assam gas leak

তিনসুকিয়া: অসমের অয়েল ইন্ডিয়া লিমিটেডের (OIL) তেলকূপে লেগে যাওয়া ভয়াবহ আগুন এখনও আয়ত্তে নিয়ে আসা সম্ভব হয়নি। বরং চাঞ্চল্য ফেলে দিয়ে ওই এলাকা থেকেই উদ্ধার হয়েছে দুই দমকলকর্মীর মৃতদেহ। মঙ্গলবার সন্ধ্যা থেকে নিখোঁজ ছিলেন তাঁরা।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার দুপুরে তিনসুকিয়া জেলায় অবস্থিত ওই তেলকূপে আগুন লেগে যায়। ১৪ দিন ধরে ওই তেলকূপ থেকে গ্যাস লিক করছিল। কারও পক্ষেই গ্যাস লিক বন্ধ করা সম্ভব না হওয়ায় সিঙ্গাপুর (Singapore) থেকে ‘ওয়েল কিলার’ বিশেষজ্ঞদের ডেকে পাঠানো হয়েছে।

আগুন এতটাই ভয়াবহ যে কুড়ি কিলোমিটার দূর থেকে তার লেলিহান শিখা দেখা যাচ্ছে। যদিও আধিকারিকদের দাবি, দেড় কিলোমিটার ব্যাসার্ধের বাইরে আগুন ছড়িয়ে পড়েনি।

আগুন নেভানোর কাজে হাত লাগিয়েছেন সেনাবাহিনী আর বায়ুসেনার জওয়ানরা। গোটা এলাকাকে ঘিরে রেখেছে আধাসামরিক বাহিনী।

উল্লেখ্য, তিনসুকিয়া (Tinsukia) জেলার বাঘজন গ্রামে‌ অবস্থিত এই তৈলকূপটিতে গত ২৭ মে থেকে গ্যাস লিক করতে শুরু করে। এর পরেই ঘটনাস্থল থেকে ছ’ হাজার বাসিন্দাকে নিরাপদে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। এখনও পর্যন্ত বাসিন্দাদের কারও মৃত্যু না হলেও অসুস্থ হয়েছেন অনেকেই।

এই ঘটনায় যে শুধু মানুষ দুর্গত হয়েছেন তা কিন্তু নয়, ব্যাপক প্রভাব পড়েছে পরিবেশেও। ১৪ দিন ধরে লাগাতার গ‍্যাস লিকের ফলে মাগুরি বিল (Maguri Bil) জলাভূমিতে ভেসে বেড়ানো গঙ্গাশুশুকের মোড়ক লেগেছে। ডিব্রু-সৈখোয়া জাতীয় উদ্যানে (Dibru-Saikhowa National Park) থাকা বিভিন্ন প্রজাতির পশুপাখিরও জীবন বিপন্ন।

অবিলম্বে এই আগুন বন্ধ না করা গেলে এক ভয়াবহ রাসায়নিক বিপর্যয় ঘটতে পারে ভারতে।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন