কাশ্মীরের বর্তমান পরিস্থিতিতে সেখানকার জনগণের ‘প্রতিক্রিয়া’তেই সম্ভবত উরিতে সন্ত্রাসবাদী হামলা হয়েছে। দাবি করলেন পাক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ। পাশাপাশি ‘কোনও প্রমাণ ছাড়াই’ পাকিস্তানকে দোষারোপ করার জন্য ভারতের নিন্দাও করেছেন।

‘কাশ্মীরে গত দু’মাসে যে অত্যাচার হয়েছে, উরির হামলা তার প্রতিক্রিয়াতেই হয়ে থাকতে পারে, নিহত এবং অন্ধ হয়ে যাওয়া মানুষদের ঘনিষ্ঠ আত্মীয় এবং কাছের ও প্রিয় মানুষেরা যন্ত্রণার মধ্যে রয়েছেন, তাঁরা অত্যন্ত ক্ষুব্ধও’, রাষ্ট্রপুঞ্জের সাধারণ সভা থেকে দেশে ফেরার পথে শুক্রবার লন্ডনে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন শরিফ।

শরিফ বলেন, ভারত কোনও তদন্ত না করেই তাড়াহুড়ো করে পাকিস্তানকে দোষারোপ করেছে। তাঁর মতে, ‘কোনও প্রমাণ ছাড়াই’ পাকিস্তানকে বদনাম করে ‘দায়িত্বজ্ঞানহীন’ কাজ করেছে ভারত।

‘উরির ঘটনার কয়েক ঘণ্টার মধ্যে কোনও তদন্ত না করে ভারত কী ভাবে পাকিস্তানকে দোষারোপ করল’, মন্তব্য পাক প্রধানমন্ত্রীর।

শরিফের অভিযোগ, কাশ্মীরে ভারত যে অত্যাচার চালাচ্ছে তা সারা দুনিয়া জানে। ‘এখনও পর্যন্ত ১০৮ জনের মৃত্যু হয়েছে, ১৫০ জন অন্ধ হয়েছেন, হাজারের বেশি মানুষ আহত হয়েছেন’।

শরিফের মতে, ‘নিরীহ কাশ্মীরিদের বিরুদ্ধে নিষ্ঠুর আচরণ করা হচ্ছে’। পাকিস্তানকে অভিযুক্ত করার আগে ভারতের উচিৎ নিজেদের ‘অত্যাচারী ভূমিকা’র দিকে নজর দেওয়া।

কাশ্মীরিদের ‘হত্যা’ নিয়ে ভারতের তদন্ত করা উচিৎ বলে মনে করেন শরিফ।

জম্মু ও কাশামীরের সমস্যার সমাধান না করে এই অঞ্চলে স্থায়ী শান্তি অসম্ভব, দাবি শরিফের।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here