Congress

নয়াদিল্লি: মাত্র ২৯ বছর বয়সে জাতীয় কংগ্রেসের প্রার্থী হিসাবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে বিহারের কটিহর লোকসভা থেকে প্রথম বার সংসদে যান। ১৯৮০ সালের ওই জয়ের পর ওই একই কেন্দ্র থেকে পুনর্নির্বাচিত হন ১৯৮৪, ১৯৯৬ এবং ১৯৯৮ সালের লোকসভায়। ২০১২ সালে মহারাষ্ট্র থেকে রাজ্যসভার সাংসদ নির্বাচিত হয়ে ইউনাইটেড প্রগ্রেসিভ অ্যালায়েন্সের মন্ত্রিসভায় দায়িত্ব পান কেন্দ্রীয় কৃষি ও খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ প্রতিমন্ত্রীর। কিন্তু মাঝে ঘটে গিয়েছে নানান রাজনৈতিক পটপরিবর্তন। ২৯ বছর বয়সে প্রথমবার সাংসদ হওয়া তারিক আনোয়ার ১৯ বছর আগেই সম্পর্ক ছিন্ন করেছেন জাতীয় কংগ্রেসের সঙ্গে।

রাজনৈতিক মতান্তরের কারণেই তিনি যোগ দিয়েছিলেন শরদ পাওয়ার এবং প্রয়াত পি এ সাঙমা দল এনসিপি-তে। সেখানেও বিচ্ছেদ ঘটেছে গত সেপ্টেম্বরে। দলনেতা শরদ পাওয়ার রাফাল যুদ্ধবিমান চুক্তিতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে ক্লিনচিট দেওয়ার পরই তিনি এনসিপি ছেড়েছেন। এহেন তারিক শনিবার রাহুল গান্ধীর তুঘলক লেনের বাসভবনে এসে ফিরে এলেন কংগ্রেসে।

এ দিন তারিকের প্রত্যাবর্তন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক অশোক গেহলট, আনোয়ারের রাজ্য বিহারের দায়িত্বপ্রাপ্ত কংগ্রেস নেতা শক্তিসিন গোহিল এবং স্বয়ং রাহুল।

উল্লেখ্য, ১৯৯৯ সালে তারিক বিহার প্রদেশ কংগ্রেসের সভাপতি ছিলেন। সে সময় কংগ্রেস সভানেত্রী হিসাবে সোনিয়া গান্ধীর বিরোধিতা করে শরদ এবং সাঙমার সঙ্গে দল ছেড়ে এনসিপি প্রতিষ্ঠা করেন।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here