রাজ্যপালের বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ, অপসারণের দাবি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকে

0
Jagdeep Dhankhar
ফাইল ছবি

ওয়েবডেস্ক: পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল জগদীপ ধানখড় এবং রাজ্যের শাসক দলের সংঘাত রীতিমতো তুঙ্গে। বিলে সই না করায় বিধানসভায় ব্যহত হচ্ছে কাজ। এই অভিযোগ মঙ্গলবার রাজ্যসভা উত্তাল করলেন তৃণমূল সাংসদরা। তাঁরা এ বিষয়ে আলোচনার জন্য অনুমতি চান। অধ্যক্ষ তা প্রত্যাখ্যান করলে ওয়াকআউট করেন দলীয় সাংসদেরা।

আগামী বুধবারই শেষ হচ্ছে বিধানসভায় চলতি অধিবেশনের মেয়াদ। কিন্তু রাজ্যপাল স্বাক্ষর না করায় আটকে রয়েছে রাজ্যেক এসসি/এসটি বিল। এমন পরিস্থিতিতে কার্যত ব্যহত হয়েছে বিধানসভার কার্যক্রম। যার জেরে গত সপ্তাহে দু’দিনের জন্য বিধানসভার অধিবেশন মুলতবি করে দেন অধ্যক্ষ। এই ইস্যুতেই দু’পক্ষের চাপান-উতোর পৌঁছে গিয়েছে সংসদেও। জানা গিয়েছে, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের কাছে রাজ্যপাল জগদীপ ধানখড়ের অরসারণের দাবি তুলেছে রাজ্যের শাসক দল।

অবশ্য বিলে স্বাক্ষর না করা নিয়ে রাজ্যপালের কার্যালয় জানিয়েছে, এই সংক্রান্ত নথি রাজ্যের কাছে চেয়ে পাঠিয়েছিলেন রাজ্যপাল। কিন্তু সেগুলি না পৌঁছানোর কারণেই তিনি বিলে সই করতে পারেননি।

রাজ্যসভায় তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েন ওয়াকআউট পরিচালনা শেষে এক সংবাদিক বৈঠকে বলেন, “যে আইনটি পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নিয়ে আসতে চাইছে, তা রোধ করেছেন পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল। এটি সংবিধান, পশ্চিমবঙ্গ সংসদ, দলিত ও উপজাতি সম্প্রদায় এবং পশ্চিমবঙ্গ উভয়েরই বিরোধী”।

একই সঙ্গে তৃণমূল দাবি করছে, নরেন্দ্র মোদী সরকারের উচিত রাজ্যপালকে ফেরত পাঠানো। ডেরেক যোগ করেন, “পশ্চিমবঙ্গ রাজভবন আরএসএসের স্থানীয় শাখায় পরিণত হয়েছে”।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.