Tripura BJP
ছবি: ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস থেকে

ওয়েবডেস্ক: রবিবার ত্রিপুরা বিজেপির কোর কমিটির বৈঠকে প্রাথমিক ভাবে স্থির হয়ে গেল আগামী ২০১৯ লোকসভা ভোটের রূপরেখা। সূত্রের খবর, দলের কেন্দ্রীয় নেতা রাম মাধবের উপস্থিতিতে ওই বৈঠকে স্থির হয়, আগামী নির্বাচনে রাজ্য শাসক জোটের শরিক আইপিএফটি-কে জোটবদ্ধ ভাবে লড়াইয়ের আহ্বান জানানো হবে।

এ দিন সাংবাদিকদের সঙ্গে রাম মাধব বলেন, “ত্রিপুরায় নতুন সরকার গঠনের পর থেকে আমি এখানে আসিনি। রাজ্য সরকার খুব ভালো ভাবেই কাজ করছে। উন্নয়ন মূলক কাজে দ্রুত গতিতে এগোচ্ছে। যার ইতিবাচক ফল পাওয়া যাবে আগামী পঞ্চায়েত উপনির্বাচনেই। আমি এখানে দলের রাজনৈতিক কাজ দেখতে এসেছি”।

অবশ্য বৈঠক শেষে দলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক রাজীব ভট্টাচার্য বলেন, “আজকের বৈঠকে লোকসভা ভোটের প্রস্তুতি নিয়ে বিশদ আলোচনা হয়েছে”। পাশাপাশি তিনি বলেন, দলীয় নেতৃত্ব আগামী লোকসভা ভোটে রাজ্যের শরিক আইপিএফটির সঙ্গে যৌথ লড়াইয়ের সমর্থনেই বক্তব্য পেশ করেছেন।

সম্প্রতি ত্রিপুরা বিজেপির দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা সুনীল দেওধর জানিয়েছিলেন, রাজ্যে বিজেপি একাই লড়বে। এমন সিদ্ধান্তের কথা কানে যাওয়ার পরই আইপিএফটি-ও জানিয়ে দেয় আগামী লোকসভা ভোটে তারাও বিজেপির হাত ধরবে না। স্বাভাবিক ভাবেই আসন্ন পঞ্চায়েত ভোটেও দুই দল পৃথক ভাবে লড়াইয়ের ময়দানে নেমেছে। মনোনয়ন পেশ নিয়ে দুই দলের সংঘাত চরমে পৌঁছায়। সে সময় থেকেই দোষারোপ-পাল্টা দোষারোপের পারদ চড়চড় করে বেড়ে গিয়েছে।

অন্য দিকে রাজীব এ দিন বলেন, “আমরা স্থির করেছি আইপিএফটি নেতৃত্বের সঙ্গে এ বিষয়ে আলোচনা করা হবে। আগামী লোকসভা ভোটে যাতে দুই দল এক সঙ্গে লড়াইয়ে অবতীর্ণ হয়, সে ব্যাপারে যাবতীয় উদ্যোগ নেওয়া হবে”।


পড়তে পারেন: থানার ভিতরেই স্ত্রীকে তিন তালাক দিলেন স্বামী, ভাইরাল ভিডিও

এ দিন বৈঠকে যোগ দেওয়ার আগে অবশ্য দেওধর সংবাদ মাধ্যমের কাছে জানান, “ত্রিপুরার দু’টি আসনেই বিজেপি জিতবে। এখানে বামপন্থীদের জামানত জব্দ হবে। আমরা প্রধানমন্ত্রীকে ত্রিপুরার দু’টি আসন উপহার দেব”।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন