Shilchar
শিলচর বিমানবন্দরে পুলিশি প্রহরা। ছবি: এবিপি আনন্দ থেকে

ওয়েবডেস্ক: খসড়া নাগরিকপঞ্জি প্রকাশের পর তৈরি হওয়া বিতর্ক সরজমিনে দেখতে বৃহস্পতিবার অসম যায় তৃণমূল কংগ্রেসের ৮ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল। কিন্তু শিলচর বিমানবন্দরে নামার পরই তাদের আটকে দেওয়া হয় বলে জানা গিয়েছে। প্রতিবাদে বিমানবন্দরেই অবস্থানে বসেছেন তৃণমূলের ছয় সাংসদ এবং দুই বিধায়ক।

গত মঙ্গলবারই তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করেছিলেন, তৃণমূল কংগ্রেস একটি প্রতিনিধি দল পাঠাবে অসমে। নাগরিকপঞ্জি থেকে প্রায় ৪০ লক্ষ মানুষের নাম বাদ পড়ার পর উদ্ভুত পরিস্থিতি খতিয়ে দেখে সরকারের কাছে নির্দিষ্ট ব্যবস্থা নেওয়ার আর্জি জানাবে তৃণমূল। কিন্তু বৃহস্পতিবার ওই প্রতিনিধি দলটি বিমানবন্দরে নামার পরই তাদের আটকে দেওয়া হয়। দুপুর ১টা নাগাদ গুয়াহাটিতে ওই প্রতিনিধি দলের একটি বৈঠকে নির্ধারিত হয়েছিল বলে জানা গিয়েছে।

আরও পড়ুন: নাগরিকপঞ্জিতে নাম-না-থাকা মানুষদের অনুপ্রবেশকারী বলা যাবে না, বললেন প্রতীক হাজেলা

তৃণমূল কংগ্রেসের ওই প্রতিনিধি দলে আছেন সাংসদ সুখেন্দুশেখর রায়, রত্না দেনাগ, কাকলি ঘোষদস্তিদার, নাদিমূল হক, মমতাবালা ঠাকুর, অর্পিতা ঘোষ এবং বিধায়ক মহুয়া মৈত্র। প্রতিনিধি দলের নেতৃত্বে আছেন রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম।

প্রতিনিধি দলের সদস্য কাকলিদেবী সংবাদ মাধ্যমের সামনে বলেন, “বিমান থেকে নামতেই পুলিশ আমাদের ঘিরে রেখেছে। তবে যত বাধাই আসুক বিমানবন্দর থেকে ফিরে যাব না। আমাদের দলের সদস্য মহুয়া মৈত্র, সুখেন্দুশেখর রায় এবং মমতাবালা ঠাকুরকে মেরেছে পুলিশ”।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন