Ram Temple
প্রতীকী ছবি

অযোধ্যা: ২৬ বছর আগে এই দিনেই উন্মত্ত করসেবকদের হাতে ধ্বংস হয়েছিল বাবরি মসজিদ। সেই ঘটনার বর্ষপূর্তিতে কড়া নিরাপত্তায় মুড়ে ফেলা হয়েছে অযোধ্যাকে। কোনো রকম অশান্তি এড়ানোর জন্য তৎপর পুলিশ।

প্রতি বছর ৬ ডিসেম্বর দিনটিকে বিশ্ব হিন্দু পরিষদ ও বজরং দল ‘শৌর্য দিবস’ ও ‘বিজয় দিবস’ হিসেবে পালন করে। অন্য দিকে মুসলিম সম্প্রদায় দিনটিকে ‘ইয়াম-ই-গম’ (দুঃখের দিন) ও ‘ইয়াম-ই-শ’ (কালা দিবস) হিসেবে পালন করে। দুই সম্প্রদায়ের দু’ ভাবে দিনটি উদযাপনের জন্য অশান্তির আশঙ্কা থেকেই যায়। ফলে অতিরিক্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা করেছে পুলিশ। তবে পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, দুই সম্প্রদায়ের মানুষই যাতে তাদের অনুষ্ঠান ঠিকমতো সম্পন্ন করতে পারে তার জন্য পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

আরও পড়ুন যোগীর মেরুকরণের বার্তার প্রতিবাদ, বিজেপিত্যাগ একাধিক নেতার

ফৈজাবাদের পুলিশ সুপার অনিল সিং জানিয়েছেন, ফৈজাবাদ-অযোধ্যায় মোতায়েন করা হয়েছে প্রায় ২৫ হাজার পুলিশ। এ ছাড়া রয়েছে আধা সামরিক বাহিনী ও ব়্যাফ। অযোধ্যা ও তার আশপাশের অঞ্চলে রয়েছে বহুস্তরীয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

রাজ্যেরই বুলন্দশহরে অশান্তির ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে অযোধ্যায় নিরাপত্তা নিয়ে চিন্তায় প্রশাসন। অশান্তির আশঙ্কা একবারে উড়িয়েও দিচ্ছে না পুলিশ। সে কারণেই বুধবার অযোধ্যা থেকেই একটি হিন্দুবাদী সংগঠনের চার জন নেতাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here