গুয়াহাটি : গরুচোর সন্দেহে দু’ জনকে পিটিয়ে হত্যা করা হল। হত্যার ঘটনাটি ঘটেছে অসমের একটি এলাকায়। মৃত দু’ জন হলেন আবু হানিফা এবং রিয়াজউদ্দিন আলি। এক জন পুলিশ আধিকারিক জানিয়েছেন, মৃতদের বিরুদ্ধে অভিযোগ, যে তারা জবাই করার উদ্দেশ্যে গরু চুরি করে নিয়ে যাচ্ছিল। দু’ জন ব্যক্তিকে গ্রামের মাঠ থেকে গরু চুরি করে নিয়ে যেতে দেখে গ্রামবাসীরা তাদের ধাওয়া করে পাকড়াও করে এবং লাঠি দিয়ে পেটায়। ঘটনায় গুরুতর ভাবে আহত হন দু’ জনই। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার আগেই তাদের মৃত্যু হয়। পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনার প্রেক্ষিতে একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে এবং দু’ জনকে আটকও করা হয়েছে।

ইদানীং দেশের বিভিন্ন রাজ্যে বিভিন্ন কট্টরপন্থী হিন্দু সংগঠন গরু পাচার ও জবাই রোখার উদ্দেশ্যে পাহারাদারির ব্যবস্থা করেছে। গোরক্ষকবাহিনীর নামে মালবাহী যানগুলিতে তল্লাশিও চালানো হচ্ছে। গত কয়েক মাসে গোটা দেশে এই একই কারণে মারা গেছেন বেশ কয়েক জন।

এই জাতীয় হত্যার বাড়বাড়ন্তে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও গোরক্ষক দলগুলোর সমালোচনা করেছেন। বলেছেন, তাদের কর্মকাণ্ড তিনি পছন্দ করছেন না। কিন্তু তাতেও থামানো যায়নি এই গোরক্ষকবাহিনীকে। বন্ধ করা যায়নি সন্দেহকারীর দৃষ্টি। তার পরেও থেমে থাকেনি হামলা ও হত্যা।

প্রসঙ্গত, একটি মানবাধিকার সংস্থার রিপোর্টে বলছে, ২০১৫ সালের মে মাস থেকে এই পর্যন্ত গরু ইস্যুকে কেন্দ্র করে ১০ জনকে হত্যা করা হয়েছে। অন্য একটি আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা হিউম্যান রাইটস ওয়াচ-এর মতে, ২০১৪ সালে বিজেপি ক্ষমতায় আসার পর থেকেই দেশে এ ধরনের আক্রমণ বেড়েছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here