Connect with us

দেশ

কৃষি বিল-বিরোধী বিক্ষোভ অব্যাহত, দিল্লিতে আগুন ধরানো হল ট্র্যাক্টরে

পুলিশের দাবি, বিক্ষোভকারীরা কংগ্রেসপন্থী স্লোগান দিচ্ছিল

Published

on

Farm Protests in Delhi
কৃষি বিক্ষোভে উত্তাল গোটা উত্তর ভারত।

খবরঅনলাইন ডেস্ক: অভূতপূর্ব নাটকীয়তার মধ্যে দিয়ে সংসদে পাশ হওয়া কৃষি বিলগুলিতে রবিবার স্বাক্ষর করেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ (Ramnath Kovind)। ফলে সেই বিল এখন আইনে পরিণত হয়েছে।

আর সোমবার থেকেই দেশের বিভিন্ন প্রান্ত ফের উত্তাল হয়েছে কৃষকদের বিক্ষোভে। দিল্লিতে পরিস্থিতি অগ্নিগর্ভ। ইন্ডিয়া গেটের সামনে বিক্ষোভে আগুন ধরানো হয়েছে একটি ট্র্যাক্টরে।

সোমবার সকাল সাড়ে সাতটা নাগাদ ইন্ডিয়া গেটের (India Gate) সামনে ১৫ জন বিক্ষোভকারী জড়ো হন বলে জানা গিয়েছে। সেই বিক্ষোভ চলাকালীনই ওই ট্র্যাক্টরে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। পরে ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে ওই আগুন নিখিয়ে দেয়। তাদের দাবি, বিক্ষোভকারীরা কংগ্রেসপন্থী স্লোগান দিচ্ছিল।

Loading videos...

বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলির চরম বিরোধিতা সত্ত্বেও বিলগুলি গত সপ্তাহে পাশ হয় রাজ্যসভায়। সেই বিলের বিরুদ্ধে এখনও দেশের বিভিন্ন রাজ্যে বিক্ষোভ দেখাচ্ছে একাধিক কৃষক সংগঠন। অন্য দিকে বিরোধীদের রাজ্যসভা বয়কটের সময় তাদের অনুপস্থিতিতেই পাশ হওয়ার বিলের বিরোধিতা করে বিজেপির সঙ্গ ত্যাগ করেছে পুরোনো সঙ্গী আকালি দল। (বিস্তারিত পড়ুন এখানে: বিতর্কিত কৃষি বিলের বিরোধিতায় বিজেপি-সঙ্গ ত্যাগ করল অকালি দল)

এর আগে কংগ্রেসের নেতৃত্বে বিরোধী দলগুলি রাষ্ট্রপতির কাছে গিয়ে বিলের বিরুদ্ধে দরবার করে। তারা রাষ্ট্রপতির কাছে আবেদন জানায়, স্বাক্ষর না করে বিলগুলিকে পুনর্বিবেচনার জন্য ফেরত পাঠানো হোক। বিলগুলিকে ‘কৃষক-বিরোধী’ আখ্যা দিয়ে বিরোধী দল এবং কৃষক সংগঠনগুলি বহুবিধ আশঙ্কা প্রকাশ করে। যেগুলির মধ্যে অন্যতম, ফসলের ন্যূনতম সহায়ক মূল্য নিয়ে অনিশ্চয়তা।

প্রসঙ্গত, সংসদের বাদল অধিবেশনে ‘অত্যাবশ্যকীয় পণ্য সংশোধনী’, ‘কৃষি পণ্য লেনদেন ও বাণিজ্য উন্নয়ন’ এবং ‘কৃষিপণ্যের দাম নিশ্চিত করতে কৃষকদের সুরক্ষা ও ক্ষমতায়ন চুক্তি’ সংক্রান্ত তিনটি বিল পেশ করেছিল কেন্দ্র। সংসদের বাইরে-ভিতরে বিক্ষোভের মাঝেই সেই বিলগুলি পাশ হয়ে যায়।

বিলগুলি নিয়ে দেশের একাধিক রাজ্যের কৃষকেরা আশঙ্কা প্রকাশ করে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন। তাঁদের অভিযোগ, এই বিলকে হাতিয়ার করেই ফসলের ন্যূনতম সহায়ক মূল্য ছেঁটে ফেলা হবে। তবে কেন্দ্রীয় কৃষিমন্ত্রী এবং প্রধানমন্ত্রীর তরফে সেই অভিযোগ নস্যাৎ করা হয়েছে।

রবিবারও দেশের বিভিন্ন প্রান্তে বিক্ষোভ জারি ছিল। পাঞ্জাবের বিভিন্ন জায়গায় রেল লাইনে বসে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন কৃষকরা। ব্যাহত হয়েছে ট্রেন চলাচল।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

দুবাই, ব্রিটেন থেকে ভারতে আসা ব্যক্তিদের ফলেই এ দেশে বেড়েছে করোনার প্রকোপ, আইআইটির গবেষণায় দাবি

দেশ

দিল্লি মেট্রো স্টেশনে আচমকা অসুস্থ এক যাত্রী, ভিডিয়োয় দেখুন এক সিআইএসএফ জওয়ান কী ভাবে তাঁর জীবন বাঁচালেন

আচমকা মাথা ঘুরে পড়ে গেলেন এক যাত্রী, সিপিআর করে তাঁকে সুস্থ করলেন এক সিআইএসএফ জওয়ান।

Published

on

নয়াদিল্লি: দিল্লির মেট্রো স্টেশনে আচমকা অচৈতন্য হয়ে পড়েছিলেন এক বছর পঁয়তাল্লিশের ব্যক্তি। তাৎক্ষণিক পদক্ষেপে তাঁকে বাঁচিয়ে রীতিমতো নায়ক হিসেবে প্রশংসিত এক সিআইএসএফ জওয়ান।

সোমবার রাজধানীর জনকপুরী এলাকার ডাবরি মোড় স্টেশনে নিরাপত্তারক্ষীরা যখন যাত্রীদের পরীক্ষা করছিলেন, সে সময়ই সংজ্ঞা হারান ওই ব্যক্তি। সেখানেই ছিলেন ওই জওয়ান। টলতে টলতে প্ল্যাটফর্মে পড়ে যাওয়া ব্যক্তির বুকে চাপ দিয়ে সিপিআর শুরু করে দেন। অচৈতন্য হয়ে যাওয়া কোনো ব্যক্তির বুকের উপর এই চাপাচাপি করাকে কার্ডিওপালমোনারি রিসাসিটেশন (Cardiopulmonary resuscitation) বা সংক্ষেপে সিপিআর (CPR) বলা হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ওই সময় ডিউটিতে ছিলেন বিকাশ নামের ওই কনস্টেবল। যাত্রীকে পড়ে যেতে দেখে তিনি তৎক্ষণাৎ সিপিআর শুরু করে দেন। কিছুক্ষণের মধ্যে সম্বিৎ ফিরে আসে ওই যাত্রীর।

Loading videos...

সিআইএসএফ-এর তরফে একটি বিবৃতিতে বলা হয়েছে, “কনস্টেবল লক্ষ্য করেন, ওই যাত্রী অচৈতন্য হয়ে পড়েছেন। আচমকা পড়ে যাওয়ার কারণে তাঁর মুখে আঘাত লাগে। তাৎক্ষণিক ভাবে জওয়ান ওই যাত্রীর সিপিআর শুরু করেন”।

সিআইএসএফ-এর টুইটার হ্যান্ডেলে একটি ভিডিয়োও পোস্ট করা হয়েছে।

চেতনা ফিরে পাওয়ার পরে, ওই যাত্রী জানান, তাঁর নাম সত্যনারায়ণ। তিনি দিল্লির জনকপুরীর বাসিন্দা। পরে দিল্লি মেট্রো রেল পুলিশ একটি অ্যাম্বুলেন্সে করে তাঁকে বাড়িতে পৌঁছে দেন।

আরও পড়তে পারেন: ‘শাশুড়ির’ প্রতি এতটাই ভালোবাসা যে ১১ বউমা মিলে তৈরি করে ফেলেছেন ‘শাশুড়ির মন্দির’, নিয়মিত চলে পুজোপাঠ

Continue Reading

দেশ

‘শাশুড়ির’ প্রতি এতটাই ভালোবাসা যে ১১ বউমা মিলে তৈরি করে ফেলেছেন ‘শাশুড়ির মন্দির’, নিয়মিত চলে পুজোপাঠ

শাশুড়ির মূর্তি মোড়া সোনার অলঙ্কারে। বর্তমান সময়ে দাঁড়িয়ে এ ধরনের খবর অনেকের কাছে অবিশ্বাস্য ঠেকতেই পারে।

Published

on

পুত্রবধূরা। ছবি: সংগৃহীত

খবর অনলাইন ডেস্ক: শাশুড়ির সঙ্গে বউমাদের এমন একটি সুন্দর বন্ধনের কথা শুনে আপনি অবাকই হবেন। বর্তমান সময়ে দাঁড়িয়ে এ ধরনের খবর অনেকের কাছে অবিশ্বাস্য ঠেকতেই পারে। কিন্তু ছত্তীসগঢ়ের বিলাসপুরে এমনটাই ঘটেছে।

প্রায়শই শাশুড়ির সঙ্গে বউমার সম্পর্কের টানাপোড়েন অথবা ঝগড়াঝাটি নিয়ে প্রকাশিত খবর অথবা টেলিভিশন ধারাবাহিক দেখতে দেখতে আমরা অভ্যস্ত হয়ে গিয়েছি। তবে এখানে পরিস্থিতি একেবারেই আলাদা।

আয়োজন অনেক

বিলাসপুরে বসবাসকারী ১১ জন বউমা নিজেদের শাশুড়ির উদ্দেশে মন্দির তৈরি করেছিলেন। পাশাপাশি সুন্দর একটি মূর্তি বানিয়ে সেটাকে সোনার গয়নায় সুসজ্জিতও রেখেছেন তাঁরা। সেখানে নিত্যদিন পুজোও হয়। মাসে একবার সকলে একত্রিত হয়ে ভজন-কীর্তনও করেন বউমারা।

Loading videos...

বিলাসপুর জেলা সদর থেকে প্রায় ২০ কিলোমিটার দূরে বিলাসপুর-কোরবা মার্গে রতনপুর গ্রাম রয়েছে। সেখানে মহামায়া দেবীর একটি মন্দির রয়েছে, যা ২০১০ সাল থেকে নির্মিত হয়েছিল। এই মন্দিরটি গীতাদেবী নামে এক মহিলার। যিনি ২০১০ সালে মারা যান। এই মন্দিরটি তাঁর ১১ জন বউমার তত্ত্বাবধানে নির্মিত হয়েছিল।

শাশুড়ির মূর্তি মোড়া সোনার অলঙ্কারে

গীতাদেবীর একটি মূর্তি রয়েছে ওই মন্দিরে। সেটাতে সোনার গয়নায় সজ্জিত করেছেন তাঁর বউমারা। সেই মূর্তিটি নিয়মিত পুজো করা হয়। এ ছাড়া মাসে এক দিন ভজন-কীর্তনেরও আয়োজন করা হয়।

টাইমস নাও-এর একটি প্রতিবেদনে প্রকাশিত হয়েছে এই খবর। বলা হয়েছে, রতনপুর গ্রামে অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক শিবপ্রসাদ তম্বোলির যৌথ পরিবারের বসবাস। ২০১০ সালে তাঁর স্বর্গীয় স্ত্রী গীতাদেবীর এই মন্দির তৈরি হয়। এই পরিবারে ৩৯ জন সদস্য রয়েছেন। গীতাদেবীর মৃত্যুর শোক আজও ভুলতে পারেনি তাঁর পরিবার।

পরিবারের সমস্ত পুত্রবধূ উচ্চ শিক্ষিত

শোনা যায়, বউমাদের নিজের মেয়ের মতোই ভালোবাসতেন গীতাদেবী। যে কারণে তাঁর মৃত্য়ুর পর বউমারা শাশুড়ির প্রতি শ্রদ্ধা জানানোর বিষয়টিতে নিয়মিতকরণ করতে এই মন্দিরটি তৈরি করেন।

গীতাদেবীর নিজের তিন এবং দেওরের মিলিয়ে বউমার সংখ্যা ১১। তাঁরা প্রত্যেকেই উচ্চ শিক্ষিত। সকলেই স্নাতকোত্তর এবং তাঁরা পারিবারিক ব্যবসায়ের সঙ্গে যুক্ত।

আরও পড়তে পারেন: শিল্পী – স্বপ্ন – শঙ্কা: সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়কে যেমন দেখেছি, ৮৭তম জন্মদিনে শ্রদ্ধার্ঘ্য

Continue Reading

দেশ

কারা টিকে নিতে পারবেন না, জানিয়ে দিল ভারত বায়োটেক

এই সংক্রান্ত একটি ফ্যাক্ট শিট প্রকাশ করা হয়েছে

Published

on

covaxin

খবরঅনলাইন ডেস্ক: যাঁদের শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা খুবই কম, সুস্থ থাকার জন্য প্রচুর ওষুধ খেতে হয় কিংবা, শরীরে বাসা বেঁধেছে কোনো একটি রোগ, তাঁদের কোভ্যাক্সিন (COVAXIN) নিতে নিধেষ করল ভারত বায়োটেক(Bharat Biotech)। মঙ্গলবার সংস্থাটির তরফে এই সংক্রান্ত একটি ফ্যাক্ট শিট প্রকাশ করা হয়েছে।

এখনও পর্যন্ত দ্বিতীয় দফার টিকাকরণে ৩.৮ লক্ষ মানুষকে টিকা দেওয়া হয়েছে। যার মধ্যে ৫৮২ জনের শরীরে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা গিয়েছে। পাশাপাশি অভিযোগ উঠেছে, করোনা টিকা নেওয়ার পরই মৃত্যু হয়েছে ২ জনের। সেই মৃত্যু যে টিকার কারণেই হয়েছে, এই যুক্তি মানতে নারাজ কেন্দ্রীয় সরকার।

সোমবার বিবৃতি জারি করে জানিয়েছে, করোনা টিকা নেওয়ার কারণে তাদের মৃত্যু হয়েছে এই তথ্য সম্পূর্ণ ভুল। তবে টিকা নেওয়ার পর ৭ জন অসুস্থ হয়ে পড়ে। তাঁরা এখন চিকিৎসাধীন।

Loading videos...

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক প্রথমে জানিয়েছিল, যাঁদের শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম তাঁরা টিকা নিতে পারবেন। তবে এই টিকা তাদের শরীরে কতটা প্রভাব ফেলবে তাই নিয়ে আশঙ্কা ছিল প্রথম থেকেই।

যদিও ভারত বায়োটেক কিন্তু এক্কেবারেই ঝুঁকি নিতে রাজি নয়। ‘কোভ্যাক্সিন’-এর নির্মাতারা আরও জানিয়েছে যে, যাঁরা করোনা ছাড়া অন্য গুরুতর অসুখে অসুস্থ, অ্যালার্জির শিকার, অন্তঃস্বত্তা, তাঁরাও এই টিকা নিতে পারবেন না।

টিকা নিতে অ্যালার্জি হতে পারে, সেই আশঙ্কা আগেই জানিয়েছিল ভারত বায়োটেক। এ দিন তারা আরও জানিয়েছে যে টিকার পর হতে পারে শ্বাস নেওয়ার কষ্ট। গলা ও মুখ ফুলে যেতে পারে, র‌্যাশ ও ঝিমুনি আসতে পারে। তবে সেই পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হাই ডোজের ওষুধ খেলে যা যা হয়, ঠিক সে রকমই। এতে ভয়ের কিছু নেই বলেও আশ্বাস দিয়েছে সংস্থাটি। 

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

২০৯ দিন পর কলকাতায় দৈনিক কোভিড সংক্রমণ নামল একশোর নীচে

Continue Reading
Advertisement
Advertisement
ফুটবল5 hours ago

হায়দরাবাদের জয় ঠেকিয়ে ওড়িশার জন্য ১ পয়েন্ট নিয়ে এলেন আলেকজান্ডার

দঃ ২৪ পরগনা8 hours ago

বিজেপির সভায় ভাঙচুর, সরগরম জয়নগর

দেশ9 hours ago

দিল্লি মেট্রো স্টেশনে আচমকা অসুস্থ এক যাত্রী, ভিডিয়োয় দেখুন এক সিআইএসএফ জওয়ান কী ভাবে তাঁর জীবন বাঁচালেন

রাজ্য9 hours ago

৩০ হাজার টেস্টে আক্রান্ত চারশোর কিছু বেশি, রাজ্যে দৈনিক সংক্রমণের হার নামল দেড় শতাংশেরও নীচে

দেশ11 hours ago

‘শাশুড়ির’ প্রতি এতটাই ভালোবাসা যে ১১ বউমা মিলে তৈরি করে ফেলেছেন ‘শাশুড়ির মন্দির’, নিয়মিত চলে পুজোপাঠ

WhatsApp
প্রযুক্তি14 hours ago

ভারতে আরও বড়ো সমস্যায় হোয়াটসঅ্যাপ!

Narendra Modi
ক্রিকেট14 hours ago

অভাবনীয় প্রতিজ্ঞা, অদম্য জেদ-সংকল্প’, রাহানেদের ‘নয়া ভারত’-র জয়ে উচ্ছ্বাস মোদীর

প্রবন্ধ14 hours ago

শিল্পী – স্বপ্ন – শঙ্কা: সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়কে যেমন দেখেছি, ৮৭তম জন্মদিনে শ্রদ্ধার্ঘ্য

election commission of india
রাজ্য17 hours ago

বুধবার রাজ্যে আসছে নির্বাচন কমিশনের ফুল বেঞ্চ

দেশ2 days ago

মহারাষ্ট্র-কেরলে সংক্রমিত ৮০৮৬ বাকি দেশে মাত্র ৫০৭২, ২৩ মে’র পর সব থেকে কম দৈনিক মৃত্যু ভারতে

রাজ্য2 days ago

দক্ষিণবঙ্গে দু’ দিনের জন্য তাপমাত্রা বাড়লেও ফের ফিরবে শীত, উত্তরের পাহাড়ে তুষারপাতের সম্ভাবনা

ফুটবল2 days ago

এগিয়ে থেকেও ড্র করে পয়েন্ট খোয়াল এটিকে মোহনবাগান

দেশ2 days ago

শনিবার নিয়েছিলেন টিকা, রবিবার উত্তরপ্রদেশে মৃত্যু স্বাস্থ্যকর্মীর

দেশ2 days ago

মাত্র ১৮ শতাংশ ভারতীয় হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার চালিয়ে যেতে পারেন, ৩৬ শতাংশ কমিয়ে দেবেন ব্যবহার: সমীক্ষা

ঘরদোর3 days ago

এই ৭টি মিথ্যে বাঁচিয়ে দিতে পারে আপনার সম্পর্কটি

দেশ3 days ago

দিল্লিতে দৈনিক করোনা সংক্রমণের হার কমে ০.৪৪ শতাংশ

কেনাকাটা

কেনাকাটা2 days ago

ঘরের জন্য কয়েকটি খুবই প্রয়োজনীয় সামগ্রী

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যদিনের প্রয়োজনীয় ও সুবিধাজনক বেশ কয়েকটি সামগ্রীর খোঁজ রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদনটি লেখার সময় যে দাম ছিল তা-ই...

কেনাকাটা1 week ago

৯৯ টাকার মধ্যে ব্র্যান্ডেড মেকআপের সামগ্রী

খবর অনলাইন ডেস্ক : ব্র্যান্ডেড সামগ্রী যদি নাগালের মধ্যে এসে যায় তা হলে তো কোনো কথাই নেই। তেমনই বেশ কিছু...

কেনাকাটা2 weeks ago

কয়েকটি ফোল্ডিং আইটেম খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক: এমন অনেক কিছুই থাকে যেগুলি সঙ্গে থাকলে অনেক সুবিধে হত বলে মনে হয়, কিন্তু সব সময় তা পাওয়া...

কেনাকাটা2 weeks ago

রান্নাঘরের কাজ এগুলি সহজ করে দেবেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরের কাজ অনেক বেশি সহজ করে দিতে পারে যে সমস্ত জিনিস, তারই কয়েকটির খোঁজ রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন...

কেনাকাটা2 weeks ago

ম্যাক্সিড্রেসের নতুন কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সুন্দর ম্যাক্সিড্রেসের চাহিদা এখন তুঙ্গে। সামনেই কোনো আনন্দ অনুষ্ঠানের নিমন্ত্রণ থাকলে ম্যাক্সি পরতে পারেন। বাছাই করা কয়েকটি ড্রেসের...

কেনাকাটা2 weeks ago

রকমারি ডিজাইনের ৯টি পুঁটলি ব্যাগের কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: বিয়ের মরশুমে নিমন্ত্রণে যেতে সাজের সঙ্গে মিলিয়ে ব্যাগ নেওয়ার চল রয়েছে। অনেকেই ডিজাইনার ব্যাগ পছন্দ করেন। তেমনই কয়েকটি...

কেনাকাটা2 weeks ago

কস্টিউম জুয়েলারির দারুণ কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: বিয়ের মরশুম আসছে। নিমন্ত্রণবাড়ি তো লেগেই থাকে। সেখানে আজকাল সোনার গয়নার থেকে কস্টিউম বা জাঙ্ক জুয়েলারি পরে যাওয়ার...

কেনাকাটা3 weeks ago

রুম হিটারের কালেকশন, ৬৫০ থেকে শুরু

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ভালোই শীত চলছে। এই সময় রুম হিটারের প্রয়োজনীয়তা খুবই। তা সে ঘরের জন্যই হোক বা অফিস, বা কোথাও...

কেনাকাটা3 weeks ago

চোখের যত্ন নিতে কিনুন এগুলি, খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক: অনেকেই আছেন সারা দিনের ব্যস্ততার মাঝে যদিও বা পা, হাত বা মুখের টুকটাক যত্ন নেন, কিন্তু চোখের বিশেষ...

কেনাকাটা1 month ago

ফিলগুড প্রোডাক্ট! পছন্দ হবেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক: দিনের মধ্যে কিছু সময় যদি নিজের মতো করে নিজের জন্য দেওয়া যায় তা হলে মন যেমন ভালো থাকে...

নজরে