indian railways

ওয়েবডেস্ক: দিন দিন যাত্রীসংখ্যা কমছে। কেন না, অভিজাত বা বিত্তবানদের দূর পাল্লার সফরের মাধ্যম হিসাবে ভারতীয় রেল ক্রমশই তার জনপ্রিয়তা হারাচ্ছে। কারণটা শুধুই সময় নয়। পাশাপাশি, অপরিচ্ছন্নতাও।

তবে, এ বার থেকে আর যাত্রীদের অপরিচ্ছন্নতা সংক্রান্ত সমস্যার মুখোমুখি হতে হবে না রেল সফরে। রাজ্য সভাকে একটি লিখিত প্রত্যুত্তরে সে রকমটাই জানিয়েছে পীযূষ গয়াল পরিচালিত ভারতীয় রেল মন্ত্রক। জানানো হয়েছে, ট্রেনের কোচ এবং টয়লেট পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য গ্রহণ করা হয়েছে একগুচ্ছ পরিকল্পনা।

১. ট্রেনের অভ্যন্তর ভাগ পরিষ্কার রাখার এই লক্ষ্যে সবার প্রথমে জোর দেওয়া হয়েছে যাত্রাপথের প্রথম ও শেষ স্টেশনে কামরা সাফাইয়ের দিকে। রেল মন্ত্রক জানিয়েছে, এখন থেকে এ ব্যাপারে বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করা হবে।

২. যাত্রাপথে যাতে পরিচ্ছন্নতা নিয়ে কোনো সমস্যা না হয়, সে জন্য ট্রেনের মধ্যেই এক দল সাফাইকর্মী উপস্থিত থাকবেন বলে জানা গিয়েছে। তাঁরা পালা করে কোচ এবং টয়লেটগুলি পরিষ্কার করে দেবেন। যে পরিষেবাকে বলা হচ্ছে ‘কোচ মিত্র’।

৩. জংশন স্টেশনে গাড়ি দাঁড়ালে সেখানেও কামরা এবং টয়লেট পরিষ্কার করার ব্যবস্থা থাকবে। সেই স্টেশনের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাফাইকর্মীরাই এ কাজ করবেন। এই পরিষেবার নাম রাখা হয়েছে ‘ক্লিন ট্রেন স্টেশন’।

৪. এ ছাড়া প্রয়োজন হলে যাত্রীরাও এ বার থেকে রেলকর্মীদের পরিচ্ছন্নতা সংক্রান্ত ব্যাপারে অভিযোগ জানাতে পারবেন বলে খবর। অভিযোগ পাওয়া মাত্র ট্রেনে উপস্থিত কর্মীরা সেই সমস্যার সমাধান করবেন বলে দাবি রেল মন্ত্রকের। এই পরিষেবার নাম দেওয়া হয়েছে ‘ক্লিন মাই কোচ’।

৫. শীততাপ নিয়ন্ত্রিত কামরায় যাত্রীদের যে সব চাদর, বালিশের ঢাকা, তোয়ালে এবং কম্বল ব্যবহারের জন্য দেওয়া হত, এখন থেকে তা নিয়মিত কাচার জন্য ট্রেনের ভিতরেই লন্ড্রি বসানো হচ্ছে।

আশা করাই যায়, এত কিছুর পরে আর রেল সফরের অপরিচ্ছন্নতা নিয়ে আমাদের অভিযোগের কোনো জায়গা থাকবে না।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন