নয়াদিল্লি: বড়ো ধাক্কা খেল দিল্লি পুলিশ। ২০০৫ সালে দিল্লিতে হওয়া ধারাবাহিক বিস্ফোরণ কাণ্ডে ৩ অভিযুক্তের মধ্যে ২ জনকে নির্দোষ সাব্যস্ত করল দিল্লির একটি আদালত। তৃতীয় জন, তারিক আহমেদ দারের বিরুদ্ধে অনেকগুলি অভিযোগ থাকলেও, কেবলমাত্র সন্ত্রাসে তহবিল যোগানোর অপরাধে তাঁকে ১০ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। তারিকের ইতিমধ্যেই ১২ বছর জেল খাটা হয়ে গেছে। ফলে কার্যত মুক্তি পেলেন তারিক। ওই অপরাধে সর্বোচ্চ ১০ বছরই জেল হতে পারে। 

২০০৫ সালের ২৯ অক্টোবর দিল্লির সরোজিনি নগর, কালকাজি ও পাহারগঞ্জে ধারাবাহিক বিস্ফোরণে ৬৭ জনের মৃত্যু হয়েছিল। আহত হয়েছিল প্রায় ২০০ জন। ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে গ্রেফতার হন তারিক আহমেদ দার, মহম্মদ রফিক শাহ এবং মহম্মদ হুসেইন ফজিলি। ৩ জনই লস্কর জঙ্গি বলে দাবি করে পুলিশ। তারিককে বিস্ফোরণের মূল চক্রী হিসেবে চিহ্নিত করে পুলিশ। তার বিরুদ্ধে অনেকগুলি ধারায় মামলা আনা হয়। কিন্তু তহবিল যোগানো ছাড়া অন্য সব মামলাই খারিজ করেছে আদালত। 

 

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন