সংঘর্ষে নিহত ২৬ জনের মধ্যে শীর্ষ মাওবাদী নেতা মিলিন্দ তেলতুমদে, নিশ্চিত করল মহারাষ্ট্র পুলিশ

0
চলছে সার্চ অপারেশন। প্রতীকী ছবি: ইন্ডিয়াটিভি থেকে

মুম্বই: শনিবার গঢ়চিরৌলিতে পুলিশের সঙ্গে গুলির লড়াইয়ে নিহত ২৬ জন মাওবাদীর মধ্যে শীর্ষ মাওবাদী নেতা মিলিন্দ তেলতুমদের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করল মহারাষ্ট্র পুলিশ।

মুম্বই থেকে ৯০০ কিলোমিটারেরও বেশি দূরে পূর্ব মহারাষ্ট্রের গঢ়চিরৌলি জেলার মরদিনতলা বনাঞ্চলের কোরচিতে অভিযান চালায় মহারাষ্ট্র পুলিশের একটি বিশেষ সি-৬০ কম্যান্ডো দল। অতিরিক্ত এসপি সৌম্য মুন্ডের নেতৃত্বে শনিবারের ওই অভিযানের সময় গুলির লড়াই শুরু হয় মাওবাদীদের সঙ্গে। ২৬ জন মাওবাদীর মৃতদেহ জঙ্গল থেকে উদ্ধার করে পুলিশ।

পুলিশ নিশ্চিত করেছে, গঢ়চিরৌলির এনকাউন্টারে নিহত ২৬ মাওবাদীর মধ্যে ছিলেন সিপিআই (মাওবাদী) কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মিলিন্দ তেলতুমদে। তাঁকে ধরার জন্য ৫০ লক্ষ টাকার পুরস্কার ঘোষণা করা হয়েছিল।

তেলতুমদে ছাড়াও, অন্য যে দুই শীর্ষ মাওবাদী সদস্যকে পুলিশ গুলি করে হত্যা করেছে বলে দাবি করা হয়েছে, তাঁরা হলেন জেলার ইটাপল্লি তহসিলের রেনাদিগুত্তা গ্রামের বাসিন্দা মহেশ ওরফে শিবাজি রাওজি গোতা এবং ছত্তীসগঢ়ের দান্তেওয়াড়া জেলার জাগারগুন্ডা গ্রামের বাসিন্দা লোকেশ ওরফে মঙ্গু পদ্যম। দু’জনেই সিপিআই (মাওবাদী)-এর গঢ়চিরৌলি বিভাগীয় কমিটির সদস্য ছিলেন। গোতা কাসানসুর দালামের দায়িত্বে, তাঁর মাথার দাম ঘোষণা করা হয়েছিল ১৬ লক্ষ টাকা, অন্য দিকে পদ্যম ছিলেন কোম্পানি ৪-এর কম্যান্ডার এবং তাঁকে ধরার জন্য ২০ লক্ষ টাকা পুরস্কার ঘোষণা করা হয়েছিল।

গঢ়চিরৌলি জেলাটি ছত্তীসগঢ় সীমানায় অবস্থিত। ঘটনায় প্রকাশ, গঢ়চিরৌলির গ্যারবত্তি-কোডগুল জঙ্গলের কাছে মাওবাদীদের উপস্থিতির খবর পেয়ে পুলো এলাকা ঘিরে ফেলে জেলা পুলিশ। চার দিক দিয়ে ঘিরে বেরনোর পথ বন্ধ করে দেওয়া হয়। এর পরে প্রায় ১০ ঘণ্টা ধরে পুলিশ-মাওবাদী সংঘর্ষ চলে।

পুলিশের দাবি, ওই এলাকায় ১০০ জনেরও বেশি মাওবাদীর উপস্থিতির খবর পাওয়া গিয়েছিল। ধারণা করা হয়, মাওবাদীদের প্রবীণ ক্যাডার, দন্ডকারণ্য স্পেশাল জোনাল কমিটির (DKSZC) সদস্য প্রভাকরও সেখানে ছিলেন। কিন্তু গুলির লড়াইয়ে তাঁর দেহরক্ষীর মৃত্যু হলেও অন্য ৭৫ জন মাওবাদীর সঙ্গে তিনিও নিরাপদ স্থানে পালিয়ে গিয়েছেন।

আরও পড়তে পারেন:

মহারাষ্ট্রের গঢ়চিরৌলি জেলায় গুলির লড়াইয়ে নিহত কমপক্ষে ২৬ মাওবাদী

বিশ্বহিন্দু পরিষদের অভিযোগের পর দুই মহিলা সাংবাদিকের বিরুদ্ধে এফআইআর ত্রিপুরা পুলিশের

সাহসিকতার মাশুল! অপহরণের চার দিন পর উদ্ধার হল বিহারের সাংবাদিকের দগ্ধ দেহ

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন