tripura election

ওয়েবডেস্ক: রবিবার রাত ন’টা পর্যন্ত ত্রিপুরা বিধানসভা নির্বাচনে ভোট পড়ার হার ৭৮.৫৬ শতাংশ। ৫৯টি বিধানসভা আসনের ৩২১৪টি চলছে ভোট গ্রহণের কাজ। রাত ন’টাতেও বেশ কিছু কেন্দ্রে ভোট নেওয়া হয়েছে। এ দিন সকাল থেকেই নির্বাচন আধিকারিকদের তটস্থ করে রেখেছে ইভিএম এবং ভিভিপ্যাটের যান্ত্রিক গোলযোগের অভিযোগ। এ নিয়ে যথাযথ তদন্তের আশ্বাস দিয়েছেন মুখ্য নির্বাচনী অফিসার শ্রীরাম তরনিকান্তি।

৩.১৪-সারা রাজ্য থেকে খবর আসছে, ইভিএম এবং ভিভিপ্যাটের সমস্যা কিছুতেই মিটছে না। ভারত-তিব্বত বর্ডার পুলিশের জওয়ানদের নিযুক্ত করা হয়েছে দক্ষিণ ত্রিপুরা এবং গোমতীর বুথগুলিতে।

২.২৭- অতীতে ২০০৮ এবং ২০১৩ সালের বিধানসভা নির্বাচনে রেকর্ড গড়েছিল ত্রিপুরা। প্রায় ৯২ শতাংশ ভোট পড়েছিল। ৩১৭৪ বুথে বসানো হয়েছে ভিভিপ্যাট। দেখা যাক কত ভোট পড়ে, জানালেন অতিরিক্ত নির্বাচন আধিকারিক তাপস রায়। সঙ্গে জানালেন,বেশ কয়েকটি কেন্দ্র থেকে ইভিএম ও ভিভিপ্যাটে সমস্যা দেখা দিয়েছে। খবর পাওয়া মাত্রই ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

২.১০-বিকেল চারটে পর্যন্ত দেখব কত মানুষ ভোটের লাইনে দাঁড়িয়ে আছেন। তার পর নেওয়া হবে যথাযথ ব্যবস্থা। তবে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যেই শেষ হবে ভোটগ্রহণ, জানালেন মুখ্য নির্বাচন আধিকারিক।

দুপুর দু’টোর সময় রাজ্যের মুখ্য নির্বাচন আধিকারিক শ্রীরাম তারিণীকান্তি সাংবাদিকদের সামনে বলেন, এখনও পর্যন্ত কোনো জায়গা থেকেই কোনো রকমের দুর্ঘটনা বা হিংসাত্মক ঘটনা ঘটেনি। তবে কোনো কোনো বুথে ইভিএম এবং ভিভিপ্যাটে যান্ত্রিক সমস্যা দেখা দেওয়ায় ইঞ্জিনিয়াররা সেগুলি মেরামত করছেন। চিন্তার কোনো কারণ নেই, নির্বাচন কমিশনের কাছে পর্যাপ্ত পরিমাণ ইভিএম মজুত রয়েছে।

এর আগে দুপুর একটায় সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে রাজ্যের মুখ্য নির্বাচন আধিকারিক শ্রীরাম তারিণীকান্তি বলেন, এখনও পর্যন্ত ভোট পড়েছে প্রায় ৪৫.৯ শতাংশ। বিভিন্ন জায়গা থেকে ইভিএম এবং ভিভিপ্যাটে গোলযোগের খবর পাওয়া গিয়েছে। তবে আমাদের ইঞ্জিনিয়াররা সেই সমস্যা কাটিয়ে সাধারণ মানুষকে সুষ্ঠু ভাবে মতদানে সহযোগিতা করছেন।

আপডেট পেতে ক্লিক করুন: খবরOnline/ত্রিপুরা নির্বাচন

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন