সিএএ-কে সমর্থন, এনআরসি নিয়েও স্পষ্ট বার্তা মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরের

0
uddhav thackeray

মুম্বই: মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে জানিয়ে দিলেন, তিনি নিজের রাজ্যে প্রস্তাবিত জাতীয় নাগরিক পঞ্জী (এনআরসি) প্রয়োগ করতে দেবেন না। তবে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন (সিএএ)-এর বিষয়ে বলেছেন, আইনটি কারও কাছ থেকে নাগরিকত্ব কেড়ে নেওয়ার জন্য নয়।

এর আগে সিএএ-কে সমর্থন জানিয়েছে উদ্ধবের দল শিবসেনা। শরদ পওয়ারের এনসিপি এবং জাতীয় কংগ্রেসের সঙ্গে জোট বেঁধে সরকার চালাচ্ছে শিবসেনা। স্বাভাবিক ভাবেই সিএএ নিয়ে শিবসেনার সিদ্ধান্ত রাজ্য সরকারের অন্দরে শরিকি সমস্যা তৈরি করতে পারে বলেই ওয়াকিবহাল মহলের ধারণা। কারণ জোট শরিক কংগ্রেস এবং এনসিপি ইতিমধ্যেই সংশোধনী আইনের বিরোধিতা করেছে।

শিবসেনার মুখপত্র সামানার একটি সাক্ষাৎকারে সংক্ষিপ্ত ভিডিও ক্লিপে ঠাকরেকে বলতে শোনা যায়, সিএএ-তে নাগরিকত্ব কেড়ে নেওয়ার কোনো বিষয় নেই। তাঁকে বলতে শোনা গিয়েছে, “কাউকে দেশ থেকে তাড়িয়ে দেওয়ার জন্য এই আইন নয়”।

এনআরসি বাস্তবায়নের বিষয়েও ঠাকরে মুসলমানদের উদ্বেগের বিষয়টিকে প্রাধান্য দেওয়ার চেষ্টা করেছেন। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, নাগরিকত্ব প্রমাণ করা হিন্দু ও মুসলমান উভয়ের পক্ষেই কঠিন হবে। তাঁর কথায়, “নাগরিকত্ব প্রমাণ করা হিন্দু ও মুসলমান উভয়ের পক্ষেই কঠিন হবে। আমি তা হতে দেব না”।

যদিও কয়েক দিন আগেই শোনা গিয়েছিল, কেরল এবং পঞ্জাবের মতোই বিধানসভায় সিএএ-বিরোধী প্রস্তাব নিয়ে আসতে পারে মহারাষ্ট্রের শাসক জোট। সংবাদ সংস্থা এএনআইয়ের কাছে কংগ্রেস মুখপাত্র রাজু ওয়াঘমারে বলেন,”আমাদের প্রবীণ দলনেতা বালাসাহেব থোরাতও সিএএ নিয়ে নিজের অবস্থান স্পষ্ট করেছেন। এমনকী মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে জানিয়ে দিয়েছেন তাঁরা সিএএ-র বিপক্ষে। আমাদের জোট সরকারের উচ্চনেতৃত্ব এক সঙ্গে বসে এ ব্যাপরে সিদ্ধান্ত নেবেন”।

স্বাভাবিক ভাবেই সিএএ-কে কেন্দ্র করে অদূর ভবিষ্যতে শাসক জোটের শরিকদের মধ্যে নতুন করে সম্পর্কের টানাপোড়েন সৃষ্টি হতে পারে বলেই রাজনীতির কারবারীদের অভিমত।

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.