rakesh asthana cbi
রাকেশ আস্থানার ফাইল ছবি

নয়াদিল্লি: ক্রমশ ঘোঁট পাকাচ্ছে সিবিআই জটে। বুধবার ভোররাতে ডিরেক্টর পদ থেকে সরানো হয়েছিল অলোক বর্মাকে। এ বার রাকেশ আস্থানার বিরুদ্ধে তদন্তকারী আধিকারিকদের কয়েক জনকে বদলি করে দেওয়া হল।

এই তদন্তের নেতৃত্বে ছিলেন সিবিআইয়ের ডেপুটি এসপি একে বস্‌সি। তাঁকে আন্দামানের পোর্ট ব্লেয়ারে পাঠানো হয়েছে। এই বদলির ব্যাপারে একটি বিবৃতিতে সিবিআই জানিয়েছে, “জনস্বার্থে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।” “দ্রুত নিজের নতুন কর্মক্ষেত্রে নিজের দায়িত্ব বুঝে নেওয়ার” নির্দেশও দেওয়া হয়েছে বস্‌সিকে। এই তদন্তকারী দলের বাকি সদস্যদেরও বদলি করে দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন ‘আওয়াজ তুললেই ওরা বলে আমি সমস্যা বাড়াচ্ছি’, নিজের দলের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক বরুণ গান্ধী

উল্লেখ্য, বুধবার রাত দুটো নাগাদ, সিবিআইয়ের ডিরেক্টর অলোক বর্মা এবং তাঁর পরের পদাধিকার আস্থানাকে অপসারণ করে দেওয়া হয়। তাঁদের জায়গায় অস্থায়ী ডিরেক্টর হিসেবে বসানো হয়েছে এম নাগেশ্বর রাওকে। এ দিকে তাঁকে ডিরেক্টর পদ থেকে সরানোর প্রতিবাদে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছেন বর্মা। শুক্রবার তাঁর আবেদনের শুনানি হবে শীর্ষ আদালতে।

ঘুষ কাণ্ডে সিবিআইয়ে শীর্ষ দুই কর্তার পরস্পরের বিবাদ রীতিমতো চরমে ওঠে। সিবিআইয়ের অন্দরে আড়াআড়ি ভাবে তৈরি হয়েছে দুটো শিবির – সিবিআইয়ের প্রাক্তন ডিরেক্টর অলোক বর্মা এবং প্রাক্তন স্পেশ্যাল ডিরেক্টর রাকেশ আস্থানার। আস্থানার বিরুদ্ধে ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ এনে তাঁর বিরুদ্ধে এফআইআর করে সিবিআই। গ্রেফতার করা হয় আরও এক তদন্তকারী অফিসার ডিসিপি দেবেন্দ্র কুমারকে। এর পর দুই কর্তার বিবাদ এতটাই চরমে ওঠে, সোমবার প্রধানমন্ত্রীকে হস্তক্ষেপ করতে হয়। অলোক বর্মা এবং রাকেশ শর্মাকে তলব করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here