বাজেট ২০১৯: শিক্ষাখাতে বরাদ্দ ৪০০ কোটি, দক্ষতা বৃদ্ধিতেও জোর নির্মলা সীতারমনের

0
Budget education
প্রতিনিধিত্বমূলক ছবি

ওয়েবডেস্ক: উচ্চতর শিক্ষায় নতুন নীতি নিয়ে এগোতে চাইছে কেন্দ্রীয় সরকার। শুক্রবার সাধারণ বাজেট পেশের সময় দেশের প্রথম পূর্ণ সময়ের মহিলা অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন সেই পরিকল্পনার কথাই ব্যক্ত করলেন। অর্থমন্ত্রী বলেন,
গবেষণাক্ষেত্রে বিশেষ জোর দিতে চলেছে সরকার। সেই লক্ষ্যের দিকে এগিয়ে যেতেই একাধিক মন্ত্রক থেকে তহবিল সংগ্রহের মাধ্যমে একটি জাতীয় গবেষণা সংগঠন তৈরি করার উদ্যোগ নেওয়া হবে।

এ দিন বিদেশি পড়ুয়াদের জন্য ‘স্টাডি ইন ইন্ডিয়া’ নামের একটি বিশেষ পরিকল্পনার কথাও জানান অর্থমন্ত্রী। ভারতে বিশ্বমানের পঠনপাঠনের পরিকাঠামো গড়ে তোলাই এই সরকারের লক্ষ্য বলে তিনি দাবি করেন। বলেন, এ দেশের বিশ্ব মানের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলির জন্য চারশো কোটি টাকা বরাদ্দ করছে সরকার। ওই টাকায় পরিকাঠামো ঢেলে সাজানো হবে।

একই সঙ্গে ১ কোটি তরুণকে সময়োপযোগী কারিগরি শিক্ষা দেওয়ার পাশাপাশি প্রযুক্তিগত দক্ষতা বৃদ্ধিতেও জোর দিচ্ছে কেন্দ্র। অর্থমন্ত্রী এ দিন সংসদে বলেন, রোবোটিক্স, আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স ও ডেটা সায়েন্সের মতো বিষয়ে জোর দেওয়া হবে।

এ প্রসঙ্গে জেআইএস গ্রুপের ম্যানেজিং ডিরেক্টর সর্দার তরণজিৎ সিং বলেন, “আমি শিক্ষা ও দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য চারশো কোটি টাকা বরাদ্দ করার জন্য কেন্দ্রীয় বাজেট ২০১৯-এর প্রশংসা করছি। ‘স্বয়ম’ কর্মসূচির উপর মনোযোগ, ১ কোটি শিক্ষার্থীকে দক্ষতা প্রশিক্ষণ প্রদানের বিষয়টি যথেষ্ট উৎসাহব্যঞ্জক। এ দিন বলা হয়েছে, ভারতকে উচ্চশিক্ষার কেন্দ্র হিসাবে গড়ে তোলার পরিকল্পনা রয়েছে। ‘স্টাডি ইন ইন্ডিয়া’ উদ্যোগটির মাধ্যমে আশা করা হচ্ছে বিদেশি শিক্ষার্থীদের আকৃষ্ট করার পাশাপাশি শিক্ষাগত সহযোগিতার সম্ভাবনা আরও বৃদ্ধি পাবে”।

------------------------------------------------
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.