তিস্তা শেতালওয়াড়

নয়াদিল্লি: দু’মাসেরও বেশি সময় ধরে হেফাজতে রাখা হয়েছে সমাজকর্মী এবং সাংবাদিক তিস্তা শেতালওয়াড় (Teesta Setalvad)-কে। যা নিয়ে গুরুতর উদ্বেগ প্রকাশ করে, বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্টের প্রশ্ন, কী ভাবে ছয় সপ্তাহ পরে উত্তর চেয়ে নোটিশ জারি করেছে গুজরাত হাইকোর্ট।

প্রধান বিচারপতি ইউইউ ললিতের নেতৃত্বে একটি বেঞ্চের পর্যবেক্ষণ, “এই মামলায় এমন কোনো অপরাধ নেই, যার জন্য জামিন দেওয়া যাবে না”, তাও একজন মহিলার জন্য। বিচাপতিরা বলেন, দু’মাসেরও বেশি সময় ধরে গুজরাতের জেলে রয়েছেন তিস্তা শেতালওয়াড়। এখনও কোনো চার্জশিট দাখিল করা হয়নি।

আবেদনকারীর বিরুদ্ধে দায়ের করা এফআইআর সুপ্রিম কোর্টের পর্যবেক্ষণের বাইরে বেশি কিছু নয় বলে উল্লেখ করে বেঞ্চ। বিচারপতিরা বলেন, তিস্তার জামিনের আবেদনের উপর নোটিশ জারি করার সময়, ৩ আগস্ট একটি দীর্ঘ স্থগিত মঞ্জুর করেছে গুজরাত হাইকোর্ট।

তিস্তাকে জেলে আটকে রাখা সম্পর্কিত বেশ কয়েকটি প্রশ্ন উত্থাপন করেন বেঞ্চের আরও দুই সদস্য বিচারপতি এস রবীন্দ্র ভাট এবং বিচারপতি সুধাংশু ধুলিয়া।

প্রধান বিচারপতি বলেন, “তিনি একজন মহিলা। হাইকোর্ট কী ভাবে ছয় সপ্তাহ পর নোটিশ জারি করল? এটা কি গুজরাত হাইকোর্টের আদর্শ প্রথা? আমাদের উদাহরণ দিন যেখানে একজন মহিলা এই ধরনের মামলায় জড়িত এবং হাইকোর্ট এ ধরনের পদক্ষেপ নিয়েছে”।

এ দিনের শুনানি মুলতবি চান কেন্দ্রের সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা। তিনি বলেন, “এই সমস্ত যুক্তি হাইকোর্টে দেখানো উচিত, সুপ্রিম কোর্টে নয়। এটাই আমার প্রাথমিক আপত্তি”। তিস্তার পক্ষে সিনিয়র আইনজীবী কপিল সিবল বলেন, “আমি এফআইআর-কে চ্যালেঞ্জ করছি। এখানে এফআইআর হতে পারে না। এফআইআর-এ কখনোই প্রমাণ হয় না যে, আমি কী নথি জাল করেছি।”

উল্লেখ্য, গুজরাত দাঙ্গার পর, জাল নথি এবং হলফনামা তৈরি করে চাঞ্চল্যকর পরিস্থিতি তৈরির অভিযোগে গ্রেফতার হয়েছেন তিস্তা। গুজরাত দাঙ্গার মামলায় বিশেষ তদন্তকারী দল (SIT)-এর তদন্তকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে নিহত প্রাক্তন কংগ্রেস সাংসদ এহসান জাফরির স্ত্রী জাকিয়া জাফরির দায়ের করা আবেদনটি সুপ্রিম কোর্ট খারিজ হওয়ার পর পরই মামলাটি নথিভুক্ত করা হয়েছিল। ২৫ জুন তিস্তাকে গ্রেফতার করা হয়।

এই সংক্রান্ত বিস্তারিত প্রতিবেদন পড়ুন এখানে: ২০০২ হিংসা মামলা: এক প্রবীণ নেতার সঙ্গে হাত মিলিয়ে ষড়যন্ত্র করেছিলেন তিস্তা শেতালওয়াড়, সুপ্রিম কোর্টে বলল গুজরাত সরকার

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন