চেন্নাই: লড়াই শেষ। গুজব আর গুজব ভঙ্গের নাগপাশ কাটিয়ে চলে গেলেন আম্মা। রাত সাড়ে এগারোটা নাগাদ হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন তামিলনাডুর মুখ্যমন্ত্রী জয়ারামন জয়ললিতা। অ্যাপোলো হাসপাতাল থেকে একটি প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে আম্মার মৃত্যুর খবর জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।

জ্বর এবং ডিহাইড্রেশনে আক্রান্ত হয়ে ২২ সেপ্টেম্বর চেন্নাইয়ের অ্যাপোলো হাসপাতালে ভর্তি হন তামিলনাডুর মুখ্যমন্ত্রী। এর পর তার ফুসফুসে সংক্রমণ ধরা পড়ে। কয়েকদিন আগেই হাসপাতাল থেকে জানানো হয়, আম্মার ফুসফুসের সংক্রমণ পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে। তাকে ছেড়ে দেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। কিন্তু রবিবার সন্ধ্যায় হঠাৎ হৃদরোগে আক্রান্ত হন তিনি। দ্রুত তাকে হাসপাতালের সিসিইউ বিভাগে স্থানান্তরিত করা হয়। এক্সট্রাকর্পোরিয়াল মেমব্রেন অক্সিজেনেশনে (ইসিএমও) মাধ্যমে হার্ট চালু রেখে তাঁর চিকিৎসা চলে। পরে তাকে লাইফ সাপোর্ট সিস্টেমও দেওয়া হয়। 

আম্মার শারীরিক অবস্থা নিয়ে গত দু’মাস ধরেই নানা জল্পনা শুরু হয়। ছড়ায় তার মৃত্যুর গুজবও। হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার খবরে সেই জল্পনা নতুন করে শুরু হয়। মুখ্যমন্ত্রীর ভক্তদের ভিড় বাড়তে থাকে অ্যাপোলো হাসপাতাল চত্ত্বরে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের জন্য হাসপাতাল চত্ত্বরে পুলিশ মোতায়েন করা হয়। কোনোরকম অপ্রীতিকর পরিস্থিতির জন্য তৈরি রাখা হয় আধা সেনাকেও।


মুখ্যমন্ত্রীর চিকিৎসার জন্য একটি বিশেষ মেডিক্যাল টিমও গঠিত হয়। এইমস থেকে চিকিৎসকরা আসেন। এছাড়া তাঁর চিকিৎসা করতে আসেন লন্ডনের বিশিষ্ট চিকিৎসক রিচার্ড বিয়েল। সকালে হাসপাতাল থেকে কিছু না জানালেও তার দল এআইএডিএমকের পক্ষ থেকে জানানো হয়, আম্মার অস্ত্রোপচার হয়েছে, চিকিৎসায় সাড়াও দিচ্ছেন। কিন্তু অ্যাপোলো কর্তৃপক্ষ এই ধরনের কোনো অস্ত্রোপচারের কথা অস্বীকার করে এবং জানান মুখ্যমন্ত্রীর অবস্থা আশঙ্কাজনক।

বিকেলে হঠাৎ একটি স্থানীয় টিভি চ্যানেল আম্মার মৃত্যুর খবর ঘোষণা করে। তৈরি হয় উত্তেজনা। হাসপাতাল চত্বর কার্যত রণক্ষেত্রে পরিণত হয়। হাসপাতালের পক্ষ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয় অবস্থা আশঙ্কাজনক হলেও বেঁচে আছেন মুখ্যমন্ত্রী। রাত ১০টা নাগাদ এআইএডিএমকের সদর দফতরে জরুরি বৈঠকে বসেন দলের নেতা এবং বিধায়করা। এর পর হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর উপদেষ্টা শীলা বালাকৃষ্ণন রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করেন। সাড়ে বারোটা নাগাদ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের তরফে আম্মার মৃত্যুর খবর ঘোষণা করা হয়।

পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রী

এআইএডিএমকের প্রবীণ নেতা ও পনীরসালভম তামিলনাডুর পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রী হলেন। দু’মিনিট নীরবতা পালন করে রাতেই তাকে শপথ বাক্য পাঠ করান রাজ্যপাল সি বিদ্যাসাগর রাও। মুখ্যমন্ত্রীর মৃত্যুতে ৬ডিসেম্বর থেকে ৭ দিনের জন্য রাজ্যে শোক পালন করা হবে। 

আম্মার ছবি পকেটে রেখে শপথ নিয়েছেন পনীরসালভম।

শোক প্রকাশ

জয়ললিতার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

তামিলনাডুর মুখ্যমন্ত্রীর প্রয়ানে শোক প্রকাশ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ইংরাজির পাশাপাশি তামিল ভাষাতেও তিনি শোক প্রকাশ করেছেন।

 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here