indian parliament

নয়াদিল্লি: সংসদের বাদল অধিবেশনের প্রথম দিনই টিডিপির অনাস্থা প্রস্তাব গ্রহণ করেছেন লোকসভার অধ্যক্ষা সুমিত্রা মহাজন। আগামী শুক্রবার এই প্রস্তাবের উপর আলোচনা ও ভোটাভুটি হবে বলে তিনি নোটিস দিয়েছেন। ওই দিন হুইপ জারি করে তৃণমূল কংগ্রেসের ৩৪ জন সাংসদই লোকসভায় উপস্থিত কথা জানালেন দলের সংসদীয় দলনেতা ডেরেক ও ব্রায়ান।

রাজনৈতি্ক বিশেষজ্ঞদের মতে, অনাস্থা প্রস্তাব গ্রহণ এবং ভোটাভুটির পথে যাওয়ার কারণ বিজেপি বা এনডিএ জোটের হাতে পর্যাপ্ত সংখ্যক সাংসদ সংখ্যা মজুত রয়েছে। অন্য দিকে শিবসেনা বা টিডিপির মতো দলের এনডিএ থেকে প্রস্থান বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলিকে উজ্জীবিত করেছে। আগামী ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের আগে যে কারণে দুই পক্ষই চাইছে সংসদের নিম্নকক্ষে শক্তিপরীক্ষায় অবতীর্ণ হতে।

জানা গিয়েছিল, কলকাতার ধর্মতলার ২১ জুলাইয়ের অনুষ্ঠানের জন্য কয়েক জন তৃণমূল সাংসদ লোকসভায় অনুপস্থিত থাকতে পারেন। কারণ ওই অনুষ্ঠানের দায়িত্বভার বর্তেছিল তাঁদেরই কয়েক জনের উপর। তবে সংবাদ সংস্থা এএনআইকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, আগামী শুক্রবার দলের ৩৪ জন লোকসভা সাংসদকেই সংসদে উপস্থিত থাকার নির্দেশ জারি করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: বাদল অধিবেশনের শুরুতেই কেন্দ্রের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব বিরোধীদের

অন্য দিকে সংসদ বিষয়কমন্ত্রী অনন্ত কুমার মন্তব্য করেছেন, “বিরোধীদের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর উপর আস্থা নেই। কিন্তু এটা পরিষ্কার করে বলতে চাই প্রধানমন্ত্রীর উপর দেশবাসীর পূর্ণ আস্থা রয়েছে”।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here