নয়াদিল্লি: বিবাহবিচ্ছেদ ঘটানোর সব থেকে জঘন্য এবং অবাঞ্ছিত পদ্ধতি হল তিন তালাক, শুক্রবার এমনই মত পোষণ করল সুপ্রিম কোর্ট। প্রধান বিচারপতি জেএস খেহরের নেতৃত্বাধীন পাঁচ বিচারপতির বেঞ্চে শুরু হওয়া তিন তলাক নিয়ে চূড়ান্ত শুনানির দ্বিতীয় দিন ছিল শুক্রবার।

শুনানি চলাকালীন এ দিন ডিভিশন বেঞ্চকে জানানো হয় যে পাকিস্তান, বাংলাদেশ, মরক্কো, সৌদি আরব, আফগানিস্তান-সহ মুসলিম প্রধান আরও কয়েকটি দেশে তিন তলাক প্রথা অবৈধ।

পাঁচ সদস্যের বেঞ্চকে সহায়তা করার জন্য সলমন খুরশিদ বলেন তিন তালাকের প্রথা বাধ্যতামূলক নয়, এবং একেবারে ঐচ্ছিক। এর প্রত্যুত্তরে ডিভিশন বেঞ্চের সদস্য বিচারপতি রোহিন্টন ফলি নরিম্যান বলেন, “অনেকেই বলেন তিন তালাক আইনত বৈধ, কিন্তু আসলে এটা বিবাহবিচ্ছেদ ঘটানোর একটি জঘন্যতম পদ্ধতি।”

আবেদনকারীদের একজনের হয়ে দাঁড়ানো আইনজীবী রাম জেঠমালানি বলেন, “স্বামীর ইচ্ছায় একজন স্ত্রী হঠাৎ করে প্রাক্তন স্ত্রী হয়ে গেলেন, এটা কোনো আইনই সম্মতি দেয় না। এটা অসাংবিধানিক ব্যবহারের একটি চূড়ান্ত রূপ।”

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার শুনানি শুরু হওয়ার সময়ে শীর্ষ আদালত জানিয়ে দিয়েছিল, ইসলামের সঙ্গে তিন তালাক ওতপ্রোত ভাবে জড়িয়ে কি না, সেটা আগে পরীক্ষা করবে আদালত।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here