তিস্তা শেতালওয়াড়

নয়াদিল্লি: সোমবার (২২ আগস্ট) সমাজকর্মী এবং সাংবাদিক তিস্তা শেতালওয়াড়ের (Teesta Setalvad) জামিন আবেদনের শুনানি করবে সুপ্রিম কোর্ট। গুজরাত হাইকোর্ট তাঁর অন্তর্বর্তী জামিনের আবেদন খারিজের পর সর্বোচ্চ আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন তিস্তা। আদালত সূত্রে খবর, বিচারপতি উদয় উমেশ ললিতের নেতৃত্বে সুপ্রিম কোর্টের একটি বেঞ্চ ওই আবেদনের শুনানি করবে।

কেন তিস্তাকে গ্রেফতার

গুজরাত দাঙ্গার পর, জাল নথি এবং হলফনামা তৈরি করে চাঞ্চল্যকর পরিস্থিতি তৈরির অভিযোগে গ্রেফতার হয়েছেন তিস্তা। গুজরাত অ্যান্টি-টেরোরিজম স্কোয়াড (ATS) তাঁর বিরুদ্ধে যে হলফনামা পেশ করেছিল, তাতে দাবি করা হয়, তিস্তা এবং তাঁর সহযোগীরা মানবতাকে পাথেয় কাজ করছেন না। তাঁরা রাজনৈতিক উদ্দেশ্য নিয়ে কাজ করছিলেন। তাঁদের দু’টি উদ্দেশ্য ছিল। প্রথমত, গুজরাতের তৎকালীন সরকারকে অস্থিতিশীল করে তোলা। এবং দ্বিতীয়ত, প্রধানমন্ত্রী-সহ আরও কিছু নিরপরাধ ব্যক্তির নাম জড়িয়ে তাঁদের অপমান করা।

ঘটনাক্রমে, গুজরাত দাঙ্গার মামলায় বিশেষ তদন্তকারী দল (SIT)-এর তদন্তকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে নিহত প্রাক্তন কংগ্রেস সাংসদ এহসান জাফরির স্ত্রী জাকিয়া জাফরির দায়ের করা আবেদনটি সুপ্রিম কোর্ট খারিজ হওয়ার পর পরই মামলাটি নথিভুক্ত করা হয়েছিল।

উল্লেখ্য, তিস্তার বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৪৬৮ (প্রতারণার উদ্দেশ্যে জালিয়াতি), ৪৭১ (জাল নথি বা ইলেকট্রনিক রেকর্ডকে আসল হিসাবে ব্যবহার করা), ২১৮ (অর্থের বিনিময়ে মিথ্যা প্রমাণ দেওয়া), ২১১ (বদনাম করার জন্য মিথ্যা অভিযোগ), ২১৮ (কাউকে শাস্তি বা সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা থেকে বাঁচানোর উদ্দেশ্য নিয়ে ভুল রেকর্ড তৈরি করা) এবং ১২০বি (অপরাধমূলক ষড়যন্ত্রের শাস্তি) ধারার অধীনে মামলা দায়ের করা হয়।

কী ভাবে তিস্তাকে গ্রেফতার

গত ২৪ জুন, গুজরাত দাঙ্গা নিয়ে সিট-এর রিপোর্টের বিরুদ্ধে দায়ের করা পিটিশন খারিজ করে দিয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi)-র অব্যাহতিকে চ্যালেঞ্জ করা হয়েছিল ওই আবেদনে। দাঙ্গায় নিহত কংগ্রেস সাংসদ এহসান জাফরির স্ত্রী জাকিয়া জাফরি ​​ওই আবেদন করেন। সহ-আবেদনকারী হিসেবে ছিলেন তিস্তা। আবেদনটি খারিজ করার সময় সুপ্রিম কোর্ট জানায়, তিস্তা সম্পর্কে আরও তদন্তের প্রয়োজন রয়েছে, কারণ তিস্তা গোপনে এই মামলায় জাকিয়া জাফরির অনুভূতিকে তাঁর নিজের স্বার্থে ব্যবহার করেছিলেন।

২৫ জুন তিস্তাকে গ্রেফতার করা হয়। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশের পরের দিন সকালে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ (Amit Shah) একটি সাক্ষাৎকারে অভিযোগ করেন,২০২২ সালের গুজরাত দাঙ্গা সম্পর্কিত “ভিত্তিহীন” তথ্য ছড়িয়েছিল তিস্তার স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। কয়েক ঘণ্টার মধ্যে তাঁকে আটক করা হয় এবং পরে গ্রেফতারও করা হয়েছিল।

গ্রেফতারের পর দিন তিস্তাকে নিয়ে অমদাবাদে পৌঁছয় গুজরাত এটিএস। ষড়যন্ত্র করে, ভুয়ো নথি এবং তথ্য দিয়ে গুজরাত হিংসা মামলাকে প্রভাবিত করার অভিযোগে আদালতে পেশ করা হয় তাঁকে। সেই মামলার তদন্তেই হলফনামা পেশ করেছিল পুলিশ।

আরও পড়তে পারেন:

সিবিআই-কে সেটিংয়ের বিস্ফোরক দাবি দিলীপের, শুভেন্দুকে গ্রেফতার করার কৌশলী বিবৃতি, কটাক্ষ কুণালের

দলিত যুবককে চপ্পল দিয়ে পেটাচ্ছেন গ্রামপ্রধান, ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর পুলিশি পদক্ষেপ

বিলকিস বানো মামলা: সোমবার ‘আলোচনা’য় বসবে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন

কোন ব্যাঙ্কে ফিক্সড ডিপোজিটে সুদের হার সবচেয়ে বেশি, জানুন বিস্তারিত

পরিচয় এবং মতামতের পার্থক্যকে সম্মান করা হয় তেমন গণতন্ত্র চাই, আর্জি প্রধান বিচারপতির

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন