tripple talaq bill

নয়াদিল্লি: নিজেদের অবস্থানে অনড় থেকে প্রত্যাশামতোই শীর্ষ আদালতে তিন তলাক ইস্যুর বিরোধিতা করল কেন্দ্র। বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্টে এই ইস্যুতে চূড়ান্ত শুনানির প্রথম দিন কেন্দ্রের অ্যাডভোকেট জেনারেল মুকুল রোহতগি বলেন, মহিলাদের ন্যায়বিচার এবং সমানাধিকারের জন্য কেন্দ্র লড়াই চালিয়ে যাবে।

বৃহস্পতিবার প্রধান বিচারপতি জে এস খেহরের নেতৃত্বাধীন ভিন্ন ধর্মীয় পাঁচ বিচারপতির বেঞ্চে তিন তালাক ইস্যুতে চূড়ান্ত শুনানি শুরু হয়। শুনানির শুরুতেই আদালত জানায়, তিন তালাক প্রথা ইসলাম ধর্মের জন্য ওতপ্রোত ভাবে জড়িয়ে কিনা সে ব্যাপারে খতিয়ে দেখা হবে। যদি দেখা যায় ইসলাম এবং তিন তালাক একে অপরের সঙ্গে অঙ্গাঙ্গী ভাবে জড়িত তা হলে তার সাংবিধানিক বৈধতা নিয়ে শীর্ষ আদালত কোনো প্রশ্ন করবে না।

এ দিন শুনানি শুরু করেন এই মামলায় অন্যতম আবেদনকারী সায়রা বানুর আইনজীবী অমিত সিংহ চাধা। তিন তালাক প্রথা তুলে দেওয়ার স্বপক্ষে যুক্তি দিতে গিয়ে তিনি বলেন, তিন তালাক ইসলামের সঙ্গে ওতপ্রোত ভাবে জড়িত নয়, কারণ প্রতিবেশী দুই মুসলিম-প্রধান দেশ পাকিস্তান এবং বাংলাদেশে এই প্রথা অবলুপ্ত। সেই সঙ্গে আরও ২২টি মুসলিম-প্রধান দেশে এই প্রথা উঠে গিয়েছে।

অন্য দিকে তিন তালাক প্রথা তুলে দেওয়ার বিপক্ষে যুক্তি দিয়ে অল ইন্ডিয়া মুসলিম পার্সোনাল ল বোর্ড (এআইএমপিএলবি)-এর আইনজীবী কপিল সিবাল বলেন, তিন তালাক ইস্যুটি মুসলিম বোর্ডের বিবেচনার মধ্যে পড়ে এবং সেই ব্যাপারে কোর্টের নাক না গলানোই ভালো। তিনি বলেন, “সরকার আইন তৈরি করে কিন্তু আমার মতে এই বিষয়ে শীর্ষ আদালতের নাক না গলানোই উচিত।”

প্রথম দিনের শুনানি শেষে আদালত জানিয়ে দেয় শুধুমাত্র তিন তালাক এবং ‘নিকাহ হালাল’-এর সাংবিধানিক এক্তিয়ারের ব্যাপারেই রায় দেবে তারা। এখানে বহুবিবাহ নিয়ে কিছু বলবে না, কারণ বহু বিবাহের সঙ্গে তিন তালাকের কোনো সম্পর্ক নেই।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here