O.P. Rawat

কলকাতা:  শনিবার কলকাতায় এসে আগামী লোকসভা নির্বাচনের এক গুচ্ছ নিয়মাবলির কথা তুলে ধরলেন মুখ্য নির্বাচন কমিশনার ওমপ্রকাশ রাওয়াত। তিনি আগামী লোকসভা ভোটে চালু হওয়া এক গুচ্ছ নতুন নিয়মের কথা ব্যক্ত করেন সাংবাদিকদের সামনে।

জানা গিয়েছে, দীর্ঘ দিন নির্বাচনে অংশ নেয়নি এমন রাজনৈতিক দলগুলির রেজিস্ট্রেশন বাতিল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিশন। অন্য দিকে নির্বাচনের সময় যাতে সরাসরি ভোটাররা কমিশনের কাছে অভিযোগ জানাতে পারেন, সে দিকে লক্ষ্য রেখে কমিশনের নিজস্ব অ্যাপস নিয়ে আসা হচ্ছে। এ ছাড়া ভোটগ্রহণের ক্ষেত্রে ইভিএমের পরিবর্তে যে পুরনো পদ্ধতি মতো ব্যালট পেপারের দাবি তোলা হয়েছিল, তাতেও গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে না বলে জানান রাওয়াত। পাশাপাশি তিনি জানান, ভোট এগিয়ে নিয়ে আসার তেমন কোনো চিন্তাভাবনা নেই কমিশনের।

নির্বাচন কমিশনের তরফে ইতিমধ্যেই পশ্চিমবঙ্গের জেলাগুলিতে সর্বোচ্চ আধিকারিকদের কাছে নির্দেশিকা পাঠানো হয়েছে। যার মূল বিষয় দু’টি। প্রথমত, পঞ্চায়েত ভোটের জন্য আটকে থাকা উন্নয়নমূলক কাজগুলির দ্রুত বাস্তবায়ন। এবং দ্বিতীয়ত, লোকসভা নির্বাচনের জন্য প্রয়োজনীয় সাড়ে চার লক্ষ ভোটকর্মীর সংস্থান।

উন্নয়নমূলক কাজের বাস্তবায়ন নিয়ে ইতিমধ্যেই জেলাশাসকরা সর্বদলীয় বৈঠক করেছেন। তবে পঞ্চায়েত ভোটে মাত্র সাড়ে তিন লক্ষ ভোটকর্মী জোগাড়ে নাস্তানাবুদ প্রশাসন কী ভাবে সাড়ে চার লক্ষ কর্মী জোগাড় করতে সক্ষম হবেন, তা নিয়েই ঘোর সংশয়। যদিও কমিশনের নির্দেশ পাওয়ার পর জেলাশাসকরা সংশ্লিষ্ট সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিকের কাছে সেই নির্দেশ পাঠিয়ে দিয়েছেন। সেখান থেকেই বিভিন্ন সরকারি দফতর ও প্রতিষ্ঠানের কাছে ভোটকর্মী চেয়ে আবেদন পাঠানো হয়েছে।

একই সঙ্গে নির্বাচন কমিশন জানিয়েছে, আগামী ১১ জুন থেকে ভোটার তালিকা সংশোধনের কাজ শুরু করার নির্দেশ দিয়েছে। এ বিষয়ে একটি প্রোফর্মাও সরবরাহ করা হয়েছে। তবে এ ব্যাপারে কর্মী সংগ্রহ ও পদ্ধতিগত বিষয় নিয়ে আলোচনার জন্য কমিশনের তরফে বৈঠক ডাকার কথাও জানা গিয়েছে। ভোটের কাজে যুক্ত এক কর্মীর কথায়, অন্যান্য বার সাধারণত সেপ্টেম্বর-অক্টোবর মাসে তালিকা সংশোধনের কাজ শুরু হয়।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here