উপনির্বাচনে বড়ো জয় উদ্ধব ঠাকরের শিবসেনার, পালাবদলের ইঙ্গিত?

ভোটের ফলাফলে একমাত্র চমক- বাকি ৬ জন প্রার্থীর কেউ-ই নোটার থেকে বেশি ভোট পেলেন না!

0

মুম্বই: প্রথমে মুখ্যমন্ত্রীর কুরসি বদল। তার পরেই শিবসেনার দখলদারি নিয়ে উদ্ধব ঠাকরে ও একনাথ শিন্ডে শিবিরের মধ্যে তুমুল দ্বন্দ্ব। মহারাষ্ট্রের টালামাটাল রাজনৈতিক পরিস্থিতির মধ্যেই উপনির্বাচনে বড়ো উদ্ধব ঠাকরের শিবসেনার!

ছয় রাজ্যের সাতটি বিধানসভার উপনির্বাচনের ভোটগণনা রবিবার। এই আসনগুলির মধ্যে দু’টি বিহারে এবং উত্তরপ্রদেশ, হরিয়ানা, মহারাষ্ট্র, তেলঙ্গনা এবং ওড়িশার একটি করে। এর মধ্যে মহারাষ্ট্রের আন্ধেরি পূর্বে জয়ী শিবসেনা (ইউবিটি) প্রার্থী রতুজা লটকে। বিপুল ব্যবধানে জয়ী হলেন তিনি।

বিজেপির সমর্থনে একনাথ শিন্ডের অভ্যুত্থান বিভক্ত করেছে শিবসেনাকে। তার পর রাজ্যে এই প্রথম কোনো বড়ো নির্বাচন। আর তাতেই শিবসেনা (উদ্ধব বালাসাহেব ঠাকরে) প্রার্থী রুতুজা লটকে মুম্বাইয়ের পূর্ব আন্ধেরির উপনির্বাচনে ৬৬ হাজার ভোটের বিশাল ব্যবধানে জয়ী হলেন।

তবে রতুজার বিরুদ্ধে বিজেপির প্রার্থী প্রত্যাহার করে নেওয়ার ঘটনাও তাঁর জয়ের ব্যবধান বেড়ে যাওয়ার অন্যতম কারণ। এই ভোটে শিন্ডে গোষ্ঠীর উপস্থিতিও ছিল না বললেই চলে। যে কারণে, উদ্ধব শিবিরের অনুগত মরাঠি ভোটারদের বিরুদ্ধে যেতে চায়নি বিজেপি। ফলে বিজেপির প্রার্থী মুরজি প্যাটেল প্রতিদ্বন্দ্বিতা থেকে সরে যাওয়া এবং শিন্ডে শিবিরের অনুপস্থিতিতে এই নির্বাচন কার্যত আনুষ্ঠানিক হয়ে দাঁড়িয়েছিল। কারণ, মোট ছয় প্রার্থীর মধ্যে চারজনই ছিলেন নির্দল। অন্য দিকে, মহা বিকাশ আঘাড়ি জোটের দুই অন্যতম দল কংগ্রেস এবং এনসিপির সমর্থনও ছিল রতুজার দিকেই।

যার স্পষ্ট প্রভাব পড়েছে ইভিএমে। কারণ, বাকি ছয় প্রার্থীর কেউ-ই নোটার থেকে বেশি ভোট পাননি। বলে রাখা ভালো, গত মাসে বিজেপি নিজের প্রার্থী প্রত্যাহার না করা পর্যন্ত, এই উপনির্বাচনকে শিবসেনার বিভাজন-পরবর্তী প্রথম যুদ্ধ এবং বিএমসি (মুম্বই পুরসভা) নির্বাচনের আগে উদ্ধবের শক্তি প্রমাণ করার জন্য একটি ‘লিটমাস টেস্ট’ হিসাবে দেখা হচ্ছিল।

প্রসঙ্গত, মে মাসে রুতুজার স্বামী এবং শিবসেনা বিধায়ক রমেশ লটকে মারা যাওয়ার পর এই আসনটিতে উপনির্বাচন হল। শেষ বিধানসভা ভোটে এই আসনে নির্দল প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন মুরজি, (যিনি এ বার বিজেপির হয়ে মনোনয়ন জমা দিয়েছিলেন), প্রায় ১৫ হাজার ভোটে হেরেছিলেন প্রয়াত রমেশের কাছে। এ বার প্রয়াত বিধায়কের স্ত্রী সেই ব্যবধান চারগুণেরও বেশি বাড়িয়ে নিলেন।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন