‘সোনার মানুষ’ খুন পুনেতে

0

খবর অনলাইন: সম্পূর্ণ সোনা দিয়ে তৈরি বিশ্বের সব চেয়ে দামি শার্টটি কিনে যিনি পাদপ্রদীপের আলোয় এসেছিলেন, সেই দত্তা ফুগেকে খুন করা হয়েছে বলে অভিযোগ করা হয়েছে। তাঁকে খুনের অভিযোগে চার জনকে আটক করা হয়েছে। পুলিশের অনুমান, টাকা নিয়ে বিরোধের জেরেই তাঁকে খুন করা হয়েছে।  

৪৮ বছর বয়সি দত্তা ফুগের পেশা ছিল সুদে টাকা খাটানো। তিনি পশ্চিম পুনেতে থাকতেন। ২০১৩ সালে তিনি ৩ কেজিরও বেশি সোনা দিয়ে তৈরি একটি শার্ট কেনেন, যার দাম ছিল আড়াই লক্ষ ডলার। তাঁকে বলা হত, ‘সোনার মানুষ’।

পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার রাতে পুনে শহরের দিঘি এলাকায় এক জন্মদিনের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে ফুগে ও তাঁর ২২ বছরের ছেলেকে আমন্ত্রণ জানানো হয়। জন্মদিনের অনুষ্ঠানটি চলছিল খোলা ময়দানে। সেখানেই জনা বারো লোক পাথর ও ধারালো অস্ত্র নিয়ে তাঁকে আক্রমণ করেন। বাবাকে খুন হতে দেখে ছেলে, তবে হত্যাকারীরা ছেলেকে আক্রমণ করেনি।

ফুগে প্রায় সব সময়ই গায়ে প্রচুর সোনা চড়িয়ে রাখতেন – হাতে, কবজিতে, গলায় নানা ধরনের গয়না পরতেন। তিনি বলতেন, “আমার কাছে অনেকেই জানতে চান, কেন আমি এত সোনা পরি। আসলে এটা আমার স্বপ্ন। কত লোকের তো কত রকম স্বপ্ন থাকে। অনেক শিক্ষিত মানুষ অডি, মার্সেডিজ বা অন্য কোনও বড়ো গাড়ি কিনতে চান। আমার পচ্ছন্দ সোনা।”

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন