aadhaar card rbi

নয়াদিল্লি :  অত্যাবশ্যকীয় পরিষেবা দেওয়া বা পাওয়ার ক্ষেত্রে আধার কার্ড মোটেই বাধ্যতামূলক নয়। স্বাস্থ্য, চিকিৎসা, স্কুলে ভর্তি হওয়া, রেশন ইত্যাদির মতো অত্যাবশ্যকীয় ক্ষেত্রে আধার নম্বর দিতে না পারলে পরিষেবা দিতে অস্বীকার করা যাবে না। এ ক্ষেত্রে আধার নম্বর দেওয়া বা না দেওয়া সবটাই ব্যক্তির ইচ্ছাধীন। আধারের পরিবর্তে পরিচয়ের অন্য যে কোনো প্রমাণ পত্র দেওয়া যেতেই পারে। এই বিষয়ে স্পষ্ট করে দিল ইউনিক আইডেনটিফিকেশন অথরিটি অব ইন্ডিয়া (ইউআইডিএআই)। হাসপাতালে ভর্তি ইত্যাদির মতো কয়েকটি ক্ষেত্রে গত কয়েক দিন ধরে বেশ কিছু মানুষকে সমস্যায় পড়তে হয়েছে। সেই ঘটনার প্রেক্ষিতেই বিষয়টি স্পষ্ট করেছে সংস্থা।

আধার কার্ড সম্পর্কে অপ্রীতিকর পরিস্থিতির সম্মুখীন হলে কী করা উচিত, সে ব্যাপারে টুইটারে পরামর্শ দিয়েছে ইউআইডিএআই। সংস্থা জানিয়েছে, এই বিষয়ে আধার আইন ২০১৬-এ সাত নম্বর ধারায় বিস্তারিত বলে হয়েছে। আধার না থাকলে কোনো বাঁধা দেওয়া বা বঞ্চিত করা যাবে না। আধারের ব্যবস্থা করা হয়েছে ব্যক্তির পরিচয়ের সঠিক প্রমাণের জন্য। প্রযুক্তির ব্যবহার করে পরিষেবা আর ব্যক্তির মধ্যে স্বচ্ছতা আনার জন্য। যাতে কোনো নাগরিক পরিষেবা যথাযথ লাভ করতে পারে। স্বাভাবিক ভাবেই আধার দিতে না পারার জন্য পরিষেবা দেওয়া না হলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

উল্লেখ্য ব্যাঙ্ক, বিমা, আয়কর, অবসর ভাতা, মোবাইল, সরকারি প্রকল্প ইত্যাদির মতো বেশ কিছু অত্যাবশ্যকীয় ক্ষেত্রে আধার কার্ড আবশ্যিক করা হয়েছে। এই সমস্ত ক্ষেত্রে আধার নম্বর সংযোগ করার শেষ তারিখ ৩১ মার্চ।

টুইটারে ইউআইডিএআই-এর পরামর্শ, যদি কোনো বিভাগীয় কর্মী আধার কার্ড না থাকার দরুণ পরিষেবা দিতে অস্বীকার করে তা হলে সেই বিভাগের বিভাগীয় প্রধানের কাছে গিয়ে তার বিরুদ্ধে নালিশ জানানো যেতে পারে।

বলা হয়েছে, কোনো যুক্তিতেই অত্যাবশ্যকীয় পরিষেবা দিতে অস্বীকার করা যাবে না। আধার আইন অনুযায়ী তা সম্পূর্ণ শাস্তিযোগ্য অপরাধ।

 

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন