গুড়গাঁও : নিজের বলা কথাই ফিরিয়ে নিল প্রদ্যুমন হত্যা মামলার অভিযুক্ত একাদশ শ্রেণির ওই ছাত্র। সোমবার তার বাবা দাবি করেছিল, সিবিআই চাপ দিয়ে তার ছেলেকে দিয়ে দোষ কবুল করিয়েছে। সেই কথাই মঙ্গলবার শোনা গেল অভিযুক্ত ওই ছাত্রের মুখে। এর আগে সিবিআই-এর জেরার মুখে সে বলেছিল, নিজে হাতে খুন করেছে সাত বছরের প্রদ্যুমন ঠাকুরকে। রায়ান স্কুলের ওয়াশরুমে ছুরি দিয়ে গলা কেটে খুন করেছে সে। স্কুলের পরীক্ষা আর শিক্ষক-অভিভাবক মিটিং পিছিয়ে দেওয়ার জন্যই এই কাজ করেছিল সে। কিন্তু জুভেনাইল জাস্টিস বোর্ডের সামনে ১৮০ ডিগ্রি ঘুরে গেল তার বক্তব্য। সে বলেছে, চাপ দিয়ে তাকে এ কথা বলতে বাধ্য করেছে সিবিআই। তাকে বেধড়ক মেরেছে সিবিআই। তার পর তাঁদের নিজের মতো করে বলিয়ে নিয়েছে।

ইতিমধ্যে সিবিআই স্পেশাল ইনভেস্টিগেটিং টিমের (এসআইটি) সদস্যদের ডেকে পাঠিয়েছে। প্রমাণ নষ্ট করা আর অপরাধের ওপর ধামা চাপা দেওয়ার ব্যাপারে জিজ্ঞাসাবাদ করতেই ডেকে পাঠানো হয়েছে তাঁদের।

দিন কয়েক আগে সিবিআই তদন্তের স্বার্থে অভিযুক্ত এই ছাত্রকে রায়ান ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের ওই ঘটনাস্থলে নিয়ে গিয়েছিল। অপরাধের দৃশ্যটা পুনরায় তৈরি করার জন্য।

শনিবার জুভেনাইল কোর্ট অভিযুক্ত ছাত্রকে ফরিদাবাদের পর্যবেক্ষণালয়ে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছিল। মামলার পরবর্তী শুনানি ২২ নভেম্বর।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here