শাহিনবাগ খালি করতে ভিন্ন কৌশল পুলিশের

0
shaheen bagh
ছবি: উইকিপিডিয়া থেকে

নয়াদিল্লি: প্রায় এক মাস ধরে দিল্লির শাহিনবাগের একটি রাস্তায় বসে কয়েকশো নারী ও শিশু নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরুদ্ধে দেশব্যাপী প্রতিবাদের মুখ হয়ে উঠেছেন। নতুন আইনে ধর্মকে প্রথমবার ভারতীয় নাগরিকত্বের মানদণ্ড হিসাবে ব্যবহার করার অভিযোগেই ওই অবস্থান বিক্ষোভ চলছে।

সম্প্রতি ওই গুরুত্বপূর্ণ সংযোগকারী রাস্তায় বিশাল ট্র্যাফিক সমস্যার কথা উল্লেখ করে অবস্থান সরানোর একটি আবেদন জমা পড়ে দিল্লি হাইকোর্টে। ওই আবেদন খারিজ করে উচ্চ আদালত পুলিশের উদ্দেশে নির্দেশ দেয়, অবস্থানটি অন্যত্র সরানো যাবে না। কিন্তু জনস্বার্থের কথা মাথায় রেখে নিয়ে কার্যকরী পদক্ষেপ নিতে। প্রধান বিচারপতি ডিএন পটেল এবং বিচারপতি সি হরি শঙ্করের একটি বেঞ্চ অন্য কোনো ব্যবস্থা নিতে বলে।

একই সঙ্গে বর্তমান পরিস্থিতিতে মামলার সঙ্গে প্রযোজ্য আইন এবং সরকারি নীতি অনুযায়ী প্রতিক্রিয়া জানানোরও নির্দেশ দেয় আদালত। এর পরেই পুলিশ মঙ্গলবার ভিন্ন কৌশল অবলম্বন করে অবস্থান বিক্ষোভ সরানোর প্রক্রিয়া শুরু করেছে।

জানা গিয়েছে, শাহিনবাগ-কালিন্দী কুঞ্জ রাস্তাটি খালি করানোর জন্য বল প্রয়োগের পরিবর্তে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে আলোচনার জন্য নমনীয় পথ ধরেছে পুলিশ। হাইকোর্টের নির্দেশ মতোই “আইনশৃঙ্খলা রক্ষণাবেক্ষণ” -এর স্বার্থে রাস্তাটি পরিষ্কার করার পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

সূত্রের খবর, পুলিশ ধর্মীয় নেতাদের সঙ্গে যোগাযোগ করে রাস্তাটি পরিষ্কার করার জন্য বিক্ষোভকারীদের রাজি করার আহ্বান জানিয়েছে। বিক্ষোভ অবস্থানের উপর প্রভাব রয়েছে, এমন ধর্মীয় নেতাদের সঙ্গে যোগাযোগ করছে পুলিশ। অর্থাৎ, জায়গাটি খালি করতে কোনো ভাবেই জোর করা হবে না।

শাহিনবাগ কালিন্দী কুঞ্জের কাছে ওই রাস্তাটি দিল্লিকে তার পাশের অঞ্চল, যেমন ফরিদাবাদ ও নয়ডার সঙ্গে সংযুক্ত করেছে। কয়েক সপ্তাহ ধরে, বিক্ষোভ অবস্থানের কারণে পৃথক পথ অবলম্বন করতে বাধ্য হয়েছে। এর ফলে দিল্লি-নয়ডা-দিল্লি এক্সপ্রেসওয়েতে যানজটের কবলে পড়ে নয়ডা থেকে দক্ষিণ দিল্লিতে যাতায়াতকারীদের অসুবিধে হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.