জয়পুর:  প্রকৃত ধর্মনিরপক্ষতার অনুপস্থিতির জন্য একইসঙ্গে দায়ী করলেন কেন্দ্র এবং রাজ্যকে। জয়পুরের সাহিত্য উৎসবে এসে তসলিমা নাসরিন বলেছেন, “ভোট পেতে মুসলিম মৌলবাদকে ইন্ধন যোগাচ্ছে রাষ্ট্র। ধর্ম নিরপেক্ষ মানুষদের দেশ থেকে তাড়িয়ে এমন লোকজনকে উৎসাহ দেওয়া হচ্ছে যারা গণতন্ত্রে অবিশ্বাসী”। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধেও তাঁর একই অভিযোগ, ধর্ম নিরপেক্ষতা রক্ষায় যথেষ্ট দায়বদ্ধ নন মমতা।  

মুসলিম মেয়েদের অধিকার নিয়ে, তাঁদের প্রতি হয়ে আসা পুরুষতান্ত্রিক সমাজের অত্যাচার নিয়ে এই লেখক সরব হয়েছেন বারবার। বিরোধিতার মুখোমুখিও হয়েছেন প্রতিবার। জয়পুরেও তার অন্যথা হয়নি। তসলিমা নাসরিনের আমন্ত্রিত হওয়াকে সমর্থন করতে পারেননি রাজস্থান মুসলিম ফোরাম, আজমাত এ নামুস এ রসুল-এর মতো সংগঠন। ‘কোরানের বিরুদ্ধে’ লেখা তসলিমাকে মেনে নিতে রাজি নন তাঁরা। 

বিরুদ্ধতার জবাবে ‘নির্বাসিত’ লেখক স্পষ্ট বলেছেন, “যে ধর্ম মেয়েদের ওপর অত্যাচার করে, তার বিরুদ্ধে সোচ্চার হওয়া ছাড়া আমার কোনো উপায় ছিল না। আমি তো মেয়েদের নিয়ে, তাঁদের অধিকার নিয়েই লিখি। মুসলিম সমাজকে সহিষ্ণু হতে হবে, আমার লেখা গ্রহণ করতে হবে ওদের। মেয়েদের অধিকার রক্ষায় এখনই অভিন্ন দেওয়ানি বিধি জারি করা দরকার”। 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here