নয়াদিল্লি: ভারতের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধীর ‘অস্বস্তি’ এড়াতেই রাতারাতি সুইডেন থেকে বন্ধ করা হয়েছিল বফর্স অস্ত্র কেলেঙ্কারির তদন্ত। সম্প্রতি সিআইএ-র রিপোর্টে প্রকাশিত হয়েছে এই তথ্য। রিপোর্টে আরও বলা হয়েছে, ১৯৮৮ সালের রাজীব গান্ধীর স্টকহোলম সফরের পরেই বন্ধ করা হয় তদন্ত।

আশির দশকের বফর্স কেলেঙ্কারিতে সুইডিশ অস্ত্র প্রস্তুতকারকের বিরুদ্ধে তৎকালীন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী এবং কিছু আধিকারিকে ‘ঘুষ’ দেওয়ার অভিযোগ ওঠে। অভিযোগ ছিল, বফর্স তাদের সংস্থার সমরাস্ত্র এই দেশে বিক্রির জন্য ‘ঘুষ’ দিয়েছিল। ২০০৪ সালে দিল্লির এক আদালত মন্তব্য করে, রাজীব গান্ধীর বিরুদ্ধে ঘুষ নেওয়ার কোনো প্রত্যক্ষ প্রমাণ নেই। 

সিআইএ-র রিপোর্টে বফর্স-এর বিরুদ্ধে অভিযোগের যে তালিকা তৈরি করেছে, তাতে উল্লেখ করা হয়েছে, দেশের বেশ কিছু দালালকে ঘুষ দেওয়া হয়েছে ওই সুইডিশ সংস্থা থেকে। ১৯৮৭ সালে  থেকে বফর্স এবং ভারতের মধ্যে লেনদেন সংক্রান্ত বিষয়ে তদন্ত করা হয়। ১৯৮৭ সালের জুন মাসে শেষ হওয়া অডিটের রিপোর্ট অনুযায়ী প্রায় ৪ কোটি ডলারের ‘কমিশন’ দেওয়া হয়েছে দালালদের।  

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here