এই ঘটনা কি প্রমাণ করছে যে এ বার পুজোর মরশুমেই হিমালয়ে বরফ পেতে পারেন পর্যটকরা?

0
sandakphu snowfall

ওয়েবডেস্ক: এ বার কি তাড়াতাড়ি শীত পড়তে চলেছে দেশে? এ বার কি পুজোর মরশুমেই হিমাচল, উত্তরাখণ্ডের জনপ্রিয় পর্যটক কেন্দ্রগুলিতে বরফের ছোঁয়া পেতে পারেন পর্যটকরা? এমনটা কিন্তু হওয়া খুব একটা অস্বাভাবিক নয়, কারণ এ বার আবহাওয়া কিছুটা অন্য রকম আচরণ করছে।

আগস্টে দু’ বার তুষারপাতের ছোঁয়া পেয়ে গিয়েছে হিমাচল প্রদেশের একটা অংশ। পর্যটকদের কাছে অতি জনপ্রিয় রোটাং পাসে বরফ পড়া শুরু হয় মাঝ-অক্টোবর থেকে। কিন্তু এ বার আগস্টেই দু’ বার বরফ পেয়ে গিয়েছে এই অঞ্চল। অন্য দিকে ভারী তুষারপাতে গাড়ি চলাচল প্রভাবিত হয়েছিল বারালাচা লা-তে। গত ১৮ আগস্ট বরফ পড়েছে লাহুল-স্পিতির কেলং শহরেও। যে কেলংয়ে নভেম্বরের আগে বরফের দেখা মেলে না, সেখানে এই তুষারপাতে স্তম্ভিত স্থানীয়রা।

পিরপঞ্জাল এবং ধৌলাধার পাহাড়শ্রেণিতে ইতিমধ্যেই বেশ কয়েক বার বরফ পড়ে গিয়েছে। যদিও অনেক বরফই গলে গিয়েছে, কিন্তু সাধারণ মানুষ সন্দিহান, এই মরশুমে সম্ভবত তাড়াতাড়ি শীত পড়ার পাশাপাশি আরও বেশি বরফ পড়তে চলেছে।

আরও পড়ুন মুম্বইয়ের কাছে ওএনজিসির প্লান্টে বিধ্বংসী আগুন, বেশ কয়েকজনের মৃত্যু

কেলংয়ের বাসিন্দা শের সিং তন্ডুপ বলেন, “মাঝ অক্টোবরের আগে তুষারপাত হলে আমাদের খুব অসুবিধা। চাষাবাদে খুব ক্ষতি হয়ে যায়। কিন্তু এ বার আবহাওয়ার যা আচরণ, মনে হচ্ছে শীত এ বার তাড়াতাড়ি পড়বে।”

আগস্টে বরফ পড়া মানেই যে অক্টোবরের আগে আরও বরফ পড়বে তা নয়। কিন্তু এই ধারাটি বজায় থাকলে আসন্ন পুজোর ভ্রমণে উত্তরাখণ্ডের কেদার-বদরী বা হিমাচলের লাহুল-স্পিতি ও কিন্নর কিংবা সিকিমের নাথুলা-ইয়োমেসামডাংয়ে পর্যটকরা যে বরফ পাবেন, সেই ব্যাপারে অনেকটাই আন্দাজ করা যায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here