aadhar

নয়াদিল্লি: সুপ্রিম কোর্টের রায়ে বড়োসড়ো ধাক্কা খেয়েছে নতুন আধার কার্ড তৈরির কাজ। তার আগে থেকেই অবশ্য বন্ধ রয়েছে আধার এনরোলমেন্ট। নতুন করে এনরোলমেন্ট চালু করতে এবং আধার নিয়ে যাবতীয় সমস্যার সমাধান করতে বেশ কিছু আধার সেবা কেন্দ্র তৈরি করতে চলেছে ইউনিক আইডেনটিফিকেশন অথরিটি অব ইন্ডিয়া (ইউআইডিএআই)। মঙ্গলবার সংস্থা জানিয়েছে, আগামী কয়েক মাসের মধ্যেই এই সেবা কেন্দ্রগুলি চালু হয়ে যাবে। এত দিন বিভিন্ন জায়গায় কিছু সেবা কেন্দ্র ছড়িয়ে ছিটিয়ে ছিল। এই সব কেন্দ্রে নাগরিকদের ব্যক্তিগত তথ্যের নিরাপত্তা কতটুকু, তা নিয়েও বহু প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হয়েছে ইউআইডিএআই-কে।

এ বার এই ব্যবস্থার মাধ্যমেই ব্যাঙ্ক, পোস্ট অফিস আর অন্যান্য সরকারি দফতরগুলিতে সেবা কেন্দ্রগুলি স্থানান্তর করা হবে। এই কেন্দ্রগুলি পরিচালনার দায়িত্বে থাকবেন ইউআইডিএআই-এর কর্মীরাই।

ইউআইডিএআই-এর সিইও অজয় ভূষণ পান্ডে বলেন, এই কেন্দ্রের মাধ্যমে সাধারণ মানুষের যাবতীয় সমস্যার সমাধান করা সম্ভব হবে। সেখানে কোনো রকম ঝামেলা থাকবে না। থাকবে প্রতি এলাকার বাসিন্দাদের সুবিধা জনক জায়গায় উন্নত মানের ব্যবস্থা। এই পর্যন্ত ৫৩টি শহরে ১১৪টি আধার সেবা কেন্দ্র আছে। এর মধ্যে  রাজ্যগুলির রাজধানী শহরগুলিও রয়েছে।

রাফাল নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ কি মানবে না কেন্দ্র?

এ ছাড়াও তিনি বলেন, এম আধার, ই আধার, কিউআর কোড, অফ লাইন আধার পরিষেবা ইত্যাদির বিষয়ে মানুষের মধ্যে সচেতনতা তৈরি করা হবে। কোনো ভাবে পরিষেবা না দেওয়ার ব্যাপার থাকবে না। বিশেষ করে ব্যক্তিগত তথ্যের গোপনীয়তা আর নিরাপত্তা রক্ষিত হবে। এক একটি আধার সেবা কেন্দ্রের ওপর নির্ভর করবে আট থেকে ১৬টি স্টেশনের দায়িত্ব। অবশ্য সবটা নির্ভর করবে এলাকার জন সংখ্যার ওপর।

উল্লেখ্য, সুপ্রিম কোর্টের রায়ে বর্তমানে আধারের প্রয়োজনীয়তার ক্ষেত্র অনেকটাই কমে এসেছে। মাত্র কয়েকটি ক্ষেত্রেই আধার নম্বর ব্যবহার করা হচ্ছে। শুধু মাত্র প্যান কার্ড এবং আয়কর দাখিলের ক্ষেত্রেই আধান নম্বরের ভূমিকা বজায় রয়েছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here