BS Yeddyurappa

ওয়েবডেস্ক: কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রীপদ থেকে ইস্তফার বিদায়ী ভাষণে বিজেপি নেতা বি এস ইয়েদিয়ুরাপ্পা ঠিক কী কী বক্তব্য পেশ করেছিলেন, তা নিয়েই এখনও চলছে চুলচেরা বিশ্লেষণ। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর প্রশংসা দিয়ে শুরু করা সেই ভাষণে নিজের দলের অক্ষমতা ঢাকতে বারবার তিনি বলেছেন কংগ্রেস-জেডি (এস)-এর অনৈতিক জোটের কথা। তবে এ বিষয়ে সব থেকে চাঞ্চল্যকর বক্তব্যটি নিয়েই এখন কর্নাটকের রাজনীতি তোলপাড়।

এ কথা অস্বীকার করার নয় যে কংগ্রেস এবং জেডি (এস) ‘বৈরিতা’ বহুযুগের। ফলে এ বারেও বিধানসভা নির্বাচনের শুরু থেকে এই দুই দলের মধ্যে কাদা ছোড়াছুড়ির অন্ত ছিল না। দলীয় আক্রমণ থেকে আরও নীচে নেমে এসে এক দলের নেতা অন্য দলের নেতার ব্যক্তিগত জীবন নিয়েও বিষোদ্গার করেছেন। তাই বলে খোদ বিধানসভায় দাঁড়িয়ে একজন মুখ্যমন্ত্রী (হোক না আড়াই দিনের) কী ভাবে সেই প্রসঙ্গ ‘অদ্ভুত’ ব্যাখ্যা তুলে নিয়ে আসতে পারেন, তা নিয়েই সমালোচনা চলছে।

আরও পড়ুন: সোমবার নয়, কংগ্রেসের অনুরোধে পিছোলো কুমারস্বামীর শপথগ্রহণ অনুষ্ঠান

ইয়েদিয়ুরাপ্পা বিদায়ী ভাষণে বলেন, “যাঁরা এত দিন নিজেদের বাবা তুলে একে অপরকে গালাগালি করত, যাঁরা একে অপরের দিকে কাদা ছুড়ত, তাঁরাই এখন জোট বেঁধেছে”।

আরও পড়ুন: ক্ষমতা দখল হল না, জাতীয় সঙ্গীত বাজতে থাকা অবস্থায় কর্নাটক বিধানসভা ছাড়লেন বিজেপি বিধায়করা

এখানেই শেষ নয়, ইয়েদ্দির এই বক্তব্য পোস্ট করা হয়েছে কর্নাটক বিজেপির টুইটারেও। এ বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানিয়ে এক কংগ্রেস নেতা বলেছেন, ভোট রাজনীতিতে অনেক বেশি নিম্নরুচির কার্যকলাপ ওরা করে থাকে। ফলে বিধানসভায় দাঁড়িয়ে জোট সরকারকে কটাক্ষ করতে এ ধরনের মন্তব্য নতুন নয়।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here