আগাম খবর পেলে দানিশ সিদ্দিকিকে নিরাপত্তা দিতাম: তালিবানের মুখপাত্র

0

খবরঅনলাইন ডেস্ক: পুলিৎজার পুরস্কার জয়ী ভারতীয় চিত্রসাংবাদিক দানিশ সিদ্দিকিকে ইচ্ছাকৃত ভাবে খুন করেনি তালিবান। বরং আফগান সেনা ও তালিবানের গুলির লড়াইয়ের মধ্যে পড়ে তাঁর মৃত্যু হয়েছে বলে ফের দাবি করল জঙ্গি সংগঠনটির এক মুখপাত্র।

এনডিটিভিকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তালিবানের মুখপাত্র মহম্মদ সোহেল শাহিন বলে, ‘‘আপনারা এটা কখনওই বলতে পারেন না যে, দানিশকে আমাদের যোদ্ধারা খুন করেছে। আমরা সাংবাদিকদের এক বার না, বার বার করে বলেছি, আপনারা যখন আমাদের ডেরায় আসবেন, তার আগে দয়া করে আমাদের জানাবেন। আমরা আপনাদের নিরাপত্তা দেব।”

মার্কিন রিপোর্টে ছিল চাঞ্চল্যকর তথ্য

দানিশকে হত্যার দায় প্রথম থেকেই অস্বীকার করে আসছে তালিবান। কিন্তু এক মার্কিন পত্রিকায় প্রকাশিত রিপোর্ট থেকে জানা গিয়েছে, দানিশ যে ভারতীয় সেই পরিচয় জানার পরে তাঁকে নির্মম ভাবে হত্যা করেছিল জঙ্গিরা। দানিশের দেহটি যে ভাবে ক্ষত-বিক্ষত অবস্থায় উদ্ধার হয়, তাতে মৃত্যুর পরেও অত্যাচারের স্পষ্ট প্রমাণ মিলেছে বলে দাবি পত্রিকাটির।

তালিবান মুখপাত্র সোহেলের বক্তব্য, “আফগান নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে এসেছিল দানিশ। ফলে গোটা দলের মধ্যে কে সেনা, কে নিরাপত্তারক্ষী, কে সাংবাদিক তা বোঝার কোনও উপায় ছিল না। দানিশ সংঘর্ষের মধ্যে পড়ে মারা যান। তাই কার গুলিতে ওঁর মৃত্যু হয়েছে তা বলা যাবে না।’’

Shyamsundar

দানিশের মৃতদেহ ছিন্নভিন্ন করে দেওয়ার অভিযোগ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘‘আমরা এই অভিযোগ আগেও ২-৩ বার খারিজ করেছি। এটা আমাদের নীতি না। হতে পারে সেনা আমাদের মানহানির জন্য এই রকম অভিযোগ তুলছে। কিন্তু মৃতদেহ বিকৃত করা ইসলামের আইন-বিরোধী।’’

ভারতকে কি তালিবান শত্রু বলে মনে করে

আফগানিস্তানে যে ভাবে নিয়ন্ত্রণ বাড়াচ্ছে তালিবান তাতে মনে হচ্ছে কয়েক মাসের মধ্যেই নির্বাচিত সরকারকে সরিয়ে দিয়ে তালিবানরা ফের একবার আফগানিস্তানের ক্ষমতা দখল করবে। তখন তারা ভারতকে শত্রু হিসেবে দেখবে, না কি বন্ধু হিসেবে, সেই নিয়ে নানা রকম জল্পনা চলছে।

এই প্রসঙ্গে ওই ওই নেতার বক্তব্য, ‘‘আপনাদের সরকারকে প্রশ্ন করুন তারা তালিবানকে শত্রু মনে করে, না বন্ধু। যদি ভারত আমাদের বিরুদ্ধে লড়ার জন্য আফগানিস্তানের মানুষকে বন্দুক-অস্ত্রশস্ত্রের জোগান দেয় তবে তা আমরা শত্রুতা হিসেবেই নেব। আবার যদি ভারত সে দেশের শান্তি, উন্নয়নের জন্য কাজ করে তখন তা অবশ্যই শত্রুতা বলে ধরা হবে না। এই সিদ্ধান্ত ভারতকেই নিতে হবে।”

আরও পড়তে পারেন

পারদের উত্থান ভাঙছে অতীতের সব রেকর্ড, তীব্র তাপপ্রবাহে পুড়ছে ইউরোপের একাধিক দেশ

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন