার রেকর্ড সংক্রমণ ভারতে। যদিও তার থেকেও বেশি স্বস্তি দিচ্ছে করোনামুক্তির সংখ্যা। কারণ শনিবারই করোনাযুদ্ধে জয়ী হলেন ভারতের ৫ লক্ষ মানুষ।

ভারতের করোনা-তথ্য

শনিবার কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তথ্য বলছে ভারতে এখন মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৮ লক্ষ ২০ হাজার ৯১৬। এর মধ্যে সক্রিয় রোগী রয়েছেন ২ লক্ষ ৮৩ হাজার ৪০৭ জন। সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৫ লক্ষ ১৫ হাজার ৩৮৬ জন। মৃত্যু হয়েছে ২২,১২৩ জনের।

অর্থাৎ গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ২৭, ১১৪ জন আক্রান্ত হয়েছেন। সুস্থ হয়েছেন ১৯.৮৭৩ জন। মৃত্যু হয়েছে ৫১৪ জনের। সুস্থতার হার বর্তমানে রয়েছে ৬২.৭৮ শতাংশ।

চেন্নাইয়ে কমছে করোনার সংক্রমণ

আশার আলো দেখা যাচ্ছে চেন্নাইকে ঘিরে। করোনায় সব থেকে প্রভাবিত শহরগুলির মধ্যে তিন নম্বরে রয়েছে চেন্নাই। গত সপ্তাহে টানা বেশ কয়েক দিন দৈনিক দু’ হাজার করে মানুষ করোনায় আক্রান্ত হচ্ছিলেন। সেটা এখন ১২০০-এর ঘরে নেমে এসেছে।

তামিলনাড়ুতে কিছু দিন আগেই টানা ১৫ দিনের লকডাউন করা হয়েছিল। এখন কনটেনমেন্ট জোনের বাইরে সেই লকডাউন তুলে দেওয়া হয়েছে। তারই ফল মিলছে বলে মনে করা হচ্ছে।

পশ্চিমবঙ্গ ছাড়াও চিন্তা বাড়ছে অসম-ওড়িশাকে ঘিরে

গত ২৪ ঘণ্টায় অসমে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৯৩৬ জন। এর ফলে রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১৫ হাজার পার করেছে। ওড়িশায় আক্রান্ত হয়েছেন ৭৭৯ জন।

উল্লেখ্য, বাকি দেশের থেকে পূর্ব ভারতে করোনার বাড়বাড়ন্ত অনেকটাই দেরিতে শুরু হয়েছে। এর মধ্যে পশ্চিমবঙ্গ আক্রান্তের সংখ্যার নিরিখে অনেকটাই এগিয়ে থাকলেও এখন ওড়িশা আর অসমেও আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে।

এর মধ্যে আবার নমুনা পজিটিভ হওয়ার হার বাকি রাজ্যগুলির থেকে ওড়িশায় সব থেকে বেশি।

Continue Reading
Advertisement
দেশ4 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ২৭১১৪, সুস্থ ১৯৮৭৩

কলকাতা3 days ago

কলকাতায় লকডাউনের আওতায় পড়া এলাকাগুলির পূর্ণাঙ্গ তালিকা প্রকাশিত

ক্রিকেট3 days ago

১১৬ দিন পর শুরু আন্তর্জাতিক ক্রিকেট, হাঁটু গেড়ে বসে জর্জ ফ্লয়েডকে স্মরণ ক্রিকেটারদের

LPG
দেশ3 days ago

উজ্জ্বলা যোজনায় বিনামূল্যের এলপিজি সিলিন্ডার পাওয়ার মেয়াদ বাড়ল আরও তিন মাস

রাজ্য2 days ago

ঘুমের মধ্যেই চলে গেলেন মহীনের অন্যতম ‘ঘোড়া’ রঞ্জন ঘোষাল

দেশ2 days ago

সক্রিয় করোনা রোগীর ৯০ শতাংশই আটটি রাজ্যে!

কলকাতা2 days ago

করোনার পাশাপাশি কলকাতা মেডিক্যাল কলেজে শুরু হচ্ছে অন্যান্য রোগের চিকিৎসা

শিক্ষা ও কেরিয়ার2 days ago

শুক্রবার আইসিএসই, আইএসসি-র ফল

কেনাকাটা

কেনাকাটা2 days ago

ঘরের একঘেয়েমি আর ভালো লাগছে না? ঘরে বসেই ঘরের দেওয়ালকে বানান অন্য রকম

খবরঅনলাইন ডেস্ক : একে লকডাউন তার ওপর ঘরে থাকার একঘেয়েমি। মনটাকে বিষাদে ভরিয়ে দিচ্ছে। ঘরের রদবদল করুন। জিনিসপত্র এ-দিক থেকে...

কেনাকাটা4 days ago

বাচ্চার জন্য মাস্ক খুঁজছেন? এগুলোর মধ্যে একটা আপনার পছন্দ হবেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিউ নর্মালে মাস্ক পরাটাই দস্তুর। তা সে ছোটো হোক বা বড়ো। বিরক্ত লাগলেও বড়োরা নিজেরাই নিজেদেরকে বোঝায়।...

কেনাকাটা5 days ago

রান্নাঘরের টুকিটাকি প্রয়োজনে এই ১০টি সামগ্রী খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক : লকডাউনের মধ্যে আনলক হলেও খুব দরকার ছাড়া বাইরে না বেরোনোই ভালো। আর বাইরে বেরোলেও নিউ নর্মালের সব...

কেনাকাটা6 days ago

হ্যান্ড স্যানিটাইজারে ৩১ শতাংশ পর্যন্ত ছাড় দিচ্ছে অ্যামাজন

অনলাইনে খুচরো বিক্রেতা অ্যামাজন ক্রেতার চাহিদার কথা মাথায় রেখে ঢেলে সাজিয়েছে হ্যান্ড স্যানিটাইজারের সম্ভার।

নজরে