Connect with us

দেশ

চন্দ্রশেখরণের নিয়োগ বেআইনি, বললেন মিস্ত্রি

নয়াদিল্লি : টাটা সন্সের চেয়ারম্যান হিসাবে নটরাজন চন্দ্রশেখরণের নিয়োগের বিরোধিতা করলেন সংস্থার প্রাক্তন চেয়ারম্যান সাইরাস মিস্ত্রি। এ ব্যাপারে আপত্তি জানিয়ে টাটা গোষ্ঠীর বোর্ডে চিঠি দিয়েছেন তিনি। সূত্রের খবর, বিষয়টি নিয়ে আইনি পদক্ষেপও করতে পারেন সাইরাস মিস্ত্রি।

বোর্ডের কাছে লেখা চিঠিতে এন চন্দ্রশেখরণের নিয়োগকে ‘বেআইনি’ বলে উল্লেখ করেছেন মিস্ত্রি। নিয়োগের বিষয়টিকে বিচারাধীন বলেও জানিয়েছেন তিনি।

বুধবার নটরাজন চন্দ্রশেখরণকে অ্যাডিশনাল ডিরেক্টর আর চেয়ারম্যন পদে নিয়োগ করেন বোর্ড ডিরেক্টররা।

চেয়ারম্যানের পদ থেকে মিস্ত্রিকে সরিয়ে দেওয়া হলেও, তিনি এখনও টাটা সন্সের এক জন ডিরেক্টর।

চন্দ্রশেখরণকে চেয়ারম্যান পদে নিয়োগ করার দিন মিস্ত্রি বোর্ডের বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন না।  

প্রসঙ্গত, এর আগেই তাঁকে আইনবিরুদ্ধ ভাবে পদ থেকে সরিয়ে দেওয়ার অভিযোগ জানিয়েছেন তিনি। এ বিষয়ে ন্যাশনাল কোম্পানি ল ট্রাইবুনালে অবমাননার মামলা দায়ের করেছেন তিনি। মামলা করেছেন টাটা সন্স আর রতন টাটার বিরুদ্ধে।

অন্য দিকে ‘সাইরাস’কে কোম্পানির ডিরেক্টরের পদ থেকে সরানোর জন্য ৬ ফেব্রুয়ারি শেয়ারহোল্ডারদের একটি বৈঠক ডেকেছে টাটা সন্স।

দেশ

দিল্লি, মুম্বই-সহ ছয় শহর থেকে কলকাতাগামী সব উড়ান আপাতত বন্ধ

কলকাতা: পশ্চিমবঙ্গ সরকারের অনুরোধ মেনে নিল কেন্দ্র। দিল্লি, মুম্বই-সহ ছয় শহর থেকে কোনো উড়ান আগামী ১৪ দিন কলকাতায় আসবে না।

শনিবার কলকাতা বিমানবন্দর (Kolkata Airport) কর্তৃপক্ষের তরফে টুইট করে জানানো হয়, দিল্লি, মুম্বই, পুনে, নাগপুর, চেন্নাই ও অমদাবাদ থেকে ৬ থেকে ১৯ জুলাই পর্যন্ত কোনো উড়ান কলকাতার উদ্দেশে রওনা দেবে না। আগামী সোমবার থেকেই পরিষেবা বন্ধ রাখা হবে।

গত কয়েক দিন ধরেই করোনার সংক্রমণ বাড়ছে কলকাতায়। উল্লেখযোগ্য ভাবে সংক্রমণ বেশি হচ্ছে শহরের বহুতলগুলিতে। এর পরিপ্রেক্ষিতেই রাজ্য সরকার মনে করছিল, যে দেশের যে সব শহরে করোনার সংক্রমণ সব থেকে বেশি, সেখান থেকে মানুষ করোনায় সংক্রমিত হয়ে কলকাতায় আসছেন।

করোনা যাতে ছড়িয়ে না পড়ে, সে কারণে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের তরফে কেন্দ্রের কাছে এই সব শহর থেকে কলকাতায় আসার বিমান বন্ধ করার আবেদন করা হয়। সেই আবেদনই মেনে নিয়েছে কেন্দ্র।

তবে কেন্দ্রের কাছে রাজ্যের আবেদন ছিল উল্লেখিত শহরগুলির পাশাপাশি সুরাত আর ইনদওর থেকেও কলকাতাগামী বিমান বন্ধ রাখা হোক। যদিও সেই আবেদন কেন্দ্র মানেনি।

তবে বিশেষজ্ঞ মহল মনে করেন, বেঙ্গালুরু ও হায়দরাবাদে যে ভাবে করোনা সংক্রমণ বাড়ছে, তাতে ওই দুই শহর থেকেও কলকাতার উড়ান আপাতত বন্ধ করে দেওয়া উচিত।

Continue Reading

দেশ

করোনায় মৃত্যু ছেলের, আত্মহত্যার পথ বেছে নিলেন দম্পতি!

কোয়রান্টিন সেন্টারে প্রথম সারির কর্মী ছিলেন ২৭ বছরের যুবক। সম্ভবত সেখান থেকেই সংক্রামিত।

ওয়েবডেস্ক: ২৭ বছরের ছেলে একটি করোনাভাইরাস (Coronavirus) কোয়রান্টিন সেন্টারে প্রথম সারির কর্মী ছিলেন। ধারণা করা হচ্ছে, সম্ভবত সেখান থেকেই করোনা সংক্রামিত হয়ে তাঁর মৃত্যু হয়। এর পর ছেলে হারানোর কষ্ট সহ্য করতে না পেরে আত্মহত্যা করলেন বৃদ্ধ বাবা-মা।

ঘটনাটি ওড়িশার গঞ্জাম (Ganjam, Odisha) জেলার। আত্মহত্যাকারী দম্পতির নাম রাজকিশোর সতপথী এবং তাঁর স্ত্রী সুলোচনা। গঞ্জাম জেলার কবিসূর্যনগর থানার অন্তর্গত নারায়ণপুর সাসন গ্রামের বাসিন্দা তাঁরা।

ঘটনায় প্রকাশ, তাঁদের ছেলে সীমাঞ্চল স্থানীয় এ পঙ্কলাবাড়ি গ্রামের একটি স্কুলে পড়াশোনা করেন। গত মে মাস থেকে কোয়রান্টিন সেন্টারে প্রথমসারির কর্মী হিসাবে কাজ করছিলেন। সেখানেই সংক্রামিত হন।

তাঁর জ্বর দেখা দেওয়ার পর স্থানীয় হাসপাতালে ভরতি করা হয়। কিন্তু শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে শুরু করলে একটি বেসরকারি হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয় গত ১ জুলাই। ওই দিনই তাঁর নমুনা পরীক্ষায় কোভিড-১৯ (Covid-19) পজিটিভ রিপোর্ট ধরা পড়ে।

পর দিন সকালেই মৃত্যু হয় সীমাঞ্চলের। ছেলের এই আকস্মিক মৃত্যুর আঘাত সহ্য করতে পারেননি দম্পতি। গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেন দম্পতি।

পুলিশ এসে বাড়ির কাছে একটি গাছ থেকে রাজকিশোরের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করে। নিজের ঘরের ভিতরেই পাওয়া যায় তাঁর স্ত্রীর ঝুলন্ত দেহ। পুলিশ দেহ দু’টি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠায়।

প্রসঙ্গত, করোনাভাইরাস লকডাউনের জেরে সংকটে পড়ে একাধিক আত্মহত্যার ঘটনা দেখা গিয়েছে দেশে। এমনকী, করোনা নুমনা পরীক্ষার রিপোর্ট আসার আগেই হাসপাতালের আট তলার ব্যালকনি থেকে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেন দিল্লির এক যুবক। কিন্তু ছেলেকে করোনায় হারিয়ে এই প্রথম কোনো দম্পতি একই সঙ্গে আত্মহত্যার পথ বেছে নিলেন!

Continue Reading

দেশ

৩ লক্ষ টাকায় সোনার মাস্ক, করোনা থেকে মুক্তি মিলবে কি না জানেন না

খবরঅনলাইন ডেস্ক: মানুষের আচরণ বড়ো বিচিত্র। এক দিকে যখন লকডাউনের (Lockdown) কারণে অসংখ্য মানুষ কাজ হারিয়েছেন, তখনই ৩ লক্ষ টাকার সোনার মাস্ক পরে ঘুরে বেড়াচ্ছেন এক ব্যক্তি। গোটা দেশে যাই ঘটে যাক, তাঁর যেন কোনো হেলদোল নেই।

৫ ভরি সোনা দিয়ে বানানো এই মাস্ক। যার দাম ২ লক্ষ ৮৯ হাজার টাকা! সোনার মাস্ক পরে পুনের পিম্পরিতে এই কাণ্ড ঘটিয়েছেন শঙ্কর কুরাদে নামে এক ব্যক্তি। তিনি এই মাস্ক পরে ঘুরে বেড়ান।

তাঁর গলায় আর হাতে রয়েছে সোনার গয়না। সোনার এই মাস্কে বেশ কিছু ছিদ্র রয়েছে যার ফলে তাঁর নিঃশ্বাসের কোনো অসুবিধা হয় না। যদিও এটা করোনাভাইরাসের (Coronavirus) বিরুদ্ধে কতটা কার্যকর, তা নিয়ে নিশ্চিন্ত নন কুরাদে।

তবে তাঁর এই কাজ দেখে অবাক সবাই। দেশ এখন বড়ো সঙ্কটের মুখে দাঁড়িয়ে। তখন এই ব্যক্তির কাজকর্ম নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন সাধারণ মানুষ।

Continue Reading
Advertisement
দেশ21 mins ago

দিল্লি, মুম্বই-সহ ছয় শহর থেকে কলকাতাগামী সব উড়ান আপাতত বন্ধ

দেশ1 hour ago

করোনায় মৃত্যু ছেলের, আত্মহত্যার পথ বেছে নিলেন দম্পতি!

বিদেশ2 hours ago

আমেরিকার টাইমস স্কোয়ারে “ভারত মাতা কি জয়”, চিনা পণ্য বর্জনের দাবিতে হুঙ্কার

Income Tax
শিল্প-বাণিজ্য2 hours ago

আয়কর দাখিলের সময়সীমা বাড়ল

কলকাতার পুজো3 hours ago

চোরবাগান চট্টোপাধ্যায় পরিবারের দুর্গাপূজায় ভোগ রান্না করেন বাড়ির পুরুষ সদস্যরা

বিনোদন3 hours ago

ময়দান: সৈয়দ আবদুল রহিমের বায়োপিক মুক্তির নতুন দিন জানালেন অজয় দেবগন

রাজ্য4 hours ago

সারা দেশের তুলনায় পশ্চিমবঙ্গে বেকার সমস্যা অনেক কম: মুখ্যমন্ত্রী

কলকাতা5 hours ago

কলকাতায় অতিসংক্রমিত ১৬টি অঞ্চলকে পুরোপুরি সিল করে দেওয়ার প্রস্তুতি

দেশ7 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ২২,৭৭১, সুস্থ ১৪,৩৩৫

ক্রিকেট3 days ago

আইসিসির চেয়ারম্যানের পদ থেকে সরে দাঁড়ালেন শশাঙ্ক মনোহর, এ বার কি সৌরভ?

ক্রিকেট3 days ago

২০১১ বিশ্বকাপ কাণ্ড: ফাইনালে খেলা ক্রিকেটারকে জিজ্ঞাসাবাদ শ্রীলঙ্কা পুলিশের

দেশ1 day ago

দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যায় নতুন রেকর্ড, সুস্থতাতেও রেকর্ড

ক্রিকেট2 days ago

চলে গেলেন ‘থ্রি ডব্লু’-এর শেষ জন স্যার এভার্টন উইকস, শেষ হল একটা অধ্যায়

শিল্প-বাণিজ্য3 days ago

পিপিএফ, এনএসসি-সহ অন্যান্য ক্ষুদ্র সঞ্চয় প্রকল্পে সুদের হার অপরিবর্তিত

ক্রিকেট2 days ago

২০১১ বিশ্বকাপ কাণ্ড: জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করা হল কুমার সঙ্গকারা, মাহেলা জয়বর্ধনকে

SBI ATM
শিল্প-বাণিজ্য2 days ago

এসবিআই এটিএমে টাকা তোলার নিয়ম বদলে গেল

নজরে