ওই সময় সে হাসপাতালে ছিল, দাবি উন্নাও গণধর্ষণ মামলার অভিযুক্তের

0

ওয়েবডেস্ক: উত্তরপ্রদেশের উন্নাওয়ের ২৩ বছর বয়সি মহিলার গণধর্ষণের ঘটনায় মূল অভিযুক্ত দু’জনের মধ্যে একজন দাবি করল, ওই ঘটনার সময় সে হাসপাতালে ছিল। নিজের দাবির স্বপক্ষে সে একটি “মেডিকেল রেজিস্ট্রেশন স্লিপ” পেশ করে আদালতে।

গত সপ্তাহে ঘাতকদের আক্রমণে অগ্নিদগ্ধ হয়ে মারা যান নির্যাতিতা। তাঁর গায়ে আগুন ধরিয়ে দেওয়ার ঘটনায় পাঁচজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের হয়। তবে ধর্ষণের ঘটনায় এক অভিযুক্ত আদালতে দাবি করেছে, মহিলাকে ধর্ষণের দিন তাকে স্থানীয় প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে (পিএইচসি) ভরতি করা হয়েছিল।

সুমেরপুর পিএইচসি কর্তারা অবশ্য দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে নিশ্চিত করেছেন যে শুভম ত্রিবেদী নামে অভিহিত “মেডিকেল রেজিস্ট্রেশন স্লিপ”টি “জাল” এবং ওই তারিখে এই নামে কোনো রোগীই হাসপাতালে ভরতি হয়নি।

শুভম যে “রেজিস্ট্রেশন স্লিপ” দেখায়, তাতে বলা হয়েছে, গত বছরের ১০ ডিসেম্বর সে পিএইচসিতে ভরতি হয়েছিল এবং পাঁচ দিন পরে তাকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু মহিলা মৃত্যুর আগে পুলিশের কাছে জানিয়েছিলেন, গত বছরের ১২ ডিসেম্বর শুভম ও তার বন্ধু শিবম তাঁকে গণধর্ষণ করেছিল। চলতি বছরের ৫ মার্চ এফআইআর নিবন্ধিত হয়েছিল।

নির্যাতিত মহিলার গায়ে আদালতে যাওয়ার পথে আগুন দেওয়ার জন্য গ্রেফতার হওয়া পাঁচজনের মধ্যে একজন শুভমের বাবা হরি শঙ্কর ওই “রেজিস্ট্রেশন স্লিপ” হাইকোর্টে উপস্থাপন করেন। সেই সঙ্গে গণধর্ষণের অভিযোগে এফআইআর থেকে শুভমের নাম অপসারণের জন্য একটি লিখিত আবেদন করেন।

Unnao
নির্যাতিতার শেষকৃত্য। ফাইল ছবি

“মেডিকেল স্লিপ”-এ উল্লেখ করা হয়েছে, রোগীকে (শুভমকে) “হাইড্রোসিলেক্টমির জন্য ভরতি করা হয়েছিল”। অর্থাৎ, তার হাইড্রোসিল অস্ত্রোপচারের জন্য হাসপাতালে ভরতি হয়েছিল। একই সঙ্গে ওই স্লিপে তার প্রতিদিনের চিকিৎসার বিস্তারিত উল্লেখ রয়েছে।

তবে, ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের সঙ্গে কথা বলার সময়, পিএইচসির দায়িত্বে থাকা মেডিকেল অফিসার (আয়ুশ) ডা. জিতেন্দ্র যাদব জানিয়েছেন, তাঁরা তাদের রেকর্ড চেক করেছেন এবং “আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে বলতে পারেন যে শুভম ত্রিবেদী নামে কোনো রোগী ওই তারিখে আইপিডিতে ছিল না”।

তিনি আরও বলেন, অভিহিত মেডিকেল স্লিপটি জাল। সেটা একটি ওপিডি স্লিপ। তিনি জোর দিয়ে বলেন, এটাও সবাই জানেন, কোনো রোগী কখনও “কোনো হাসপাতালের ওপিডিতে ভর্তি হয় না”।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.