কোভিড চিকিৎসায় এই ২ পরিচিত ওষুধ নিষিদ্ধ করল কেন্দ্র

0
নিষিদ্ধ হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন ও আইভারমেক্টিন। প্রতীকী ছবি

নয়াদিল্লি: প্রাপ্তবয়স্ক কোভিড-১৯ (Covid-19) রোগীর চিকিৎসায় আইভারমেক্টিন (Ivermectin) এবং হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন (Hydroxychloroquine)-এর মতো দু’টি পরিচিত ওষুধের ব্যবহার নিষিদ্ধ করল আইসিএমএআর (ICMR)। দেশের স্বাস্থ্য বিষয়ক সংস্থার বিশেষজ্ঞদের দাবি, কোভিডের বিরুদ্ধে এই দুই ওষুধ যে কার্যকরী, তার কোনো প্রমাণ মেলেনি।

আইসিএমআর এবং কোভিড-১৯ ন্যাশনাল টাস্ক ফোর্স জয়েন্ট মনিটরিং গ্রুপের সংশোধিত ক্লিনিক্যাল নির্দেশিকা থেকে এই দু’টি ওষুধকে বাদ দেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। তবে নতুন নির্দেশিকা অনুযায়ী, নির্দিষ্ট পরিস্থিতিতে রেমেডেসিভির এবং টোসিলিজুমাব ব্যবহারের কথা উল্লেখ করা হয়েছে।

রেমেডেসিভিরের মতো অন্যান্য ওষুধের পরিমিত ব্যবহারের পরামর্শ দিলেও উপসর্গ শুরুর ১০ দিনের মধ্যে পরিপূরক অক্সিজেনে শুধুমাত্র মাঝারি বা গুরুতর অবস্থায় রয়েছেন, এমন রোগীদের জন্য ব্যবহারের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে নির্দেশিকায়।

টোকিলিজুমাব ব্যবহারের জন্য, নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, শুধুমাত্র গুরুতর কোভিড রোগীদের জন্য এই ওষুধ ব্যবহার করতে হবে, বিশেষত গুরুতর রোগ বা আইসিইউতে ভর্তির ২৪ থেকে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে।

আইসিএমআর-এর সংক্রামক রোগ বিভাগের প্রধান সমীরণ পন্ডা জানান, ” আইভারমেক্টিন এবং হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন আদৌ কোভিড চিকিৎসার জন্য উপযুক্ত কি না, তা নিয়ে বিস্তর আলোচনা হয়েছে। অবশেষে বিশেষজ্ঞরা সিদ্ধান্ত নেন, যে হেতু দু’টি ওষুধের যথেষ্ট কার্যকারিতার প্রমাণ পাওয়া যায়নি, তাই কোভিড চিকিৎসার তালিকা থেকে বাদ দেওয়া হল এগুলিকে”।

কোভিড মোকাবিলায় যে মূল বিষয়গুলিতে জোর দেওয়া হয়েছে, সেগুলি হল মাস্ক পরা, শারীরিক দূরত্ব এবং হাত ধোয়া।

আরও পড়ুন: সক্রিয় রোগীর সংখ্যা কমে ৩ লক্ষের কাছাকাছি, নতুন করে কোভিড আক্রান্ত প্রায় ৩১ হাজার

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন