modi

ওয়েবডেস্ক: সংগঠনের সর্বোচ্চপদে নিজের পছন্দের প্রার্থীর পরাজয়ের পরেই বিশ্বহিন্দু পরিষদ ত্যাগের কথা ঘোষণা করেছিলেন প্রবীণ তোগাড়িয়া। তিনি জানিয়েছিলেন, হিন্দু-সহ কৃষকের স্বার্থরক্ষার একাধিক দাবি-দাওয়া নিয়ে অনির্দিষ্টকালীন অনশনে বসবেন। কিন্তু এক দিন ঘুরতেই তিনি যে ভাষায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে আক্রমণ শুরু করলেন তাতে বিড়ম্বনা বাড়ছে বিজেপির।

রবিবার তিনি মোদীর উদ্দেশে নিক্ষেপ করেছেন একাধিক তির। বলেছেন, চার বছরের মধ্যেই মোদী সরকার সম্পর্কে তাঁর মোহভঙ্গ ঘটেছে। তবে ২০০২ সালের গোধরা কাণ্ডের পর থেকেই তাঁর মনে বিস্ময়ের আবির্ভাব ঘটেছিল। তোগাড়িয়া বলেন, “আমি আর বিশ্বহিন্দু পরিষদে নেই…আমি এ বার হিন্দুদের কল্যাণে কাজ করে যাব”।

pravin

আগামী মঙ্গলবার থেকে হিন্দুদের দীর্ঘস্থায়ী কয়েকটি দাবি পূরণে অহমেদাবাদে অনশনে বসছেন তোগাড়িয়া। গুরগাঁওয়ে আযোজিত পরিষদের আন্তর্জাতিক সভাপতিপদের নির্বাচনে তোগাড়িয়ার পছন্দের প্রার্থী রাঘব রেড্ডি পরাজিত হন হিমাচলপ্রদেশের প্রাক্তন রাজ্যপাল ভি এস কোকজের কাছে। এই পরাজয়ের নেপথ্যে যে মোদীর গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে, তা মনে করেন তোগাড়িয়া। তাঁর প্রভাব খর্ব করতেই আড়াল থেকে কলকাঠি নাড়ার চেষ্টা করা হয়েছে তাঁর ঘনিষ্ট সূত্রে।

গত শনিবারই তোগাড়িয়া গুরগাঁও থেকে অহমেদাবাদ ফিরে যান। সেখানে পরিষদের একাধিক নেতার সঙ্গে কথা বলেন। তারপর স্থির করেন অনশনে বসবেন পরিষদেরই প্রধান কার্যালয়ে। রবিবার সাংবাদিকদের সামনে বলেন, ২০০২ সালের পর থেকেই মোদী সম্পর্কে তাঁর মনে সন্দেহের সৃষ্টি হয়েছিল।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন