কংগ্রেস হাত বাড়ালেও ধরতে নারাজ তৃণমূল, সংসদে বিরোধী দলের বৈঠক এড়ানোর সম্ভাবনা

0
সোনিয়া গান্ধী এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রতীকী ছবি

কলকাতা: সংসদের আসন্ন শীতকালীন অধিবেশনে বিরোধী ঐক্য মজবুত করতে তৃণমূলকে স্পষ্ট বার্তা দিয়েছে কংগ্রেস। তবে অধিবেশন শুরুর দু’দিন আগে, শনিবার তৃণমূল সূত্রে খবর, কংগ্রেসের ডাকে ‘আগ্রহ’ নেই ঘাসফুল শিবিরের।

এ দিন সংবাদ সংস্থা পিটিআই-এর কাছে এক তৃণমূল নেতা বলেন, এ মুহূর্তে আলাদা করে কংগ্রেসের সঙ্গে কোনো সমন্বয়ের প্রয়োজনীয়তা খুঁজে পাচ্ছেন না তাঁরা। তবে জনগণের স্বার্থ সম্পর্কিত বিভিন্ন বিষয়ে অন্য বিরোধী দলগুলোর সঙ্গে সহযোগিতামূলক নীতি নিয়েছে তৃণমূল।

দিল্লিতে ক্ষমতাসীন বিজেপি-র বিরুদ্ধে বিরোধীদের মধ্যে ঐক্য বজায় রাখার কৌশল নির্ধারণ করেছে কংগ্রেস। প্রবীণ কংগ্রেস নেতা মল্লিকার্জুন খাড়্গে জানিয়েছেন, “সংসদে অনেক বিষয় উত্থাপন করার লক্ষ্য রয়েছে আমাদের। ২৯ নভেম্বর ন্যূনতম সহায়ক মূল্য (MSP) এবং কৃষকদের ইস্যু উত্থাপন করব। মূল্যবৃদ্ধি, পেট্রোল এবং ডিজেলের দাম এবং চিনা অনুপ্রবেশ নিয়েও সংসদে আলোচনা চাইছি। এ বিষয়ে তৃণমূল এবং অন্য সব দলের সঙ্গেও সমন্বয়ের জন্য যোগাযোগ করছি আমরা”।

যদিও দুই দলের মধ্যে সম্পর্ক এখন বেশ উত্তেজনাপূর্ণ। ঝাঁকে ঝাঁকে কংগ্রেস নেতা যোগ দিচ্ছেন তৃণমূলে। এরই প্রেক্ষিতে কংগ্রেসকে পরামর্শ দিয়ে তৃণমূল বলছে, তাদের (কংগ্রেসে) উচিত “সঠিক অভ্যন্তরীণ সমন্বয় এবং তাদের নিজস্ব ঘর সাজানো”।

এক প্রবীণ তৃণমূল নেতা বলেন, “আমরা শীতকালীন অধিবেশন চলাকালীন কংগ্রেসের সঙ্গে সমন্বয়ে আগ্রহী নই। কংগ্রেস নেতাদের প্রথমে নিজেদের মধ্যে সমন্বয় করা উচিত। তাঁদের উচিত নিজেদের ঘর সাজানো এবং তারপরে অন্যান্য শিবিরের সঙ্গে সমন্বয় করার কথা ভাবা”।

অন্য বিরোধী দলগুলির সঙ্গে সমন্বয়ের ব্যাপারে ওই তৃণমূল নেতা বলেন, “জনগণের স্বার্থের সঙ্গে জড়িত বিভিন্ন ইস্যু উত্থাপন করব আমরা। এ ব্যাপারে অন্য বিরোধী দলগুলোর সঙ্গেও সমন্বয় রেখে চলব। তবে যতটা মনে হচ্ছে, কংগ্রেসের ডাকে বিরোধী দলের বৈঠকে আমাদের যোগ দেওয়ার সম্ভাবনা নেই”।

উল্লেখ্য, কীর্তি আজাদ এবং অশোক তনওয়ারের মতো নেতাদের দলে টেনে কংগ্রেসকে বড়োসড়ো ধাক্কা দিয়েছে তৃণমূল। দেশের প্রাচীনতম রাজনৈতিক দলের আরও বেশ কিছু নেতা সম্প্রতি যোগ দিয়েছেন তৃণমূলে। চলতি বছরেই অসমের কংগ্রেস নেত্রী সুস্মিতা দেব এবং গোয়ার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী লুইজিনহো ফালেইরো তৃণমূলে যোগ দিয়েছিলেন। রাতারাতি মেঘালয়ের প্রধান বিরোধী দলের আসন থেকে পতন হয়েছে কংগ্রেসের। উত্থান তৃণমূলের। সেই ঘটনার পর যথেষ্ট উদ্বিগ্ন কংগ্রেস।

আজকের আরও কিছু উল্লেখযোগ্য খবর পড়ুন এখানে:

ক’দিন চলেই ‘মা ক্যান্টিন’ বন্ধ জয়নগর মজিলপুর পুরসভায়

পেট্রোল-ডিজেলের পর গ্যাস সিলিন্ডারে বড়োসড়ো স্বস্তি দিতে চলেছে মোদী সরকার, ডিসেম্বর থেকে কমতে পারে দাম

স্বস্তির শ্বাস পুলিশের! স্থগিত কৃষকদের সংসদ অভিযান

পি চিদম্বরম ও তাঁর ছেলে কার্তিকে সমন জারি আদালতের

আরটি-পিসিআর টেস্টের দরকার নেই, সবরীমালায় ঢুকতে পারবে শিশুরা

পুরভোটের আগে ধাক্কা বামশিবিরে, টিকিট না পেয়ে তৃণমূলে যোগ দিলেন বিদায়ী কাউন্সিলর

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন