sexual assault

ওয়েবডেস্ক: শুধু দেশ নয়, দেশের গণ্ডি ছাড়িয়ে বিশ্বের মানুষ ঐক্যবদ্ধ হচ্ছে #মিটু ক্যাম্পেনের ছত্র ছায়ায়। প্রায় প্রতিদিনই খবরের কাগজের পাতা ভরছে কোনো না কোনো নির্যাতিতের যন্ত্রণার কাহিনিতে। বিশেষ করে আজকাল উঠে আসছে শিশু বা নাবালকের উপর যৌন হামলার ঘটনা।

এই অবস্থায় সদ্য প্রকাশিত একটি ভয়ঙ্কর তথ্য সামনে এসেছে। যা খুবই উদ্বেগের। তা হল নির্যাতিতদের ৬০ শতাংশই হল শিশু বা নাবালক। পুনের একটি কেয়ার সেন্টারের প্রায় ৯০০ ঘটনা বিশ্লেষণ করে এমনই তথ্য সামনে এসেছে। বি জে মেডিক্যাল কলেজ ও সেশন জেনারেল হসপিটালের ফিরেন্সিক মেডিসিন ও  টকসিকোলজি বিভাগের অধিকারিকরা এই গবেষণা করেছেন। তাতে সেশন জেনারেল হাসপাতালের মোট ৮৯০টি যৌন হেনস্থার ঘটনা বিশ্লেষণ করা হয়েছে। তার মধ্যে ৫৩৪ ঘটনায় আক্রান্ত হয়েছে শিশু বা নাবালকরা। ঘটনাগুলি ২০১৫ সালের নভেম্বর থেকে ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বর মাসের মধ্যে ঘটেছে।

কোন বয়সের উপর অত্যাচার সব থেকে বেশি হয়েছে?

মোট ৬০.২৩% হল এই শিশু-নাবালক। এদের বয়সসীমা ১৫ থেকে ১৮ বছরের মধ্যেই বেশি। তা ছাড়া আক্রান্তদের মোট মধ্যে ৯২.৮৮%-ই হল মেয়ে। বাকি ৭.১২%  ছেলে। বলাইবাহুল্য, ৮৯০টির মধ্যে ৫০৩ অর্থাৎ ৯৪.১৯%-ই অবিবাহিত।

অত্যাচারী কারা?

জানলে আরও আশ্চর্য হতে হয়, ৯৩.৬৩%-এর উপর অত্যাচার করেছে তাদের পরিচিত জনেরাই। ৩৯.৫১%-র উপর অত্যাচার করেছে তাদের প্রেমিক।

আরও পড়ুন : আইনকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে লিঙ্কডইন-এ বাড়ছে যৌন পরিষেবার প্রোফাইল, বিপাকে সংস্থা

কোথায় যৌন অত্যাচার বেশি সংঘটিত হয়েছে?

ভাড়ায় ঘর নিয়ে অত্যাচার করা হয়েছে ২৬.৪০% মেয়েকে। ২১.৭২% ঘটনা ঘটেছে আততায়ীর বাড়িতে। ২০.৯৭% ঘটনা ঘটেছে নির্যাতিতের নিজের বাড়িতে।

কোন বয়সের মানুষের মধ্যে এই অপরাধ বেশি?

গবেষণা বলছে, ৬১.৮০% যৌন হামলাকারীর বয়স ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে।  ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে রয়েছে ১৭.৮০% হামলাকারীর বয়স। এদের মধ্যে ৩৪%-এর বয়স শুধু ১৬-১৮ বছরের মধ্যে।

যৌন অত্যাচারকারীর বয়স সব থেকে বেশি আর কম কত পাওয়া গিয়েছে?

গবেষকরা দেখেছেন সব থেকে কম বয়সি অপরাধীর বয়স ১১ বছর। সব থেকে বেশি বয়স হল ৫৫ বছর।

কোন সময়ে যৌন অত্যাচার বেশি হয়েছে?

৫০.৭৫% ঘটনাই ঘটেছে  দুপুরের দিকে। ২৮.৬৫%-ই গ্রীষ্মকালে। মে থেকে জুলাই মাসের মধ্যে। তার পর রয়েছে বসন্ত কাল। ফেব্রুয়ারি থেকে এপ্রিল মাসের মধ্যে ২৭.১৫%।

নির্যাতিতরা কী ধরনের আঘাত পেয়েছে?

৭৫.০৯%-ই যৌনাঙ্গে আঘাত লেগেছে। ৮৪.৭৮%-এর শরীরের বিভিন্ন অংশ ঘষে গিয়ে কেটে-ছড়ে গিয়েছে। ৫০%-এর শরীরে কালসিটে পড়েছে। ৮.৭০%-এর বিভিন্ন অংশ কেটে গিয়েছে।

কী ধরনের মামলা দায়ের হয়েছে?

৬৮.৫৪% ক্ষেত্রে বিদ্বেষপূর্ণ সাংঘাতিক যৌন নির্যাতনের, ১১.৪২% ক্ষেত্রে  সাংঘাতিক যৌন নির্যাতনের মামলা দায়ের হয়েছে।

কোন শ্রেণির ওপর যৌন হামলার পরিমাণ বেশি?

মধ্যবিত্তের ওপর যৌন নির্যাতন বেশি। পরিমাণটা ৫২.০৬%। নির্যাতিতদের ৭৭.৩৪%-ই থাকে অভিভাবকের সঙ্গে। ৯.৭৪% থাকে অনাথালয়ে।

কোন এলাকায় এর পরিমাণ বেশি?

শহরাঞ্চলে এর পরিমাণ বেশি ৬২.৭৪%, গ্রমাঞ্চলে ৩৭.২৬%।

গবেষকরা বলেছেন, এত বিস্তারিতভাবে গবেষণা করার উদ্দেশ্য হল প্রবণতা বুঝে সেই সব ক্ষেত্রগুলোতে সাবধাণতা, সতর্কতা আর সুরক্ষা বাড়ানো। যাতে এই ধরনের অপরাধের পরিমাণ কমানো যায়।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here