সাংবাদিকদের উপর আক্রমণ: দণ্ডবিধিতে পৃথক অনুচ্ছেদ দাবি করলেন তৃণমূল সাংসদ

0

নয়াদিল্লি: দেশের বিভিন্ন প্রান্তে সাংবাদিকদের উপর আক্রমণের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। অথচ পুলিশি তদন্ত অপরাধীকে চিহ্নিত করতে প্রায়শই ব্যর্থ হচ্ছে। গত বছর সেপ্টেম্বর মাসে বেঙ্গালুরুতে সাংবাদিক ও সমাজকর্মী গৌরী লঙ্কেশ হত্যাকাণ্ডের কিনারা কেন এখনও হল না সেই প্রসঙ্গ তুলে ধরেই তৃণমূল সাংসদ বিবেক গুপ্তা রাজ্যসভায় সোচ্চার হলেন।

তিনি বলেন, এ দেশের গণমাধ্যম কর্মীদের বিরুদ্ধে অপরাধমূলক আচরণ রুখতে একটি পৃথক অনুচ্ছেদ সংযোজন করা হোক ভারতীয় দণ্ডবিধিতে। ব্যক্তিগত ভাবে তিনি মনে করেন, এই পেশার সঙ্গে যুক্ত মানুষকে বরাবরই আচমকা আক্রমণের ভীতি নিয়ে কাজ করতে হচ্ছে। কোনো সাংবাদিকের উপর এই ধরনের আক্রমণ নেমে আসার পর কোনো এক কারণে তার তদন্তে গড়িমসি করা হচ্ছে। একই সঙ্গে তিনি গৌরী লঙ্কেশ হত্যাকাণ্ডের সত্য উদঘাটনে সিবিআই তদন্তের দাবি করেন।

সারা দেশে কোথায়, কত জন সাংবাদিক ঠিক কী ধরনের অপরাধের শিকার হচ্ছেন, সে বিষয়ে নির্দিষ্ট তথ্য সংগ্রহ করে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়ার মতো কোনো নির্দিষ্ট নিয়ম নেই। তিনি বলেন, গত এক যুগ ধরে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে দুষ্কৃতীদের হাতে অসংখ্য সাংবাদিকের প্রাণ গেলেও কোনো একটি ঘটনার তদন্ত পূর্ণতা পায়নি। এমনকি, ১৯৯২ সাল থেকে সংবাদিকদের উপর আক্রমণের ৯৬ শতাংশ মামলার কোনো নিষ্পত্তি হয়নি।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, একই দিনে লোকসভায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী কংগ্রেসের হয়ে সংবাদ মাধ্যমের কাজ করার বিষয়টি তুলে নিয়ে আসেন। তিনি বলেন, কংগ্রেস যখন কেন্দ্রের ক্ষমতায় ছিল তখন সংবাদ মাধ্যমকে হাত করেই অনেক কাজ হাসিল করে নিয়েছে।

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.