ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবের ছেলের হাতে কী ভাবে এল আগ্নেয়াস্ত্র?

0
Aryan Deb

ওয়েবডেস্ক: সোশ্যাল মিডিয়ায় মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবের ছেলে আরিয়ানের একটি ছবি নিয়ে বিতর্কের ঝড় ওঠে ত্রিপুরার রাজ্য-রাজনীতিতে। বিরোধী দল কংগ্রেস দাবি করে, এই ছবি নিয়ে প্রকৃত তদন্ত করাতে হবে কেন্দ্রীয় সংস্থাকে দিয়ে। এর পরই জানা যায়, ছবিটিতে আরিয়ানের হাতে ধরা আগ্নেয়াস্ত্র কোথা থেকে এসেছিল?

হাতে কার্বাইন এবং লাইট মেশিনগান ধরা আরিয়ানের ছবি ভাইরাল হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়। গত বৃহস্পতিবার ত্রিপুরার প্রবীণ কংগ্রেস নেতা সুবল ভৌমিক অভিযোগ করেন, এই ধরনের আগ্নেয়াস্ত্র বহন করার উপযুক্ত বয়স এবং প্রশিক্ষণ নেই আরিয়ানের।

Loading videos...

সুবলবাবু আরও বলেন, “ছবিতে দু’টি উচ্চক্ষমতার রাইফেল হাতে নিয়ে দেখা গিয়েছে তাকে। সে বর্তমানে স্কুল পড়ুয়া। এমনকী এ ধরনের অস্ত্র বহন করার পর্যাপ্ত প্রশিক্ষণও নেই তার। স্বাভাবিক ভাবেই এই ধরনের অস্ত্র অপ্রশিক্ষিত হাতে পড়ে যে কোনো সময় বিপদ ঘটে যেতে পারে। আমরা কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থাকে দিয়ে এই ঘটনার তদন্তের দাবি জানাচ্ছি”।

তবে বিতর্কের মাঝেই আরিয়ানের ফেসবুক থেকে উড়ে যায় ছবিগুলি। এ ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করতে না চাওয়ার কথা জানায় ত্রিপুরার শাসক দল বিজেপি।

বিজেপির প্রধান মুখপাত্র অশোক সিনহা জানান, “এই ঘটনা কোনো রাজনীতি বা রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত নয়। সুতরাং আমাদের দল এ প্রসঙ্গে কোনো মন্তব্য করবে না। কংগ্রেসেরও উচিত নয়, পরিবারকে রাজনীতিতে টেনে নিয়ে আসা”।

[ আরও পড়ুন: বরানগরে ভাঙল বিপ্লবী বাঘাযতীনের মূর্তি ]

শুক্রবার জানা যায়, আগরতলায় ত্রিপুরা স্টেট রাইফেলস্‌-এর ৭ নম্বর ব্যাটালিয়নের সদর দফতরের দশমীর দিন আমন্ত্রণ জানানো হয় বিপ্লববাবুর স্ত্রী নীতিদেবীকে। তাঁর সঙ্গেই সেখানে গিয়েছিলেন আরিয়ান। ওই দিন ত্রিপুরা স্টেট রাইফেলস্‌-এর তরফে দেশের জন্য প্রাণ দেওয়া জওয়ানদের স্মরণে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন