kerala student fish
পিনারাই বিজয়নের সঙ্গে হানান। ছবি: হিন্দুস্তান টাইমস

ওয়েবডেস্ক: গত মাসের কথা, কলেজে পড়ার পাশাপাশি মাছ বিক্রি করে পয়সা রোজগার করার জন্য চূড়ান্ত ট্রোলিং-এর শিকার হয়েছিলেন। সেই কলেজছাত্রী হানানই বন্যাত্রাণের জন্য মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে দিলেন দেড় লক্ষ টাকা।

পরিবারের অর্থের অভাব। তাই কলেজে পড়ার পাশাপাশি মাছ বিক্রি করেন হানান। সেই সঙ্গে মাঝেমধ্যে স্থানীয় অনুষ্ঠানে সঞ্চালনার কাজও করে থাকেন তিনি। তাঁর এই সংগ্রামের খবর গত মাসে স্থানীয় মালায়ালাম দৈনিকে প্রকাশিত হয়। তার পরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় চূড়ান্ত ট্রোলিং-এর শিকার হন তিনি।

আরও পড়ুন কেরল বন্যা লাইভ: আর্থিক সহযোগিতা ঘোষণা করল বিভিন্ন রাজ্য

কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়ায় যেমন ট্রোল করার মতো খারাপ মানুষও থাকেন, তেমনই থাকেন অসংখ্য ভালো মানুষও। সেই মানুষরাই হানানের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন। বিভিন্ন রকম ভাবে আর্থিক সাহায্য করেছিলেন যাতে তাঁর পরিবারে আর্থিক স্বচ্ছলতা ফিরে আসে।

সহৃদয়ের ব্যক্তিদের থেকে সাহায্য পাওয়া অর্থ, তার সঙ্গে নিজে উপার্জন করা অর্থ মিলিয়ে মোট দেড় লক্ষ টাকা কেরলের মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে দান করেছেন হানান। বিএসসি স্নাতক এই ছাত্রীর কথায়, “অনেক মানুষ আমার সংগ্রামের কথা জেনে এই আর্থিক সাহায্য করেছিলেন। আমি এই বিপদের দিনে তাই লড়াই চালানো মানুষগুলির পাশে দাঁড়াতে চাই।”

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন