Connect with us

দেশ

২০২১-এর আগে নয় করোনা ভ্যাকসিন? প্রেস বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেও সময়সীমা মুছে দিল বিজ্ঞানমন্ত্রক!

কিছুক্ষণের মধ্যেই সেই সময়সীমা মুছে দেওয়া হয় বলে সংবাদ মাধ্যম সূত্রের খবর…

ওয়েবডেস্ক: করোনাভাইরাস ভ্যাকসিন (Coronavirus vaccine) “আগামী ২০২১ সালের আগে প্রয়োগের জন্য প্রস্তুত হবে না” বলেই প্রেস ইনফরমেশন ব্যুরোর (PIB) ওয়েবসাইটে জানিয়েছিল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিমন্ত্রক (Ministry of Science and Technology)। তবে কিছুক্ষণের মধ্যেই সেই সময়সীমা মুছে দেওয়া হয় বলে সংবাদ মাধ্যম সূত্রের খবর।

এর আগে স্বাস্থ্য মন্ত্রকের অধীনস্থ ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিক্যাল রিসার্চ (আইসিএমআর) জানিয়ে দিয়েছিল, আগামী ৭ জুলাই থেকে পরবর্তী পাঁচ সপ্তাহ অর্থাৎ ১৫ অগস্টের মধ্যে সব পরীক্ষা শেষ করে বাজারে আনতে হবে কোভ্যাক্সিন টিকা। যা নিয়ে প্রবল বিতর্কের সৃষ্টি হয়। একটি ভ্যাকসিন বাজারজাত করার আগে যে ধাপগুলি অতিক্রম করতে হয়, তা এই সময়কালের মধ্যে সম্পূর্ণ করা সম্ভব নয় বলেই দাবি করেছিলেন বিশেষজ্ঞরা।

এমনকী আগামী স্বাধীনতা দিবসে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী যাতে এই ভ্যাকসিনের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা করতে পারেন, তেমন রাজনৈতিক উদ্দেশের কথা তুলে ধরা হয় বিরোধী দলগুলির তরফে।

তবে গত শনিবার নিজের অবস্থান স্পষ্ট করে আইসিএমআর (ICMR) ফের জানিয়ে দেয়, লাল ফিতের জট এড়াতেই ওই পরামর্শ দেওয়া হয়েছিল। দ্রুত কাজ করতে গিয়ে কোনও ভাবেই মানুষের প্রাণের সঙ্গে ঝুঁকি নেওয়া হবে না।

রবিবার বিজ্ঞানমন্ত্রক জানায়, “ছ’টি ভারতীয় সংস্থা একটি কোভিড -১৯ ভ্যাকসিন নিয়ে কাজ করছে। দু’টি ভারতীয় ভ্যাকসিন কোভ্যাক্সিন (COVAXIN) এবং জাইকভ-ডি (ZyCov-D)-র পাশাপাশি, বিশ্বের মোট ১৪০টির মধ্যে ১১টিরও বেশি ভ্যাকসিন মানবশরীরে পরীক্ষার পর্যায়ে রয়েছে।”

সংবাদ মাধ্যম সূত্রে খবর, প্রথমের প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এখানেই ছিল, “এর কোনোটিরই ২০২১ সালের আগে মানুষের শরীরে ব্যাপক ব্যবহারের জন্য প্রস্তুত হওয়ার সম্ভাবনা নেই”। কিন্তু কয়েক মুহূর্তের মধ্যেই তা মুছে ফেলা হয়। ফের সংশোধিত বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়।

পরের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, “মানুষের শরীরে ভ্যাকসিনগুলির পরীক্ষা পরিচালনার জন্য সেন্ট্রাল ড্রাগস স্ট্যান্ডার্ড কন্ট্রোল অর্গানাইজেশন (CDSCO)-এর ড্রাগ কন্ট্রোলার জেনারেল অব ইন্ডিয়া ‘সমাপ্তির শুরু চিহ্নিত’ করেছে”।

কোন পর্যায়ে রয়েছে ভারতীয় ভ্যাকসিন?

ভারতীয় দু’টি ভ্যাকসিনই দ্বিতীয় এবং তৃতীয় পর্যায়ের পরীক্ষার জন্য অনুমোদন পেয়েছে। প্রথম দু’টি পর্যায়ে ভ্যাকসিনের সুরক্ষার দিকটি পরীক্ষা করা হয়। তৃতীয় পর্যায়ে ওষুধের কার্যকারিতা পরীক্ষা করা হয়।

প্রত্যেকটি পর্যায়ের জন্যই কয়েক মাস সময় লাগে। যে কারণে আইসিএমআরের বেঁধে দেওয়া সময়সীমা মেনে ভ্যাকসিনগুলি বাজারে আনার ঘোষণাও অপ্রত্যাশিত বলে দাবি করা হয়।

শনিবার অবশ্য আইসিএমআর স্পষ্ট করে জানিয়ে দেয়, ভ্যাকসিন তৈরিতে সারা বিশ্ব যে নীতি অনুসরণ করে এগোচ্ছে, ভারতেও তা মেনে চলা হবে।

তবে আইসিএমআরের প্রথম ঘোষণার পর কংগ্রেস নেতা জয়রাম রমেশ জানিয়ে ছিলেন, আগামী ১০ জুলাই বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রকের স্থায়ী কমিটির বৈঠকে বিষয়টির ব্যাখ্যা চাওয়া হবে।

তার আগেই এ দিন বিষয়টি নিয়ে নিজেদের অবস্থান জানিয়ে দিল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিমন্ত্রক। তবে তা নিয়েও বিতর্ক রয়েই গেল!

নির্দেশে কী বলেছিল আইসিএমআর/ কেন বিতর্ক?

দেখুন এখানে ক্লিক করে: “১৫ আগস্টেই বাজারে আসবে, তবে ২০২১-এ,” কোভ্যাক্সিন নিয়ে সরকারি সময়সীমার তীব্র নিন্দা বিশেষজ্ঞদের

আরও পড়তে পারেন: ১৫ আগস্ট? করোনা ভ্যাকসিনের দিনক্ষণ বেঁধে দেওয়া নিয়ে অবস্থান স্পষ্ট করল আইসিএমআর

Advertisement
Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

দেশ

ভারত-বাংলাদেশের সম্পর্ক রক্তের, বললেন নৌপ্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী

ঋদি হক: ঢাকা

ভারত-বাংলাদেশের সম্পর্ককে রক্তের সম্পর্ক বলে বর্ণনা করলেন বাংলাদেশের (Bangladesh) নৌপরিবহণ প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী (Khalid Mahmud Chowdhury)।

তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধের সময়ে যে সম্পর্ক তৈরি হয়েছে, সেটি রক্তের সম্পর্ক। আমাদের মুক্তিযুদ্ধের সময়ে ভারতীয়রা রক্ত ও আশ্রয় দিয়েছে। তখন থেকেই ভারতের (India) সঙ্গে বাংলাদেশের সম্পর্ক অত্যন্ত সুস্থ ও সবল। ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের যে সাংস্কৃতিক বন্ধন রয়েছে, তা পৃথিবীর আর কোনো দেশের সঙ্গে নেই। তাই এ সম্পর্কটি কখনোই দুর্বল হওয়ার নয়। এ নিয়ে নতুন করে কথা বলার কিছু নেই।

বৃহস্পতিবার নৌপরিবহণ মন্ত্রকে মন্ত্রীর সঙ্গে বিদায়ী সাক্ষাৎ করেন ভারতের বিদায়ী হাইকমিশনার রিভা গাঙ্গুলি দাস (Riva Ganguly Das)। এর পর প্রতিমন্ত্রী সংবাদমাধ্যমকে বলেন, বাংলাদেশের নৌপরিবহণ মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে ভারতের কিছু চুক্তি, প্রকল্প ও কার্যক্রম রয়েছে। দু’ দেশের সংযোগ বাড়াতে নৌপথ অন্যতম একটা মাধ্যম হতে পারে। আমরা আলোচনা করে বিষয়গুলো এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছি।

রিভা গাঙ্গুলি দাস বলেন, নৌপরিবহণ মন্ত্রকের সঙ্গে তাঁরা খুব ঘনিষ্ঠ হয়ে কাজ করে থাকেন। ভারত-বাংলাদেশের সম্পর্ক স্বাভাবিক রয়েছে। অনেক কাজ হয়েছে। কোভিডের মধ্যেও এক সঙ্গে কাজ হয়েছে। এটা সম্পর্ক ঘনিষ্ঠ হওয়ার কারণেই হয়েছে। এখানে বাণিজ্য-ট্রেন চলছে। সরবরাহের শৃঙ্খলটি ঠিক আছে। বরং অনেক বেশি সুচারু হয়েছে। এখানে অনেক চুক্তি হয়েছে। এক সঙ্গে অনেক প্রকল্পে কাজ হচ্ছে।

বিদায়ী হাইকমিশনার বলেন, “ওভারঅল আমরা খুবই খুশি। এটা দু’ দেশের জন্য উইন-উইন অবস্থান। আমাদের ট্রেড বাড়বে। এটাতে বাংলাদেশেরও লাভ হবে, কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে।”

রিভা গাঙ্গুলি দাস বলেন, বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে জাহাজ চলাচলের স্ট্যান্ডার্ড অপারেটর প্রসিডিউর (এসওপি) স্বাক্ষরের আলোকে ট্রায়াল ইতিমধ্যে হয়ে গেল। এখন বাকি কাজ এগিয়ে নিয়ে যেতে কোনো অসুবিধা নেই। সেটা সহজ ভাবে হয়ে যাবে।

বর্তমান পরিস্থিতিতে ভারতীয় ভিসার বিষয়ে ভারতীয় হাইকমিশনার বলেন, অতি জরুরি চিকিৎসা ও ব্যবসায়িক ভিসা দেওয়া হচ্ছে। এখন নরমাল ভিসার ব্যাপারে চেষ্টা চলছে। তবে তা নির্ভর করছে কোভিড ও ফ্লাইট চলাচলের ওপর।

Continue Reading

দেশ

পাইলট-গহলৌতের করমর্দনের মধ্যে দিয়ে যবনিকা পতন রাজস্থানের রাজনৈতিক নাটকের

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নাটক শুরু হয়েছিল পরিষদীয় দলের এক বৈঠক থেকে। নাটক শেষ হল পরিষদীয় দলের আরও এক বৈঠকের মধ্যে দিয়ে।

সব টানাপড়েনের অবসান ঘটিয়ে অশোক গহলৌতের বাড়ি পৌঁছোলেন সচিন পাইলট। হাসিমুখে করমর্দন করলেন দু’ জন। বৃহস্পতিবার বিকেল পাঁচটা থেকে মুখ্যমন্ত্রীর বাড়িতে শুরু হয়েছে পরিষদীয় দলের বৈঠক। শুক্রবার থেকে শুরু হওয়া বিশেষ অধিবেশনের আগে রণনীতি ঠিক করতেই এই বৈঠক হচ্ছে।

কংগ্রেসে পাইলটের প্রত্যাবর্তন অনেকেই মেনে নিতে পারেননি। বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী সচিন পাইলটের কংগ্রেসের আগমনে হতাশ হয়ে পড়েন অশোক গহলৌতের সমর্থনে থাকা বিধায়করা। তবে সেই হতাশা থেকে অন্য রকম কোনো চিন্তাভাবনা তাঁরা করেননি। সেই হতাশা দূর করতে এ বার আসরে নামতে হয়েছে গহলৌতকেই।

তাঁর শিবিরের বিধায়কদের গহলৌত বুধবার বলেন, “ক্ষমা করে দিন, ভুলে যান, এগিয়ে চলুন।”

পাইলট এবং তাঁর সমর্থনে থাকা বিধায়কদের ফিরে আসা নিয়ে গহলৌত শিবিরের বিধায়করা যে হতাশ ছিলেন, সেটা মেনে নেন গহলৌতও। তিনি বলেন, “বিধায়কদের হতাশ হয়ে পড়া খুবই স্বাভাবিক। গত এক মাস ধরে যে ধরনের ঘটনা ঘটেছে, তাতে এমন হতাশা অস্বাভাবিক কিছু নয়। কিন্তু আমি সবাইকে বুঝিয়েছি যে দেশ, রাজ্য চালাতে গেলে আর গণতন্ত্রকে রক্ষা করতে হলে এমন অনেক কিছু মেনে নিতে হয়।”

বৃহস্পতিবার আরও দু’টি ঘটনা ঘটেছে রাজস্থান কংগ্রেসে। পাইলট শিবিরে থাকা দুই বিধায়ক ভাঁওয়ার লাল শর্মা আর বিশ্ববেন্দ্র সিংহের ওপর থেকে সাসপেশন প্রত্যাহার করে নিয়েছে কংগ্রেস। অন্য দিকে রাজস্থান সরকারের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব এনেছে বিরোধী বিজেপি।

বিজেপি এই প্রস্তাব নিয়ে আসায় রাজস্থান বিধানসভায় আস্থাভোট হচ্ছেই। তবে পাইলট শিবির ফিরে আসায় আস্থাভোটের সেই বৈতরণী খুব সহজেই গহলৌত সরকার পেরিয়ে যেতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। পাইলট আর গহলৌত মুখোমুখি হওয়ায় এ বার দু’ জনের মধ্যে রসায়ন কেমন হতে চলেছে, সেই দিকেই তাকিয়ে রয়েছে রাজনৈতিক মহল।

Continue Reading

দেশ

মুখ্যমন্ত্রী অশোক গহলৌত সরকারের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব নিয়ে আসছে বিজেপি

শুক্রবার রাজস্থান বিধানসভার বিশেষ অধিবেশনে অনাস্থা প্রস্তাব নিয়ে আসছে বিরোধী দল বিজেপি।

ওয়েবডেস্ক: প্রায় একমাসের নাটকীয় ঘটনাক্রমে ইতি পড়েছে। কংগ্রেসে ফিরে এসেছেন ‘বিদ্রোহী’ সচিন পাইলট (Sachin Pilot)। তবে আগামী শুক্রবার রাজস্থান বিধানসভার বিশেষ অধিবেশনে অনাস্থা প্রস্তাব নিয়ে আসছে বিরোধী দল বিজেপি।

গত বুধবারই জৈসলমের থেকে জয়পুরে ফিরেছেন মুখ্যমন্ত্রী অশোক গহলৌত শিবিরের বিধায়কেরা। বৃহস্পতিবার রাজস্থান বিধানসভার বিরোধী দলনেতা গুলাবচাঁদ কাটারিয়া (Gulab Chand Kataria) জানান, মুখ্যমন্ত্রী অশোক গহলৌত (Ashok Gehlot) সরকারের বিরুদ্ধে অনাস্থা নিয়ে আসবে বিজেপি।

তিনি সংবাদ মাধ্যমের কাছে জানান, “আগামীকাল (শুক্রবার) আমরা বিধানসভায় অনাস্থা প্রস্তাব ( no-confidence motion) নিয়ে আসব। আমাদের শরিকরাও সমর্থন জানাবেন”।

অন্য দিকে ছয় বিএসপি বিধায়কের কংগ্রেসে মিশে যাওয়ার ঘটনার বিরুদ্ধে বিজেপি বিধায়ক মদন দিলওয়ারের মামলাটির শুনানি আগামী শুক্রবারেই হতে চলেছে রাজস্থান হাইকোর্টে। ছয় বিধায়ক সন্দীপ যাদব, ওয়াজিব আলি, দীপচাঁদ খেরিয়া. লক্ষণ মীনা, যোগেন্দ্র আওয়ানা এবং রাজেন্দ্র গুঢ়ার কংগ্রেসে যোগ দেওয়ার বিরুদ্ধে হাইকোর্টে মামলা করেছে বিজেপি। বিধানসভায় শক্তিপরীক্ষা হলে তাঁরা ভোটাধিকার পাবেন কি না, তা এখনও স্পষ্ট নয়।

খাতায়-কলেম দলগুলির বিধায়ক সংখ্যা

২০১৮ সালে বিধানসভার ভোট হয় রাজস্থানে। গত বছর একটি আসনে উপ-নির্বাচন হয়। খাতায়-কলমে কংগ্রেস এবং বিজেপির বিধায়ক সংখ্যা যথাক্রমে ১০৭ এবং ৭২। অন্য দিকে জোটের পরিসংখ্যানে কংগ্রেস এবং বিজেপির দিকে রয়েছেন যথাক্রমে ১২৪ এবং ৭৬ জন বিধায়ক। তবে সেই অঙ্ক এখন ভিতরে ভিতরে অনেকটাই পরিবর্তিত। তবে দলের বিরুদ্ধে যড়যন্ত্রমূলক চক্রান্তের অভিযোগে দলীয় সদস্যপদ থেকে বরখাস্ত দুই বিধায়ক ভানওয়ার লাল শর্মা এবং বিশ্ববেন্দ্র সিংয়ের স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার করেছেন গহলৌত।

সূত্রের খবর, বেশ কয়েকজন কংগ্রেস বিধায়ককে সঙ্গে নিয়ে সচির বিদ্রোহ ঘোষণা করার পরেও অশোক গহলৌতের পক্ষে ১০২ জন বিধায়কের সমর্থন ছিল, যা সংখ্যাগরিষ্ঠতা থেকে মাত্র একটা বেশি। কিন্তু বিএসপির ছ’জনকে বাদ দিলে সেই সংখ্যা ৯৬-এ নেমে আসতে পারে। ২০০ আসনের রাজস্থান বিধানসভায় বিজেপির বিধায়ক সংখ্যা ৭২। বিদ্রোহী কংগ্রেস বিধায়ক এবং তিনজন নির্দল বিধায়ক মিলে সেই সংখ্যা ৯৭-এ পৌঁছাতে বলে অনুমান। কিন্তু সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমাণের জন্য ১০১টি আসনের থেকে তা কম!

এই সংক্রান্ত আরও খবর পড়তে পারেন এখানে: অশোক-সচিন দ্বৈরথ

Continue Reading
Advertisement

বিশেষ প্রতিবেদন

Advertisement
শিল্প-বাণিজ্য26 mins ago

লকডাউনেও ২২ শতাংশ নিট মুনাফা বাড়ল বিপিসিএলের

রাজ্য36 mins ago

আক্রান্তের সংখ্যায় রেকর্ড, তবে দীর্ঘদিন পর রাজ্যে দৈনিক সংক্রমণের হার নামল দশ শতাংশের নীচে

বিজ্ঞান1 hour ago

অক্সফোর্ড করোনা ভ্যাকসিন আপডেট: নভেম্বরের মধ্যে শেষ হবে হিউম্যান ট্রায়াল

গাড়ি ও বাইক2 hours ago

ব্যাটারি ছাড়াই কেনা যাবে ইলেকট্রিক গাড়ি, নির্দেশ কেন্দ্রের

অনুষ্ঠান2 hours ago

রবীন্দ্রনাথের সৃষ্টির হাত ধরে প্রয়াত অমলা শঙ্করের প্রতি অনলাইন অনুষ্ঠানে শ্রদ্ধাঞ্জলি অগ্নিবীণা ডান্স অ্যাকাডেমির

দেশ2 hours ago

ভারত-বাংলাদেশের সম্পর্ক রক্তের, বললেন নৌপ্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী

রাজ্য2 hours ago

পেশাগত রোগ সিলিকোসিসে ঝরছে শ্রমিকের প্রাণ! দায় নেবে কে?

ক্রিকেট3 hours ago

কোহলি-স্মিথ-উইলিয়ামসনরা অভিষেক করার আগে শেষ টেস্ট খেলেছিলেন তিনি, ফের সুযোগ পেলেন বৃহস্পতিবার

কেনাকাটা

care care
কেনাকাটা9 hours ago

চুল ও ত্বকের বিশেষ যত্নের জন্য ১০০০ টাকার মধ্যে এই জিনিসগুলি ঘরে রাখা খুবই ভালো

খবরঅনলাইন ডেস্ক : পার্লার গিয়ে ত্বকের যত্ন নেওয়ার সময় অনেকেরই নেই। সেই ক্ষেত্রে বাড়িতে ঘরোয়া পদ্ধতি অনেকেই অবলম্বন করেন। বাড়িতে...

কেনাকাটা1 week ago

ঘর ও রান্নাঘরের সরঞ্জাম কিনতে চান? অ্যামাজন প্রাইম ডিলে রয়েছে ৫০% পর্যন্ত ছাড়

খবরঅনলাইন ডেস্ক : অ্যামাজন প্রাইম ডিলে রয়েছে ঘর আর রান্না ঘরের একাধিক সামগ্রিতে প্রচুর ছাড়। এই সেলে পাওয়া যাচ্ছে ওয়াটার...

কেনাকাটা1 week ago

এই ১০টির মধ্যে আপনার প্রয়োজনীয় প্রোডাক্টটি প্রাইম ডে সেলে কিনতে পারেন

খবরঅনলাইন ডেস্ক : চলছে অ্যামাজনের প্রাইমডে সেল। প্রচুর সামগ্রীর ওপর রয়েছে অনেক ছাড়। ৬ ও ৭  তারিখ চলবে এই সেল।...

কেনাকাটা1 week ago

শুরু হল অ্যামাজন প্রাইম ডে সেল, জেনে নিন কোন জিনিসে কত ছাড়

খবরঅনলাইন ডেস্: শুরু হল অ্যামাজন প্রাইম ডে সেল। চলবে ২ দিন। চলতি মাসের ৬ ও ৭ তারিখ থাকছে এই অফার।...

things things
কেনাকাটা2 weeks ago

করোনা আতঙ্ক? ঘরে বাইরে এই ১০টি জিনিস আপনাকে সুবিধে দেবেই দেবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : করোনা পরিস্থিতিতে ঘরে এবং বাইরে নানাবিধ সাবধানতা অবলম্বন করতেই হচ্ছে। আগামী বেশ কয়েক মাস এই নিয়মই অব্যাহত...

কেনাকাটা2 weeks ago

মশার জ্বালায় জেরবার? এই ১৪টি যন্ত্র রুখে দিতে পারে মশাকে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: একে করোনা তায় আবার ডেঙ্গুর প্রকোপ শুরু হয়েছে। এই সময় প্রতি বারই মশার উৎপাত খুবই বাড়ে। এই বারেও...

rakhi rakhi
কেনাকাটা3 weeks ago

লকডাউন! রাখির দারুণ এই উপহারগুলি কিন্তু বাড়ি বসেই কিনতে পারেন

সামনেই রাখি। কিন্তু লকডাউনের মধ্যে মনের মতো উপহার কেনা একটা বড়ো ঝক্কি। কিন্তু সেই সমস্যা সমাধান করতে পারে অ্যামাজন। অ্যামাজনের...

কেনাকাটা3 weeks ago

অনলাইনে পড়াশুনা চলছে? ল্যাপটপ কিনবেন? দেখে নিন ৪০ হাজার টাকার নীচে ৬টি ল্যাপটপ

ইনটেল প্রসেসর সহ কোন ল্যাপটপ আপনার অনলাইন পড়াশুনার কাজে লাগবে জেনে নিন।

কেনাকাটা3 weeks ago

করোনা-কালে ঘরে রাখতে পারেন ডিজিটাল অক্সিমিটার, এই ১০টির মধ্যে থেকে একটি বেছে নিতে পারেন

শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা বুঝতে সাহায্য করে এই অক্সিমিটার।

কেনাকাটা4 weeks ago

লকডাউনে সামনেই রাখি, কোথা থেকে কিনবেন? অ্যামাজন দিচ্ছে দারুণ গিফট কম্বো অফার

খবরঅনলাইন ডেস্ক : সামনেই রাখি। কিন্তু লকডাউনের মধ্যে দোকানে গিয়ে রাখি, উপহার কেনা খুবই সমস্যার কথা। কিন্তু তা হলে উপায়...

নজরে

Click To Expand