ওয়েবডেস্ক: গত ১ জুন, একটি রেকর্ড করেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী অশ্বিনী চৌবে। ভারতের তরফ থেকে এই প্রথম কোনো মন্ত্রী তুভালু সফরে গিয়েছিলেন। প্রশান্ত মহাসাগরের ছোট্ট দেশ তুভালুর জনসংখ্যা মোটে ১১, ২০০। এই ছোট্ট দেশে হঠাৎ সফরে কেন গিয়েছিলেন চৌবে?

২০১৫ সালে বৃহৎ সম্পর্ক যোজনা বলে একটি প্রকল্প চালু করেছে মোদী সরকার। এই প্রকল্পের মধ্যে দিয়ে ভারত ছাড়া রাষ্ট্রপুঞ্জের সদস্য ১৯২টা দেশেই প্রতিনিধি পাঠানোর পরিকল্পনা করেছে সরকার।

এই মুহূর্তে তুভালুকে নিয়ে মোট ১৮৯টা দেশে সফর করা হয়ে গেল কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদের। টার্গেট পূরণ করতে বাকি এখন আর মাত্র তিনটে দেশ। এই তিনটে দেশের মধ্যে একটি মার্শাল আইল্যান্ডে আগামী মাসেই যাওয়ার কথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী উপেন্দ্র খুশওয়াহার। মার্শাল আইল্যান্ড ছাড়া বাকি থাকবে আর দু’টো দেশ, কিরিবাটি এবং মাইক্রোনেশিয়া।

বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজের উদ্যোগেই এই প্রকল্প নিয়েছে কেন্দ্র। চার বছর বিদেশ মন্ত্রকের মসনদে বসার পরে কয়েকটি দেশ ভারতীয় রাষ্ট্রদূত সুষমাকে জানান, তাদের দেশে কোনো দিনও কোনো ভারতীয় প্রতিনিধি আসেননি। তার পরেই এই উদ্যোগ নেন স্বরাজ।

কেন্দ্রের প্রায় সব মন্ত্রীই বিভিন্ন দেশে সফর করেছেন। সলোমন আইল্যান্ড এবং ভনুয়াতুতে সফর করেছেন রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়াল, আলবানিয়া, বসনিয়ায় গিয়েছেন সুরেশ প্রভু। নির্মলা সীতারমণ সফর করেছেন ক্রোয়েশিয়ায়। গ্যাম্বিয়ায় সফর করেছেন মুখতার আব্বাস নাকভি।

এখন দেখার, বাকি লক্ষ্যপুরণ কবের মধ্যে করে ভারত।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here