muktikanta1

ওয়েবডেস্ক: বেশ কয়েক বছর আগে রৌরকেলা ইস্পাত জেনারেল হাসপাতালের হাল ফেরানোর প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। কিন্তু সেই অবস্থার বিন্দুমাত্র পরিবর্তন ঘটেনি। ওড়িশার সংশ্লিষ্ট গ্রামের বাসিন্দারা যথোপযুক্ত চিকিৎসা পরিষেবা থেকে এখনও বঞ্চিত আগের মতোই। উপযুক্ত চিকিৎসার অভাবে মৃত্যুর ঘটনা ঘটেই চলেছে। ৩০ বছরের প্রতিমাশিল্পী মুক্তিকান্ত বিসওয়াল প্রধানমন্ত্রীকে তাঁর দেওয়া প্রতিশ্রুতির কথা মনে করাতে পায়ে হেঁটে দিল্লি যাওয়ার লক্ষে ঘর ছাড়েন।

পিঠের ব্যাগে রাখা কতিপয় সামগ্রী নিয়ে মুক্তিকান্ত পাড়ি দিয়েছেন প্রায় ১৩৫০ কিমি। কিন্তু এই প্রচণ্ড দাবদাহে হাইওয়ে ধরে দিনের পর দিন হেঁটে চলার ধকল সইতে পারল না শরীর। তিনি অসুস্থ হয়ে পড়লে কয়েক জনের উদ্যোগে তাঁকে ভর্তি করা হয় আগ্রার একটি হাসপাতালে। বেডে শুয়ে ক্ষীণকণ্ঠে মুক্তিকান্ত জানান, তাঁর নির্ধারিত গন্তব্যের কোনো পরিবর্তন হবে না। সুস্থ হয়ে তিনি ফের হাঁটতে শুরু করবেন। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে তিনি নিজের কাছে বদ্ধপরিকর।

muktikanta-2

মুক্তিকান্ত জানান, “আমার গ্রামের মানুষ এখনও ন্যূনতম চিকিৎসা পরিষেবা থেকে বঞ্চিত। অথচ ২০১৫ সালে প্রধানমন্ত্রী প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, তিনি নিজে উদ্যোগ নিয়ে এই দুরবস্থার পরিবর্তন করবেন। তিনি বলেছিলেন রৌরকেলার ব্রাহ্মণী সেতুর কাজ শেষ করবেন। আমি তাঁর সঙ্গে দেখা করে সেই প্রতিশ্রুতিগুলির কথাই স্মরণ করিয়ে দিতে চাই”।

নিজের সঙ্গে থাকা একটি জাতীয় পতাকাই যে তাঁকে এই লক্ষে পৌঁছতে অনুপ্রাণিত করছে, তেমন মন্তব্যই করেছেন মুক্তিকান্ত।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here