justin trudeau

ওটাওয়া: প্রায় এক সপ্তাহের সফর শেষ করে কানাডা ফিরে গিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুদো। কিন্তু তাঁর সফরের শুরু থেকেই যে খালিস্তানি ছায়া ছিল, সেই ছায়া এখনও রয়ে গেল, বরং পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে চলে গিয়েছে যে এতে প্রভাব পড়তে পারে ভারত-কানাডা সম্পর্কে।

মুম্বইয়ে ট্রুদো নৈশভোজে উপস্থিত ছিল পঞ্জাবের এক মন্ত্রীকে খুনে অভিযুক্ত খালিস্তানি জঙ্গি জসওয়াল আটওয়াল। সেই উপস্থিতি নিয়ে ভারত এবং কানাডা, দুই দেশেরই মুখ পুড়েছিল। খালিস্তানি জঙ্গির উপস্থিতি নিয়ে ঘুরিয়ে ভারতকেই দায়ী করেছেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী। এর পালটা দিয়েছে ভারতও। ট্রুদো অভিযোগের কোনো সারবত্তা নেই বলে উড়িয়ে দিয়েছেন বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র রবীস কুমার। ট্রুদোর অভিযোগ যে কোনো ভাবেই মেনে নেওয়া হবে না সে কথাও জানিয়েছেন রবীস।

কী ভাবে ভারতকে দায়ী করলেন ট্রুদো?

সরাসরি ভারতের বিরুদ্ধে কিছু না বললেও, আটওয়ালের উপস্থিতি নিয়ে তাঁর সরকারের এক আধিকারিক যে তত্ত্ব দিয়েছিল, তাকেই সমর্থন করেছেন তিনি। গত ২২ ফেব্রুয়ারি, কানাডা ব্রডকাস্টিং কর্পোরেশন (সিবিসি) একটি প্রতিবেদনে দেখায় যে আটওয়ালের উপস্থিতির জন্য ‘ভারতের অধিকারিকদের’ দায়ী করেন তিনি। তাঁর দাবি ছিল, “কানাডা, শিখ চরমপন্থিদের প্রতি সংবেদনশীল, এটা প্রমাণ করার জন্য ইচ্ছে করেই ভারত এই কাজ করেছে।”

কানাডার ওই আধিকারিকের বক্তব্য সমর্থন করেন ট্রুদো। বুধবার কানাডার সংসদে অধিবেশন চলাকালীন বিরোধী দলনেতা ট্রুদো বক্তব্য জানতে চান। সেখানে ট্রুদো বলেন, “আমাদের সরকার এবং নিরাপত্তার আধিকারিকরা কানাডাবাসীর কাছে কিছু যদি বলেন, তাহলে ধরে নিতে হবে সেটা সত্যিই বলা হয়েছে।”

সিবিসির ভিডিওতে সংসদে ট্রুদোর পুরো বক্তব্যই তুলে ধরা হয়েছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here